প্রধান মেনু খুলুন

নজির আহমেদ চল্লিশের দশকে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের একজন ছাত্রনেতা ছিলেন। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে সাম্প্রদায়িক দাঙ্গার তিনি প্রথম শিকার। নজির আহমেদ ফেনী জেলার আলিপুর গ্রামে জন্মগ্রহণ করেন। ১৯৩৭ সালে ম্যাট্রিক পাস করার পর ১৯৩৯ সালে ফেনী কলেজ থেকে আই এ পাস করেন। আই এ পাসের পর তিনি ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি হন। ১৯৪৩ সালের ২ ফেব্রুয়ারি সাম্প্রদায়িক কারণে কতিপয় ছাত্রের মাঝে মারামারি চলাকালীন তিনি তাদের থামাতে এগিয়ে যান এবং ছুরিকাঘাতে নিহন হন। তাকে মিটফোর্ড হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয় কিন্তু তিনি সেখানে মৃত্যু বরন করেন।

শহীদ নজিরের স্মৃতি রক্ষায় সিদ্দিকবাজারে 'শহীদ নজির লাইব্রেরি' নামে একটি পাঠাগার স্থাপিত হয়েছিল। শহীদ নজিরের হত্যাকান্ডের পর ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে সাম্প্রদায়িত পরিস্থিতির বিশেষত হিন্দু ও মুসলমান ছাত্রসমাজের সম্পর্কের অবনতি ঘটে। [১]

সূত্রসম্পাদনা

  1. ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের আশি বছর - রফিকুল ইসলাম; পৃষ্ঠা: ১০৭