প্রধান মেনু খুলুন
পশ্চিম দিক থেকে তুয়াইক পর্বতের দৃশ্য, দিগন্তের ওপাশে সৌদি আরবের রাজধানী রিয়াদ অবস্থিত

নজদ (আরবী نجد ) হচ্ছে সৌদি আরবের মধ্যবর্তী অঞ্চল। ওয়াহাবী আন্দোলন এর জন্মস্থান হিসেবে নজদ এলাকা বিশেষ প্রসিদ্ধ।]].[১] সৌদি আরবের মোট জনসংখ্যার ২৮ শতাংশ নজদ অঞ্চলে বাস করে এবং এদের বেশিরভাগ ওহাবীপন্থী।.[২] রিয়াদ, আল কাশেম এবং হাইল এলাকা নিয়ে নজদ অঞ্চল গঠিত। নজদবাসীগণ সৌদি আরবে সংখ্যালঘু।.[৩][৪] কারণ নজদ প্রত্যন্ত এলাকায় অবস্থিত।

পরিচ্ছেদসমূহ

ভূগোলসম্পাদনা

সীমানাসম্পাদনা

 
Nejd superimposed over the modern political divisions of Saudi Arabia
 
Nejd was the next step after হেজাজ in the campaigns of the Nejd Expedition.

আরবী শব্দ নজদ অর্থ হচ্ছে উচ্চ ভূমি। একদা আরবের অঞ্চলের বিস্তীর্ণ উচু অঞ্চলকে বোঝাতে নজদ ব্যবহার করা হতো, কিন্তু মধ্যাঞ্চলের এই উচু ভূমি কালের পরিক্রমায় নজদ নামে পরিচিতি লাভ করে। নজদের পশিচমে হেজাজইয়েমেন, পূর্বে পূর্ব আরব এবং উত্তরে ইরাকসিরিয়া অবস্থিত।

প্রধান শহরসম্পাদনা

নজদের সব থেকে বড় শহর রিয়াদ যা সৌদি আরবেরও সব থেকে বড় শহর। ২০০৯ সালে সৌদি আরবের সব থেকে বড় শহরের লোকসংখ্যা ছিলো ৪৭ লক্ষ মাত্র। বুরাইদাহ, উনাইযাহ, আর রাস নজদ এলাকার অন্যতম শহর।)[৫] ক্ষুদ্র শহর ও গ্রামের মধ্যে আছে সুদাইর, আল খারজ, দাওয়াদমি, আফিফ, আল মাজমাআহ, শাকরা, থারমাডাআ, ধুরমা, আল গাওয়াইয়াহ, আল হারিক, হতাত বনি তামিম, লায়লা, আস সুলাইয়ি এবং ওয়াদি আদ দাওয়াসির।

ধর্মসম্পাদনা

ইসলামের বিশুদ্ধ চর্চা ও বর্ণনার জন্য নজদ অঞ্চল প্রসিদ্ধ। এই অঞ্চলে ওহাবী মতবাদ বা সালাফি মতবাদ জন্ম ও বিকাশ লাভ করে।

অর্থনীতিসম্পাদনা

বিশ শতকের প্রথম দিকে নজদ থেকে মোটা উলের পোশাক তৈরী শুরু হয়।[৬]

ভাষাসম্পাদনা

নজদের অধিবাসীগণ আরবীতে কথা বলে। তাদের আরবী ভাষা বেদুইনদের উপভাষা দ্বারা প্রভাবিত।

সাহিত্যে নজদসম্পাদনা

বাহিইয়াইহ নাখজাভানির প্রথম উপন্যাস 'দ্যা স্যাডলবাগ- এ ফ্যাবল ফর ডাউটারস এন্ড সিকারস' এ ১৮৪৪ থেকে ১৮৪৫ সালে মক্কামদীনার মাঝে নজদ বরাবর তীর্থযাত্রী পথের বর্ণনা করা হয়েছে।

আরো পড়ুনসম্পাদনা

তথ্য উৎসসম্পাদনা

  1. "Demography of Religion in the Gulf"Mehrdad Izady। ২০১৩। 
  2. "Saudi Arabia Population Statistics 2011 (Arabic)" (PDF)। পৃষ্ঠা 11। ১৫ নভেম্বর ২০১৩ তারিখে মূল (PDF) থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২৬ জুলাই ২০১৪ 
  3. "Saudi Society"। পৃষ্ঠা 258। [স্থায়ীভাবে অকার্যকর সংযোগ]
  4. "The Shiʻis of Saudi Arabia"। পৃষ্ঠা 56–57। 
  5. جريدة الرياض – عين على القصيم নজদ অঞ্চলের শহর
  6. Prothero, G. W. (১৯২০)। Arabia। London: H.M. Stationery Office। পৃষ্ঠা 99।