ডায়াপসিড (উচ্চারণː ডা-য়াপ্-সিড্) (দ্বৈত খিলান)-রা হল চতুষ্পদ প্রাণীদের একটা দল যারা আজ থেকে প্রায় ৩০ কোটি বছর আগে কার্বনিফেরাস যুগের অন্তিম লগ্নে পেন্সিলভ্যানিয়ান উপযুগে বিবর্তিত হয়েছিল। এদের বৈশিষ্ট্য ছিল মাথার খুলির উপরে দু'দিকে দুটো করে মোট চারটে গহ্বর বা 'টেম্পোরাল ফেনেস্ত্রা'।[১] বর্তমানে জীবিত ডায়াপসিডেরা অত্যন্ত বিচিত্র, এবং এদের অন্তর্গত হল কুমির, টিকটিকি, সাপ, তুয়াতারা ও পাখিরা। যদিও কোনো কোনো ডায়াপসিডের খুলির একজোড়া গহ্বর বিলুপ্ত হয়ে গেছে (টিকটিকি), কারো কারো চারটে গহ্বরই বিলুপ্ত হয়ে গেছে (সাপ), কারো আবার পুরো মাথার খুলিটাই অনেক জটিল বিবর্তনের মধ্যে দিয়ে গিয়ে একদম অন্যরকম হয়ে গেছে (পাখি), কিন্তু তবুও এদের সবাইকেই এদের সাধারণ পূর্বপুরুষের উপর ভিত্তি করে ডায়াপসিড হিসেবে শনাক্ত করা হয়। বর্তমান পৃথিবী অন্তত ৭,৯২৫ টা জীবিত ডায়াপসিড সরীসৃপের প্রজাতির বাসস্থান (পাখিদের ধরলে প্রায় ১৮, ০০০ টা)।

ডায়াপসিড সরীসৃপ
সময়গত পরিসীমা: পেন্সিলভ্যানিয়ান - বর্তমান
Omeisaurus tianfuensis2.jpg
ওমেইসরাস টাইটানফুয়েনসিস
বৈজ্ঞানিক শ্রেণীবিন্যাস
জগৎ: প্রাণী জগৎ
পর্ব: কর্ডাটা
উপপর্ব: ভার্টিব্রাটা
শ্রেণী: সরীসৃপ
উপশ্রেণী: ডায়াপসিডা
অসবর্ন, ১৯০৩
উপবিভাগসমূহ

অ্যারিওস্কেলিডিয়া
নিওডায়াপসিডা

বৈশিষ্ট্যসম্পাদনা

 
ডায়াপসিড করোটির সরলীকৃত রেখাচিত্র

ডায়াপসিডা নামটার মানে হল "দ্বৈত খিলান", আর ডায়াপসিডেরা প্রথাগতভাবে তাদের মাথার খুলির পিছন দিকে চক্ষুকোটরের উপরে ও নিচে অবস্থিত দু'জোড়া গহ্বরের (টেম্পোরাল ফেনেস্ত্রা) উপস্থিতির ভিত্তিতে শনাক্ত হয়ে আসছে। এই বিশেষ রকম খুলি অনেক বেশি পরিমাণ পেশিতন্তুকে চোয়ালের সাথে সংযুক্ত রাখতে সাহায্য করে, ফলে এই প্রাণীরা চোয়ালের দুই হাড় পুরোপুরি আলাদা করে বিরাট হাঁ করতে পারে। এদের আরও একটা অপেক্ষাকৃত কম গুরুত্বপূর্ণ বৈশিষ্ট্য হল অগ্রপদের উপরের হাড়ের (প্রগণ্ডাস্থি) থেকে বেশি লম্বা নীচের (রেডিয়াস) হাড়।

