নাগোদ রাজ্য ('নাগৌদ' বা 'নাগোধ' নামেও পরিচিত) ছিলো ব্রিটিশ শাসিত ভারতে অবস্থিত একটি দেশীয় রাজ্য। রাজ্যটি বর্তমানে ভারতের মধ্যপ্রদেশ রাজ্যের সাতনা জেলায় অবস্থিত৷[১] খ্রিস্টীয় অষ্টাদশ শতাব্দী অবধি এটি রাজধানী উঞ্চেহরার নাম অনুসারে উঞ্চেহরা রাজ্য নামে পরিচিত ছিল।

নাগোদ রাজ্য
नागौद
ব্রিটিশ ভারত দেশীয় রাজ্য
১৩৪৪–১৯৫০
পতাকা
Orchha-Panna map.jpg
Nagod State in the ইম্পেরিয়াল গেজেটিয়ার অব ইন্ডিয়া থেকে প্রাপ্ত নাগোদ রাজ্যের মানচিত্র
আয়তন 
• ১৯০১
১,২৯৮ বর্গকিলোমিটার (৫০১ বর্গমাইল)
জনসংখ্যা 
• ১৯০১
৬৭,০৯২
ইতিহাস 
• প্রতিষ্ঠিত
১৩৪৪
১৯৫০
উত্তরসূরী
ভারত

ইতিহাসসম্পাদনা

১৩৪৪ খ্রিস্টাব্দে রাজা বীররাজ জুদেব বর্তমান সাতনা অঞ্চলের নরো দুর্গ থেকে অন্যান্য সমস্ত দখলদারদের সরিয়ে নিজের দুর্গ দখল করেন এবং উচ্চকল্প নামে একটি শহর প্রতিষ্ঠা করেন। এই শহরই পরবর্তীকালে উঞ্চেহরা নাম পায়। ১৭২০ খ্রিস্টাব্দে নতুন রাজধানীর নাম অনুসারে রাজ্যটির নাম নাগোদে বদলে যায়। ১৮০৭ খ্রিস্টাব্দে এটি পান্না রাজ্যের সামন্ত রাজ্যে পরিণত হয় এবং প্রকাশিত সনদে এটিকে ওই রাজ্যের অংশীভূত করা হয়। ১৮০৯ খ্রিস্টাব্দে লাল শিবরাজ সিংহকে নতুন সনদ অনুযায়ী রাজ্যের রাজা ঘোষণা করা হয়। ১৮২০ খ্রিস্টাব্দে বেসিনের চুক্তি স্বাক্ষরিত হলে নাগোদ রাজ্যটি একটি ব্রিটিশ করদ রাজ্যে পরিণত হয়।

রাজা বলভদ্র সিংকে ১৮৩১ নিজের ভাইকে হত্যা করার অভিযোগের ভিত্তিতে গ্রেপ্তার করা হয়। রাজার অভাবে রাজ্যের আইন শৃঙ্খলা এবং নিরাপত্তার অভাব দেখা দিলে ১৮৪৪ খ্রিস্টাব্দে ব্রিটিশ সরকার অর্থনৈতিক মন্দার অজুহাতে এই রাজ্যটি প্রশাসনিকভাবে দখল করেন। সঠিক সময়ে রাজা রাঘবেন্দ্র সিং তার রাজ্য পুনরুদ্ধার করেন। ১৮৫৭ খ্রিস্টাব্দে সিপাহী বিদ্রোহের সময় রাজার ব্রিটিশ আনুগত্যের ফলে রাজ্যটি ধানওয়াল পরগনা লাভ করে। ১৮৬২ সনদ জারি করিয়ে রাজ্যটির অপুত্রক রাজাদের দত্তকপুত্র গ্রহণের অধিকার নিশ্চিত করা হয় এবং ১৮৬৫ স্বাধীনভাবে স্থানীয় রাজাকে পুনঃপ্রতিষ্ঠা করা হয়। নাগোদ রাজ্যটি ছিল মধ্য ভারত এজেন্সির বাঘেলখণ্ড এজেন্সির অন্তর্গত। [২] ১৮৭১ থেকে ১৯৩১ খ্রিস্টাব্দ পর্যন্ত এই রাত্রে সহ আশেপাশের একাধিক দেশীয় রাজ্যকেপুনরায় বুন্দেলখন্ড এজেন্সির অন্তর্গত করা হয়েছিল। নাগোদের শেষ রাজা হিস হাইনেস শ্রীমন্ত মহেন্দ্র সিং ১৯৫০ খ্রিস্টাব্দের পয়লা জানুয়ারি তারিখে ভারতীয় অধিরাজ্যে অন্তর্ভুক্ত হওয়ার জন্য সম্মতিপত্রে স্বাক্ষর করেন। [৩]

শাসকবর্গসম্পাদনা

রাজ্যটির শাসকগণ রাজা উপাধিতে ভূষিত হতেন, এটি ছিল ১১ তোপ সেলামী রাজ্য। শাসকরা ছিলেন প্রতিহার রাজবংশের উত্তরসূরী।[৪]

রাজাসম্পাদনা

  • ১৬৮৫ – ১৭২০ ফকির শাহ সিং
  • ১৭২০ – ১৭৪৮ চৈন সিংহ
  • ১৭৪৮ – ১৭৮০ আহ্লাদ সিং
  • ১৭৮০ – ১৮১৮ লাল শিবরাজ সিং
  • ১৮১৮ – ১৮৩১ বলভদ্র সিং
  • ১৮৩১ – ২৩ ফেব্রুয়ারি ১৮৭৪ রাঘবেন্দ্র সিং
  • ২৩ ফেব্রুয়ারি ১৮৭৪ – ৪ নভেম্বর ১৯২২ যাদবেন্দ্র সিং
  • ৪ নভেম্বর ১৯২২ – ২৬ ফেব্রুয়ারি ১৯২৬ নরহরেন্দ্র সিং
  • ২৬ ফেব্রুয়ারি ১৯২৬ – ১৫ আগস্ট ১৯৪৭ মহেন্দ্র সিং

তথ্যসূত্রসম্পাদনা

  1. David P. Henige (২০০৪)। Princely states of India: a guide to chronology and rulers। Orchid Press। পৃষ্ঠা 22। আইএসবিএন 978-974-524-049-0 
  2.   চিসাম, হিউ, সম্পাদক (১৯১১)। "Nagode"। ব্রিটিশ বিশ্বকোষ19 (১১তম সংস্করণ)। কেমব্রিজ ইউনিভার্সিটি প্রেস। পৃষ্ঠা 151। [[বিষয়শ্রেণী:উইকিসংকলনের তথ্যসূত্রসহ ১৯১১ সালের এনসাইক্লোপিডিয়া ব্রিটানিকা থেকে উইকিপিডিয়া নিবন্ধসমূহে একটি উদ্ধৃতি একত্রিত করা হয়েছে]]
  3. Nagod (Princely State)
  4. Princely States of India