ডিসেপশন পয়েন্ট

ডিসেপশন পয়েন্ট হলো ২০০১ সালে প্রকাশিত আমেরিকান লেখক ড্যান ব্রাউন এর রহস্য থ্রিলার উপন্যাস।[১] এটি ব্রাউন এর তৃতীয় উপন্যাস এবং ২০২০ সাল পর্যন্ত রবার্ট ল্যাংডন সিরিজের বাইরে তার দ্বিতীয় এবং সর্বশেষ উপন্যাস । এটি সাইমন অ্যান্ড শুস্টার প্রকাশ করেছেন।[২]

ডিসেপশন পয়েন্ট
লেখকড্যান ব্রাউন
দেশযুক্তরাস্ট্র
ভাষাইংরেজি
ধরনথ্রিলার
প্রকাশকপকেট বুকস
আইএসবিএন০-৬৭১-০২৭৩৮-৭

উপন্যাসটি হোয়াইট হাউসের গোয়েন্দা বিশ্লেষক রাচেল সেক্সটনের নাসার একটি উল্কা আবিষ্কারের সংশ্লেষের সাথে জড়িত থাকার সাথে সম্পর্কযুক্ত, যে ঘটনা বহিরাগত জীবনের সম্ভাব্যতা প্রমাণ করে এবং যা ALH84001 মামলার অনুরূপ। আবিষ্কারটি মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের রাষ্ট্রপতি নির্বাচনের আগ মুহূর্তে প্রকাশ্যে এসেছিল, যেখানে তাঁর বাবা প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। আবিষ্কারটি তাঁর নিয়োগকর্তা, শায়িত্ব মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের রাষ্ট্রপতি, য্যাকারি হার্নি এর প্রচারণার সহায়ক কিন্তু তাঁর বাবা সিনেটর সেজউইক সেক্সটন, একজন সেনেটর যিনি নির্কেবাচনে এগিয়ে আছেন তাঁকে প্রতিকূল অবস্থাতে ফেলবে।যদিও তিনি ইতিমধ্যে পারিবারিকভাবে ন্ন্্ন্ন আলাদা।বিশেষজ্ঞদের একটি দল সহ সেক্সটনকে অবশ্যই উল্কাটির সত্যতা উন্মোচন করতে হবে যা প্রেসিডেন্ট হার্নির প্রচারকে এগিয়ে দিতে পারে অথবা ভেঙে দিতে পারে।

পটভূমিসম্পাদনা

যখন নাসার একটি স্যাটেলাইট আর্কটিক বরফের গভীরে নিমজ্জিত বিস্ময়কর এক বিরল বস্তু আবিষ্কার করে, তখন অভিযান চালানো মহাকাশ সংস্থাটি নাসার নীতি এবং আসন্ন রাষ্ট্রপতি নির্বাচনে বিজয় ঘোষণা করে। সন্ধানের সত্যতা যাচাই করতে হোয়াইট হাউস গোয়েন্দা বিশ্লেষক রেচেল সেক্সটনের দক্ষতার প্রতি আহ্বান জানায়। অনন্যপন্ডিত মাইকেল টোল্যান্ড সহ বিশেষজ্ঞদের একটি দল ও র‌্যাচেল আর্কটিক ভ্রমণ করেন এবং হঠাতই কল্পনাতীত বিস্ময় উদ্ভাবন করেন: বৈজ্ঞানিক কৌতুকের প্রমাণ, একটি সাহসী পদক্ষেপ যা বিশ্বকে বিতর্কে ডুবে যাওয়ার হুমকি দেয়। তবে রাষ্ট্রপতিকে সতর্ক করার আগেই, র‍্যাচেল এবং মাইকেল ঘাতকদের একটি মারাত্মক দল দ্বারা আক্রান্ত হন। জনশূন্য ও প্রাণঘাতী প্রান্তর জুড়ে পালিয়ে থেকে তাদের জীবন বাঁচানোর একমাত্র ভরসা হ'ল এই মারাত্মক চক্রান্তের পিছনে কে আছে তা আবিষ্কার করা। শেষ পর্যন্ত তাঁরা যে সত্য জানতে পারবে তা হলো সবচেয়ে বড় প্রতারণা।

তথ্যসূত্রসম্পাদনা

  1. "Deception Point | Dan Brown"danbrown.com। সংগ্রহের তারিখ ২০২০-১২-১৫ 
  2. Deception Point (ইংরেজি ভাষায়)। ২০০৬-০৫-২৩। আইএসবিএন 978-0-7434-9746-6