জেসন বোর্ন (চলচ্চিত্র)

জেসন বোর্ন হ'ল একটি ২০১৬ সালের মার্কিন অ্যাকশন-থ্রিলার চলচ্চিত্র, যা পল গ্রিনগ্রাস দ্বারা পরিচালিত এবং গ্রিনগ্রাস এবং ক্রিস্টোফার রাউস প্রযোজিত। এটি বোর্ন চলচ্চিত্র সিরিজের পঞ্চম কিস্তি এবং দ্য বোর্ন আলটিমেটাম (২০০৭) এর সরাসরি সিক্যুয়েল। ম্যাট ড্যামন চলচ্চিত্রটিতে মূল চরিত্রে অভিনয় করেছেন, সিআইএর প্রাক্তন ঘাতক জেসন বোর্ন হিসাবে। এছাড়াও, চলচ্চিত্রটিতে অভিনয় করেছেন টমি লি জোনস , অ্যালিসিয়া ভিকান্দার, জুলিয়া স্টিলস, ভিনসেন্ট ক্যাসেল, রিজ আহমেদ, আতো এসান্দোএবং স্কট শেপহার্ড।

জেসন বোর্ন
জেসন বোর্ন চলচ্চিত্রের পোস্টার.jpg
থিয়েটারে মুক্তি পাওয়া পোস্টার
পরিচালকপল গ্রিনগ্রাস
প্রযোজক
  • পল গ্রিনগ্রাস
  • ম্যাট ডেমন
  • ফ্র্যাঙ্ক মার্শাল
  • জেফ্রি এম ওয়েইনার
  • বেন স্মিথ
  • গ্রেগরি গুডম্যান
রচয়িতা
  • পল গ্রিনগ্রাস
  • ক্রিস্টোফার রাউস
শ্রেষ্ঠাংশে
  • ম্যাট ডেমন
  • টমি লি জোন্স
  • অ্যালিসিয়া ভিকান্দার
  • ভিনসেন্ট ক্যাসেল
  • জুলিয়া স্টিলস
  • রিজ আহমেদ
সুরকার
  • জন পাওয়েল
  • ডেভিড বাকলি
চিত্রগ্রাহকব্যারি অ্যাক্রয়েড
সম্পাদকক্রিস্টোফার রাউস
পরিবেশকইউনিভার্সাল পিকচার্স
মুক্তি
  • ১১ জুলাই ২০১৬ (2016-07-11) (লন্ডন)
  • ২৯ জুলাই ২০১৬ (2016-07-29) (মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র)
দৈর্ঘ্য১২৩ মিনিট[১]
দেশমার্কিন যুক্তরাষ্ট্র
ভাষাইংরেজি
নির্মাণব্যয়$১২০ মিলিয়ন [২]
আয়$৪১৫.৫ মিলিয়ন[৩]

জেসন বোর্ন ১১ জুলাই, ২০১৬ লন্ডনে প্রিমিয়ার হয়েছিল এবং ২৯ জুলাই, ২০১৬ তে ইউনিভার্সাল পিকচার্সের মাধ্যমে যুক্তরাষ্ট্রজুড়ে থিয়েটারে মুক্তি পেয়েছিল। একই দিনে চীন, ভারত, ফিলিপাইন এবং ভিয়েতনামেও একটি থ্রিডি সংস্করণও প্রকাশিত হয়েছিল।[৪] চলচ্চিত্রটি মিশ্র প্রতিক্রিয়া পেয়েছে এবং বিশ্বব্যাপী আয় করেছে $৪১৫ মিলিয়ন।

