দিলীপ বেঙ্গসরকার

ভারতীয় ক্রিকেটার

দিলীপ বলবন্ত বেঙ্গসরকার (বিকল্প প্রতিবর্ণীকরণ: দিলীপ ভেংসরকার; এই শব্দ সম্পর্কেpronunciation ; জন্ম: ৬ এপ্রিল, ১৯৫৬) মহারাষ্ট্রের রাজাপুরে জন্মগ্রহণকারী বিখ্যাত এবং সাবেক ভারতীয় ক্রিকেটার ও ক্রিকেট প্রশাসক। ১৯৭০ ও ১৯৮০-এর দশকে ভারত ক্রিকেট দলের ব্যাটিং চালিকাশক্তির অন্যতম সদস্য ছিলেন তিনি। ‘কর্নেল’ ডাকনামে পরিচিত দিলীপ বেঙ্গসরকার রঞ্জি ট্রফিতে বোম্বের প্রতিনিধিত্ব করেছেন।[১]

দিলীপ বেঙ্গসরকার
DilipVengsarkar.jpg
২০১১ সালের সংগৃহীত স্থিরচিত্রে দিলীপ বেঙ্গসরকার
ব্যক্তিগত তথ্য
পূর্ণ নামদিলীপ বলবন্ত বেঙ্গসরকার
জন্ম (1956-04-06) ৬ এপ্রিল ১৯৫৬ (বয়স ৬৪)
রাজাপুর, মহারাষ্ট্র, ভারত
ডাকনামকর্নেল
ব্যাটিংয়ের ধরনডানহাতি
বোলিংয়ের ধরনডানহাতি মিডিয়াম
ভূমিকাব্যাটসম্যান, অধিনায়ক, প্রশাসক
আন্তর্জাতিক তথ্য
জাতীয় পার্শ্ব
টেস্ট অভিষেক
(ক্যাপ ১৩৯)
২৪ জানুয়ারি ১৯৭৬ বনাম নিউজিল্যান্ড
শেষ টেস্ট৫ ফেব্রুয়ারি ১৯৯২ বনাম অস্ট্রেলিয়া
ওডিআই অভিষেক
(ক্যাপ ১৯)
২১ ফেব্রুয়ারি ১৯৭৬ বনাম নিউজিল্যান্ড
শেষ ওডিআই১৪ নভেম্বর ১৯৯১ বনাম দক্ষিণ আফ্রিকা
ঘরোয়া দলের তথ্য
বছরদল
১৯৭৫-১৯৯২বোম্বে
১৯৮৫স্টাফোর্ডশায়ার
খেলোয়াড়ী জীবনের পরিসংখ্যান
প্রতিযোগিতা টেস্ট ওডিআই এফসি এলএ
ম্যাচ সংখ্যা ১১৬ ১২৯ ২৬০ ১৭৪
রানের সংখ্যা ৬,৮৬৮ ৩,৫০৮ ১৭,৮৬৮ ৪,৮৩৫
ব্যাটিং গড় ৪২.১৩ ৩৪.৭৩ ৫২.৮৬ ৩৫.২৯
১০০/৫০ ১৭/৩৫ ১/২৩ ৫৫/৮৭ ১/৩৫
সর্বোচ্চ রান ১৬৬ ১০৫ ২৮৪ ১০৫
বল করেছে ৪৭ ১৯৯ ১২
উইকেট
বোলিং গড় ১২৬.০০
ইনিংসে ৫ উইকেট
ম্যাচে ১০ উইকেট - -
সেরা বোলিং ১/৩১
ক্যাচ/স্ট্যাম্পিং ৭৮/– ৩৭/– ১৭৯/– ৫১/–
উৎস: ইএসপিএনক্রিকইনফো.কম, ১২ ফেব্রুয়ারি ২০১৭

ঘরোয়া প্রথম-শ্রেণীর ভারতীয় ক্রিকেটে মুম্বই এবং ইংরেজ ক্রিকেটে স্টাফোর্ডশায়ারের পক্ষে খেলেছেন তিনি। দলে তিনি মূলতঃ ডানহাতে ব্যাটিংয়ে পারদর্শী ছিলেন। এছাড়াও, ডানহাতে মিডিয়াম বোলিং করতে পারতেন।

