দামুড়হুদা উপজেলা

চুয়াডাঙ্গা জেলার একটি উপজেলা

দামুড়হুদা উপজেলা বাংলাদেশের চুয়াডাঙ্গা জেলার একটি প্রশাসনিক এলাকা।

দামুড়হুদা
উপজেলা
মানচিত্রে দামুড়হুদা উপজেলা
মানচিত্রে দামুড়হুদা উপজেলা
স্থানাঙ্ক: ২৩°৩৭′৭″ উত্তর ৮৮°৪৭′১৬″ পূর্ব / ২৩.৬১৮৬১° উত্তর ৮৮.৭৮৭৭৮° পূর্ব / 23.61861; 88.78778 উইকিউপাত্তে এটি সম্পাদনা করুন
দেশবাংলাদেশ
বিভাগখুলনা বিভাগ
জেলাচুয়াডাঙ্গা জেলা
আয়তন
 • মোট৩০৮.১১ বর্গকিমি (১১৮.৯৬ বর্গমাইল)
জনসংখ্যা (২০০১)[১]
 • মোট২,৫৫,২৫৯
 • জনঘনত্ব৮৩০/বর্গকিমি (২,১০০/বর্গমাইল)
সময় অঞ্চলবিএসটি (ইউটিসি+৬)
প্রশাসনিক
বিভাগের কোড
৪০ ১৮ ৩১
ওয়েবসাইটদাপ্তরিক ওয়েবসাইট উইকিউপাত্তে এটি সম্পাদনা করুন

অবস্থান ও আয়তন

সম্পাদনা

৩০৮.১১ বর্গ কিলোমিটার আয়তনের দামুড়হুদা উপজেলাটি খুলনা বিভাগের চুয়াডাঙ্গা জেলার অন্তর্ভুক্ত। এই উপজেলার উত্তরে মেহেরপুর সদর উপজেলাআলমডাঙ্গা উপজেলা এবং দক্ষিণে ভারতের পশ্চিমবঙ্গ, পূর্বে চুয়াডাঙ্গা সদর উপজেলা, পশ্চিমে ভারতের পশ্চিমবঙ্গমেহেরপুর সদর উপজেলা

ভূতত্ত্ব

সম্পাদনা

চুয়াডাঙ্গা জেলার সবচেয়ে পুরাতন ও সমৃদ্ধ জনপদের নাম দামুড়হুদা । এখানেই প্রথমে মহকুমা সদর দপ্তর স্থাপিত হয়েছিল, যা পরে চুয়াডাঙ্গায় স্থানান্তরিত হয় । কিংবদন্তি আছে অতীতে এখানকার এক মন্দিরে পুরোহিত ছিলেন দামোদর । সবাই বলতো দামোদর ঠাকুরের মন্দির । আর ছিলো হুদা পীরের দরগা । এই দামোদর আর হুদা মিলে দামোদরহুদা>দামোদরহুদা>দামুড়হুদা নামের উদ্ভব। এখানে ১০,৫৫১.১৮ হেক্টর পতিত জমি ছাড়াও মোট আবাদি জমির পরিমাণ হচ্ছে ১৬,৭৪৫.৭১ হেক্টর। দামুড়হুদা উপজেলা হেডকোয়ার্টারটি চুয়াডাঙ্গা জেলা হেড কোয়ার্টার থেকে মাত্র ৯ কিঃ মিঃ দূরে অবস্থিত। দামুড়হুদা একটি সীমান্তবর্তী উপজেলা। দামুড়হুদা উপজেলা দক্ষিণ পশ্চিম এশিয়ার ২৩.৬১৬৭ ডিগ্রী উত্তর অক্ষাংশ এবং ৮৮.৭৮৩৩ ডিগ্রী পূর্ব দ্রাঘিমাংশ মধ্যে অবস্থিত।

প্রশাসনিক এলাকা

সম্পাদনা

দামুড়হুদা থানা ১৯১২ সালে প্রতিষ্ঠিত হয়। এটি ১৯৮৩ সালে একটি উপজেলায় পরিণত হয়। এখানে ১টি পৌরসভা ও ৮টি ইউনিয়ন রয়েছে।

স্বাস্থ্যকেন্দ্র

সম্পাদনা
স্বাস্থ্যকেন্দ্রের নাম সংখ্যা
উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স (Upazila Health Complex) ১ টি
পরিবার পরিকল্পনা কেন্দ্র (Family Planning Centre) ৭ টি
উপগ্রহ ক্লিনিক (Satellite Clinic) ২ টি
বেসরকারী ক্লিনিক (Private Clinic) ২১ টি

অর্থনীতি

সম্পাদনা

এখান থেকে কাঁঠাল, পেঁপে, ফুল, চারা, দুগ্ধজাত মাংস, রূপান্তরিত কাপড়, ছোপানো, ঔষধ, তৈরি পোশাক প্রস্তুত, ইলেকট্রনিক্স এবং বৈদ্যুতিক পণ্য, জুতা, ইট, সন্দেশ ইত্যাদি রপ্তানী করা হয়।মাল্টা চাষে বিরাট সাফল্য অর্জন সারা দেশে-বিদেশ রপ্তানি।

দামুড়হুদা উপজেলায় ৩টি নদী রয়েছে। নদীগুলো হচ্ছে ভৈরব নদ, মাথাভাঙ্গা নদীচিত্রা নদী[২][৩]


দর্শনীয় স্থান

সম্পাদনা
  • কেরু এন্ড কোং বাংলাদেশ(দর্শনা)
  • ডিস্টিলারী কারখানা(দর্শনা)
  • রেল বন্দর, দর্শনা
  • স্থল বন্দর, জয়নগর
  • আট কবর, নাটুদহ
  • হাজার দুয়ারী স্কুল, নাটুদহ
  • তালসারি ও ইকোপার্ক
  • পাঁচ কবর, হৈবৎপুর-মদনা
  • দর্শনা রেল স্টেশন
  • নজরুলের আটচালা ঘর, কার্পাসডাঙ্গা
  • মেমনগর বিপ্রদাস (বিডি) হাই স্কুল
  • চুয়াডাঙ্গা জেলা;
  • খুলনা বিভাগ;
  • বাংলাদেশের উপজেলাসমূহ

তথ্যসূত্র

সম্পাদনা
  1. বাংলাদেশ জাতীয় তথ্য বাতায়ন (জুন ২০১৪)। "এক নজরে দামুড়হুদা"। গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকার। সংগ্রহের তারিখ ২০ জানুয়ারী ২০১৫ [স্থায়ীভাবে অকার্যকর সংযোগ]
  2. ড. অশোক বিশ্বাস, বাংলাদেশের নদীকোষ, গতিধারা, ঢাকা, ফেব্রুয়ারি ২০১১, পৃষ্ঠা ৩৯০, আইএসবিএন ৯৭৮-৯৮৪-৮৯৪৫-১৭-৯
  3. মানিক মোহাম্মদ রাজ্জাক (ফেব্রুয়ারি ২০১৫)। বাংলাদেশের নদনদী: বর্তমান গতিপ্রকৃতি। ঢাকা: কথাপ্রকাশ। পৃষ্ঠা ৬১৩। আইএসবিএন 984-70120-0436-4 

বহিঃসংযোগ

সম্পাদনা