সারসংক্ষেপসম্পাদনা

অপারেশন ব্ল্যাকবায়ার উন্মোচিত করার এবং নিখোঁজ হওয়ার দ্বাদশ বছর পরে জেসন বোর্ন অবশেষে তাঁর রোগ থেকে থেকে সেরে উঠেন। এইসময় তিনি নিজেকে বিশ্ব থেকে বিচ্ছিন্ন করে রেখেছিলেন এবং গ্রিসের অনুর্বর ভূমিতে খালি হাতে লড়াইয়ে অংশ নিয়ে জীবিকা নির্বাহ করেছিলেন। ইন রেইকিয়াভিক, নিকি পারসন্স যাকে সহযোগিতা করেছিলেন গ্রুপ খ্রিস্টান নেতৃত্বে মধ্যে হ্যাক সিআইএ'র মেইনফ্রেম কম্পিউটার সার্ভারে থাকা তার কালো প্রোগ্রামের নথিগুলো প্রকাশিত করতে। এটি এজেন্সির সাইবারসিকিউরিটি অপারেশন বিভাগের প্রধান হিদার লি এবং সিআইএর পরিচালক রবার্ট দেউইকে সতর্ক করে। পার্সনস ট্র্যাডস্টোন-তে বোর্নের নিয়োগ এবং প্রোগ্রামে তাঁর বাবার ভূমিকা সম্পর্কিত ডকুমেন্টেশন সন্ধান করেছেন পরবর্তীতে তিনি এথেন্সে ভ্রমণ তাকে খুঁজে বের করতে এবং জানাতে।

গ্রিসে, পারসনস এবং বোর্ন সিন্ট্যাগমা স্কোয়ারে সরকারবিরোধী একটি সহিংস প্রতিবাদের সময় মিলিত হয়েছিল। তারা তাদের উদ্দেশ্য প্রেরিত সিআইএ দলগুলি এড়াতে পেরেছিল, কিন্তু পার্সসনকে ব্ল্যাকব্রায়ার প্রকল্পে বোর্নের প্রকাশের অনিচ্ছাকৃত পরিণতি হিসাবে সিআইএ গ্রেপ্তার করে অত্যাচার করে। এইসময় একজন প্রাক্তন ব্ল্যাকব্রিয়ার ঘাতক অ্যাসেট তাকে গুলি করে হত্যা করে। সে মারা যাওয়ার আগে পার্সনস বোর্নকে একটি লকারের চাবিটি দিয়েছিলেন যার মধ্যে সিআইএর ফাইলগুলো ছিল।

নিজের অতীত ও পরিবার সম্পর্কে জানতে, বোর্ন বার্লিনে ডাসাল্টকে সন্ধান করে। পার্সনের ফাইলগুলি ডিক্রিপ্ট করে বোর্ন আবিষ্কার করেন যে তার বাবা রিচার্ড ওয়েব ট্রেডস্টোন প্রোগ্রাম তৈরির সাথে জড়িত সিআইএ বিশ্লেষক ছিলেন। এইসময় ফাইলগুলিতে ইমপ্লান্ট করা একটি ম্যালওয়্যার প্রোগ্রাম সিআইএকে বোর্নের অবস্থান জানিয়ে দেয় এবং ডিউই তাকে ধরার জন্য একটি দল পাঠায়। তবে দলটি ব্যর্থ হয়।

শেষ দৃশ্যে দেখা যায় গোয়েন্দা পরিচালক লি তার গাড়িতে ফিরে এসে বোর্নের তৈরি একটি রেকর্ডিং খুঁজে পান যেখানে রাসেলের সাথে তার কথোপকথনের কথা ছিল যেখানে বোর্নকে হত্যার বিষয়ে তার সত্যিকারের উদ্দেশ্য প্রকাশ করেছিল।

অভিনয়েসম্পাদনা

  • প্রাক্তন সিআইএর ঘাতক জেসন বোর্ন হিসাবে ম্যাট ড্যামন।
  • টমি লি জোন্স হলেন রবার্ট দেউই, সিআইএর বর্তমান পরিচালক।
  • সিআইএ সাইবার অপ্স বিভাগের প্রধান হিদার লি হিসাবে অ্যালিসিয়া ভিকান্দার।
  • আয়না হ্যান্ড প্রোগ্রামের জন্য কাজ করা ব্ল্যাকব্রিয়ার ঘাতক হিসাবে ভিনসেন্ট ক্যাসেল।
  • নিকি পার্সনস হিসাবে জুলিয়া স্টিলস।
  • ক্রেগ জেফারস সিআইএ এজেন্ট এবং ডিউয়ের ডান হাত হিসাবে আতো এসান্দোদহ।
  • ডিপ ড্রিমের সিইও হিসেবে অ্যারন কাল্লুরের ভূমিকায় রিজ আহমেদ।
  • এ্যাডউইন রাসেল, জাতীয় গোয়েন্দা পরিচালক হিসাবে স্কট শেফার্ড।
  • মেলকম স্মিথ হিসাবে বিল ক্যাম্প, প্রাক্তন সিআইএ বিশ্লেষক।
  • ক্রিশ্চিয়ান ড্যাসল্ট হিসাবে ভিন্জেঞ্জ কিফার; একজন হ্যাকার।
  • গ্রেট হেনরি রিচার্ড ওয়েব চরিত্রে; জেসন বোর্নের পিতা এবং মূল ট্রেডস্টোন প্রোগ্রামের স্রষ্টা।