শ্রেণীবিন্যাসকরণসম্পাদনা

ডায়াপসিডদের প্রাথমিকভাবে সরীসৃপ বা রেপটিলিয়া শ্রেণীর একটি উপশ্রেণী হিসেবে চিহ্নিত করা হয়েছিল। এই শ্রেণীর অন্তর্গত সমস্ত উপশ্রেণীকেই তখন তাদের মাথার খুলিতে অবস্থিত গহ্বরের অবস্থান ও সংখ্যা অনুযায়ী বিভক্ত করা হত। ডায়াপসিড ব্যতীত অন্য উপশ্রেণীগুলো ছিল সাইন্যাপসিডা (খুলির নীচের দিকে একজোড়া গহ্বর; এরা "স্তন্যপায়ীদের অনুরূপ সরীসৃপ"), অ্যানাপসিডা (এদের খুলিতে কোনো গহ্বর নেই; কচ্ছপ ও তাদের জ্ঞাতিসমূহ) এবং ইউর‍্যাপসিডা (খুলির উপর দিক করে একজোড়া গহ্বর; যেমন, বিভিন্ন অবলুপ্ত সামুদ্রিক সরীসৃপ)। জাতিজনি নামকরণের প্রচলনের সাথে সাথে এই বিভাগগুলোর পুনরালোচনা করা হয়। ইদানীং সাইন্যাপসিডদের প্রায়ই প্রকৃত সরীসৃপ বলে মনে করা হয় না, আর বোঝা গেছে যে "ইউর‍্যাপসিডা" বলে যাদেরকে এক গোত্রে ফেলা হয়েছিল তারা আসলে বিভিন্ন বর্গের প্রাণী; কেবলমাত্র মাথার খুলির একজোড়া গহ্বরের অনুপস্থিতি ছাড়া যাদের আর কোনও নিকট সাদৃশ্য নেই। কোনও কোনও সমীক্ষা থেকে আন্দাজ করা হয় যে কচ্ছপদের শ্রেণীবিন্যাসের ক্ষেত্রেও এই একই ভুল হয়েছে, এবং তারাও আসলে অত্যধিক বিবর্তিত এক রকম ডায়াপসিড। এই ধারণাগুলো সত্যি হলে অ্যানাপসিডা বর্গের মধ্যে পড়ে থাকবে কেবল কিছু বিলুপ্ত প্রজাতি। জাতিজনি নির্ভর ব্যবস্থাগুলোর মধ্যে পাখিদেরকেও (যারা ডায়াপসিড ডাইনোসর-দের উত্তরসূরী) ডায়াপসিডদের শাখা বলে মনে করা হয়।

অন্যান্য জানাশোনা ডায়াপসিড গোষ্ঠীর মধ্যে উল্লেখযোগ্য হল টেরোসর, প্লিসিওসর এবং মোসাসর; প্রাগৈতিহাসিক যুগসমূহে আরও অনেক অজ্ঞাত শাখার অস্তিত্ব ছিল বলে অনুমান করা হয়। এদের অধিকাংশ আদিম প্রজাতির শ্রেণীবিন্যাস এখনও সুনির্দিষ্ট হয়নি।

প্রথাগত শ্রেণীবিন্যাসসম্পাদনা

অনির্ণীত অবস্থানের ডায়াপসিড

জাতিজনিসম্পাদনা

নীচের রেখাচিত্রটি হল বিভিন্ন প্রকার ডায়াপসিডের আন্তঃসম্পর্ক নির্দেশকারী একটি ক্ল্যাডোগ্রাম

ক্ল্যাডোগ্রামটি ২০০৯ খ্রিঃ বিকেলমান প্রমুখ[২] এবং ২০১১ খ্রিঃ রিস্ প্রমুখের[৩] গবেষণার ফলাফলের ভিত্তিতে নির্মিত।

ডায়াপসিডা

অ্যারিওস্কেলিডিয়া


নিওডায়াপসিডা

অরোভেনাটর




ল্যান্থানোল্যানিয়া




ট্যাঙ্গাসরিডি




ইয়ংগিনিডি




ক্লদিওসরাস





প্যালিয়াগামা



সরোস্টার্নন





সিলুরোসরাভুস





থ্যালাটোসরিয়া




হুপেসুকিয়া



ইকথিঅপ্টেরিজিয়া





সরিয়া












আরও দেখুনসম্পাদনা

তথ্যসূত্রসম্পাদনা

  1. "Those diverse diapsids"। ১০ নভেম্বর ২০১৩ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১০ আগস্ট ২০১৪ 
  2. Constanze Bickelmann, Johannes Müller and Robert R. Reisz (২০০৯)। "The enigmatic diapsid Acerosodontosaurus piveteaui (Reptilia: Neodiapsida) from the Upper Permian of Madagascar and the paraphyly of younginiform reptiles"। Canadian Journal of Earth Sciences49 (9): 651–661। doi:10.1139/E09-038 
  3. Robert R. Reisz, Sean P. Modesto and Diane M. Scott (২০১১)। "A new Early Permian reptile and its significance in early diapsid evolution"Proceedings of the Royal Society B278 (1725): 3731–7। doi:10.1098/rspb.2011.0439PMID 21525061পিএমসি 3203498  

বহিঃসংযোগসম্পাদনা