দ্য গুরু (২০০২-এর চলচ্চিত্র)

২০০২-এর মার্কিন-ব্রিটিশ-ফ্রেঞ্চ চলচ্চিত্র

দ্য গুরু ট্রাসি জ্যাকসন লিখিত এবং ডেজি ভন স্কেরলার মেয়ার পরিচালিত ২০০২ খ্রিষ্টাব্দের একটি ব্রিটিশ-ফ্রেঞ্চ-মার্কিন যৌন কৌতুকপ্রদ চলচ্চিত্র। চলচ্চিত্রটি একজন নৃত্য-শিক্ষক কেন্দ্রিক, যে ভারত থেকে আমেরিকায় আসেন একটি সাধারণ কর্মজীবনের সন্ধানে, কিন্তু ঘটনাক্রমে একজন যৌনশিল্পীর থেকে শেখা দর্শনের উপর ভিত্তি করে একজন যৌন গুরু হিসাবে একটি সংক্ষিপ্ত কিন্তু হাই-প্রোফাইল কর্মজীবনে পদার্পণ করেন।

দ্য গুরু
The Guru
দ্য গুরু চলচ্চিত্রের পোস্টার.jpeg
প্রেক্ষাগৃহে মুক্তির পোস্টার
পরিচালকডেইজি ভন স্কেরলার মেয়ার
প্রযোজকটিম বিভান
এরিক ফেলনার
মাইকেল লন্ডন
রচয়িতাট্রাসি জ্যকসন
শ্রেষ্ঠাংশেজিমি মিস্ত্রী
হেদার গ্রাহাম
মারিসা টোমে
মাইকেল ম্যাককীন
ক্রিস্টিন বারানস্কি
সুরকারডেভিড কারবোনারা
চিত্রগ্রাহকজন ডে বোর্মান
সম্পাদকCara Silverman
ব্রুস গ্রীন
প্রযোজনা
কোম্পানি
পরিবেশকইউনিভারসাল পিকচার্স
মুক্তি
  • ২৩ আগস্ট ২০০২ (2002-08-23)
দৈর্ঘ্য৯৪ মিনিট
দেশযুক্তরাজ্য
ফ্রান্স
মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র
ভাষাইংরেজি
নির্মাণব্যয়$১১ মিলিয়ন[১]
আয়$২৪,১২৮,৮৫২[২]

চলচ্চিত্রটিতে নৃত্য-শিক্ষকের চরিত্রে অভিনয় করেছেন জিমি মিস্ত্রী, হেদার গ্রাহাম একজন যৌনশিল্পীর চরিত্রে অভিনয় করেছেন যার থেকে যৌতার দর্শন শিখেছিল, এবং মারিসা টোমে যে নিউইয়র্কে তাকে গুরু পদে পৌঁছতে সাহায্য করেন।

সারাংশসম্পাদনা

রুমু গুপ্তা (জিমি মিস্ত্রী), একজন নৃত্য শিক্ষক, যার স্বপ্ন বিখ্যাত অভিনেতা হওয়ার; এবং সে দিল্লিতে বসবাস করে। সে তার চাচাতো ভাই বিজয়ের কথায় প্রলুব্ধ হয় এবং সেও ভাগ্যের সন্ধানে নিজ শহর ছেড়ে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে পাড়ি দেয়। বিজয়ের প্রলোভনীয় কথায় কাহিনী এগোতে থাকে।

রামু অভিনয়ের জন্য কাজ খুঁজতে থাকে, একসময় অজ্ঞতসারে সে একটি অশ্লীল চিত্র নির্মাণের স্টুডিওতে এসে পড়ে এবং কাজ পেয়ে যায়। একদিন সে তার সহ-আবাসীক ও বিজয়ের সাথে একটি জন্মদিনের অনুষ্ঠানে খাদ্যপরিবেশক হিসেবে কাজ করছিল। সেই অনুষ্ঠানে একজন ভারতীয় সাধুকে ডাকা হয়, ধর্ম ও আত্মা সম্পর্কে কিছু বলার জন্য; কিন্তু সেই সাধু মদ খেয়ে মাতাল ও বিস্মৃত অবস্থায় মেঝেয় পড়ে থাকে; বিজয় ও অন্যান্যদের কথায় রামু সেখানে সাধুর অভিনয় করার জন্য রাজি হয়। বাস্তব দর্শনজ্ঞানের অভাবে, রামু শ্যারোনা হেদার গ্রাহাম নামে একজন যৌনশিল্পীর দেওয়া পরামর্শগুলো পুনরাবৃত্তি করতে থাকে; যার সাথে সে আগে মিলেছিল। লেক্সী মারিসা টোমে, যার জন্মদিন, সে রামুর প্রবচনে দারুণভাবে মুগ্ধ হয়; এবং সে রামুকে নিউইয়র্কে তার বন্ধুবান্ধবদের মাঝে একজন নবযুগের যৌন-গুরু হিসেবে পরিচিত করে তুলে।

রামু যৌনতা বিষয়ে আরও পরামর্শ পেতে শ্যারোনাকে ভাড়া করে, এই বলে যে, কিভাবে প্রাপ্তবয়স্ক চলচ্চিত্রের অভিনেতা হওয়া যায়। কিন্তু আসলে সে তার নতুন ভূমিকা যৌন গুরু হিসেবে এগুলো ব্যবহার করতে চায়। রুমু ও শ্যারোনার মধ্যে একটি ব্যক্তিগত সম্পর্ক বিকশিত হতে থাকে; যদিও শ্যারোনা ইতিমধ্যে একজন দমকল কর্মীর বাগদত্তা যে মনে করে যে, শ্যারোনা একজন শিক্ষিকা। কাহিনীর জটিলতা এতটুকু; এবং এরই মধ্যে থেকে প্রতারণা ও ভণ্ডামিগুলো বেরোতে থাকে।

কুশীলবসম্পাদনা

তথ্যসূত্রসম্পাদনা

বহিঃসংযোগসম্পাদনা