মুক্তিসম্পাদনা

চলচ্চিত্রটি ১১ জুলাই ২০১৬ সালে লন্ডনে প্রিমিয়ার হয় এবং ২৯ জুলাই ২০১৬ তে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র জুড়ে মুক্তি পায়।[৫][৬][৭][৮]

গানসম্পাদনা

জেসন বোর্ন:
মূল মোশন পিকচার্স সাউন্ডট্র্যাক
জন পাওয়েল এবং ডেভিড বাকলি কর্তৃক সাউন্ডট্র্যাক
মুক্তির তারিখজুলাই ২৯, ২০১৬
শব্দধারণের সময়২০১৬
ঘরানাসাউন্ডট্র্যাক
দৈর্ঘ্য৬১.১৬
সঙ্গীত প্রকাশনীব্ল্যাক লট মিউজিক
জেসন বোর্ন:
মূল মোশন পিকচার্স সাউন্ডট্র্যাক
থেকে একক গান
  1. "এক্সট্রিম ওয়েস (জেসন বোর্ন)"
    মুক্তির তারিখ: জুলাই ১৬, ২০১৬

প্রতিক্রিয়াসম্পাদনা

বক্স অফিসসম্পাদনা

জেসন বোর্ন বাণিজ্যিকভাবে সফল একটি চলচ্চিত্র। মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র ও কানাডায় এই চলচ্চিত্রটি $১৬২.৪ মিলিয়ন ডলার এবং অন্যান্য দেশগুলো সহ বিশ্বব্যাপী মোট $৪১৫.৫ মিলিয়ন ডলার আয় করেছে। এর মধ্যে চলচ্চিত্রটির মোট ব্যয় ছিল ১২০ মিলিয়ন ডলার।[৩]

তথ্যসূত্রসম্পাদনা

  1. "Jason Bourne (12A)"British Board of Film Classification। জুলাই ১৫, ২০১৬। জুলাই ১৬, ২০১৯ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ জুলাই ১৫, ২০১৬ 
  2. Busch, Anita (আগস্ট ১, ২০১৬)। "'Bourne' At $59.2M; 'Moms' Purses $23.8M; 'Nerve' Steady – Box Office Final"Deadline Hollywood। ডিসেম্বর ১৭, ২০২০ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ আগস্ট ২, ২০১৬ 
  3. "Jason Bourne (2016)"Box Office Mojo। অক্টোবর ১৭, ২০১৯ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ জানুয়ারি ৫, ২০১৭ 
  4. "3D 'Jason Bourne' Causes Nausea, Protest in China"The Hollywood Reporter। আগস্ট ২৬, ২০১৬ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২৬ আগস্ট ২০১৬ 
  5. Yamato, Jen (জানুয়ারি ৬, ২০১৫)। "Universal Moves Damon-Greengrass 'Bourne' Sequel Into 'Apes' Slot"Deadline Hollywood। আগস্ট ২৬, ২০১৮ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ মে ২৪, ২০১৫ 
  6. McMillan, Graeme (ফেব্রুয়ারি ৮, ২০১৬)। "'Jason Bourne' Super Bowl 50 Trailer Brings Matt Damon's Super Spy Out of Retirement"The Hollywood Reporter। জুন ২০, ২০১৮ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ফেব্রুয়ারি ৮, ২০১৬ 
  7. "Jason Bourne UK Release Date"। জুলাই ১৮, ২০১৯ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ এপ্রিল ৪, ২০১৮ 
  8. "Jason Bourne"IMAX (ইংরেজি ভাষায়)। মার্চ ৩, ২০১৮ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ জুলাই ৬, ২০১৬ 

বহিঃসংযোগসম্পাদনা