খেলোয়াড়ী জীবনসম্পাদনা

১৯৭৫-৭৬ মৌসুমে অকল্যান্ডে অনুষ্ঠিত টেস্টে স্বাগতিক নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে তার আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে অভিষেক ঘটে। ঐ টেস্টে উদ্বোধনী ব্যাটসম্যান হিসেবে মাঠে নামেন। খেলায় ভারত জয়লাভ করলেও তিনি তেমন সফলতা পাননি। ১৯৭৯ সালে সফরকারী পাকিস্তান দলের বিপক্ষে স্মরণীয় ইনিংস উপহার দেন তিনি। দিল্লির ফিরোজ শাহ কোটলায় অনুষ্ঠিত ২য় টেস্টের চূড়ান্ত দিনে জয়ের জন্য ৩৯০ রানের লক্ষ্যমাত্রায় তার অবদান ছিল অপরাজিত ১৪৬* রান। ঐ টেস্টটি নাটকীয়ভাবে ড্রয়ে পরিণত হয়।

১৯৮৬ সালে লর্ডসে সেঞ্চুরি করেন। এরফলে তিনি উপর্যুপরি তিন টেস্টে সেঞ্চুরির সন্ধান পান। ইংল্যান্ডের বিপক্ষে অনুষ্ঠিত ঐ সিরিজে ভারত দল জয় পায় ও তিনি ম্যান অব দ্য সিরিজের পুরস্কার পান।

ক্রিকেট বিশ্বকাপসম্পাদনা

১৯৮৩ সালের ক্রিকেট বিশ্বকাপে শিরোপা বিজয়ী ভারতীয় দলে ভূমিকা রাখেন। ১৯৮৫ থেকে ১৯৮৭ সালের মধ্যে রানের ফুলঝুড়ি প্রবাহিত হয় তার ব্যাটে। ঐ সময় কুপার্স ও লাইব্র্যান্ড রেটিংয়ে তিনি সেরা ব্যাটসম্যান ছিলেন।

১৯৮৭ সালের ক্রিকেট বিশ্বকাপের পর কপিল দেবের কাছ থেকে অধিনায়কত্ব লাভ করেন। অধিনায়ক হিসেবে দুটি সেঞ্চুরি করে যাত্রা শুরু করলেও তার সময়কালে দলের অবস্থান নড়বড়ে ছিল। ১৯৮৯-এর শুরুতে ওয়েস্ট ইন্ডিজ সফরে দলের মারাত্মক বিপর্যয় ঘটে। এরপর তাকে অধিনায়কত্ব থেকে পদত্যাগ করতে হয়।

সম্মাননাসম্পাদনা

১৯৮১ সালে মাঠে দূর্দান্ত ক্রীড়াশৈলী উপস্থাপনার জন্য অর্জুন পুরস্কার লাভ করেন। এরপর ১৯৮৭ সালে পদ্মশ্রী সম্মানে ভূষিত হন তিনি। একই সালে উইজডেন কর্তৃক বর্ষসেরা ক্রিকেটার মনোনীত হন।[২]

তথ্যসূত্রসম্পাদনা

  1. [১]
  2. "Dilip Vengasarkar"Wisden Almanack। সংগ্রহের তারিখ ২০০৭-০৪-০২ 

আরও দেখুনসম্পাদনা

বহিঃসংযোগসম্পাদনা

পূর্বসূরী
কপিল দেব
ভারতীয় টেস্ট ক্রিকেট অধিনায়ক
১৯৮৭/৮৮
উত্তরসূরী
রবি শাস্ত্রী
পূর্বসূরী
রবি শাস্ত্রী
ভারতীয় টেস্ট ক্রিকেট অধিনায়ক
১৯৮৭/৮৮-১৯৮৯/৯০
উত্তরসূরী
কৃষ্ণমাচারী শ্রীকান্ত
পূর্বসূরী
কিরণ মোরে
সভাপতি, নির্বাচক কমিটি
অক্টোবর, ২০০৬ - সেপ্টেম্বর, ২০০৮
উত্তরসূরী
কৃষ্ণমাচারী শ্রীকান্ত