জিরাট ভারতীয় রাজ্য পশ্চিমবঙ্গের হুগলি জেলার একটি শহর। এটি হুগলি নদীর পশ্চিমে অবস্থিত। জিরাট থেকে কলকাতার দূরত্ব ৭১ কিলোমিটার (৪৪.১ মাইল)। এখান থেকে কলকাতায় যাওয়ার জন্য ১ ঘণ্টা, ২৫ মিনিট সময় লাগে। জিরাট বলাগড় ব্লকের সদর দপ্তর, বলাগড়ে বিজয়কৃষ্ণ মহাবিদ্যালয়, বলাগড় বিডিও অফিস,বলাগড় লায়ন্স ক্লাব এবং জিরাট হাসপাতাল অবস্থিত।

জিরাট
Jirat
শহর
Jirat Railway Station
জিরাট রেলস্টেশন
জিরাট পশ্চিমবঙ্গ-এ অবস্থিত
জিরাট
জিরাট
জিরাট ভারত-এ অবস্থিত
জিরাট
জিরাট
Location in West Bengal, India
স্থানাঙ্ক: ২৩°৫′৫৪″ উত্তর ৮৮°২৭′৪২″ পূর্ব / ২৩.০৯৮৩৩° উত্তর ৮৮.৪৬১৬৭° পূর্ব / 23.09833; 88.46167স্থানাঙ্ক: ২৩°৫′৫৪″ উত্তর ৮৮°২৭′৪২″ পূর্ব / ২৩.০৯৮৩৩° উত্তর ৮৮.৪৬১৬৭° পূর্ব / 23.09833; 88.46167
Country India
StateWest Bengal
DistrictHooghly
জনসংখ্যা (২০১১)
 • মোট৭,৪৩০
ভাষা
 • সরকারিবাংলা, English
সময় অঞ্চলIST (ইউটিসি+5:30)
PIN৭১২ ৫০১
Telephone code+ ৯১ ৩২১৩
যানবাহন নিবন্ধন• WB 16, WB 18 and WB 15 (only for commercial use)
Sex ratio৩,৬০৬ (৪৯%) /৩,৮২৪ (৫১%)
Literacy৭৯.০১%
Lok Sabha Constituencyহুগলি
Vidhan Sabha Constituencyবলাগড়

স্যার আশুতোষ মুখার্জীর পৈতৃক বাড়ি জিরাটে। পঞ্চানন কর্মকার (মারা যান ১৮০৪ খ্রিষ্টাব্দ) একজন ভারতীয় বাঙালি শিল্পী। তিনি বাংলা অক্ষরের টাইপফেস আবিস্কার করেন। ১৭৮০ সালে ঈশ্বরচন্দ্র বিদ্যাসাগরের একটি সরলীকৃত সংস্করণ চালু করার সময় তার কাঠের বাংলা বর্ণমালা ও টাইপফেস ব্যবহার করা হতো। বাংলা ছাড়াও কর্মকার আরবি, ফার্সি, মারাঠি, তেলেগু, বার্মিজ এবং চীনা সহ ১৪টি ভাষার প্রকারের টাইপ করেছে। তাঁর পূর্বসূরিরা প্রথমে জিরাটে বসবাস করতেন, তারপর ১৭৭৮ সালে তারা ত্রিবেণীতে গিয়ে বসবাস শুরু করেন। এছাড়া সনেট লেখক দেবেন্দ্রনাথ সেন, কবি ও সাহিত্যিক চারুচন্দ্র বন্দ্যোপাধ্যায়, অভিনেতা অনিল চট্টোপাধ্যায় জিরাটে জন্মগ্রহণ করেন৷ গত কয়েক বছরে জিরাট দুর্গা পূজার জন্য বিখ্যাত হয়েছে। এখানে দুর্গাপূজা ছাড়াও,কালী পূজা,জগদ্ধাত্রী পূজা,সরস্বতী পূজা, পঞ্চমদোল, রথযাত্রা অনুষ্ঠিত হয়।

ভৌগোলিক দিকসম্পাদনা

জিরাট বলাগড় ব্লকের প্রধান প্রসাশনিক কেন্দ্র।পূর্ব রেলের হাওড়া ডিভিশনে হাওড়া-কাটোয়া মেন লাইনে জিরাট স্টেশন অবস্থিত। জিরাটের পূর্বে রয়েছে হুগলী নদী। উত্তরে বলাগড়-শ্রীপুর গ্রাম। দক্ষিণে রুকেশপুর,বানেশ্বরপুর, সিজা,কামালপুর গ্রাম। পশ্চিমে একতারপুর গ্রাম পঞ্চায়েত।

জনসংখ্যাসম্পাদনা

ভারতের ২০১১ সালের আদমশুমারি অনুুযায়ী জিরাটের মোট জনসংখ্যার ছিল ৭,৪৩০। এরমধ্যে ৩,৮২৪ (৫১%) ছিল পুরুষ এবং ৩,৬০৬ (৪৯%) ছিল নারী। [১]

পরিবহনসম্পাদনা

জিরাট রেলওয়ে স্টেশন ব্যান্ডেল-কাটোয়া শাখার একটি গুরুত্বপূর্ণ রেল স্টেশন। হাইওয়ে ৬ (পশ্চিমবঙ্গ) জিরটের সাথে সংযুক্ত। জিরাটে কোনো বিমানবন্দর নেই, নিকটস্থ বিমানবন্দর হল নেতাজি সুভাষ চন্দ্র বোস আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর যা ৫৮ কিলোমিটার দূরে জিরট থেকে। কলকাতা থেকে জিরটে আসতে সড়কপথে ১ ঘণ্টা, ২৫ মিনিট সময় লাগে। কলকাতা এবং জিরটের মধ্যে আনুমানিক ড্রাইভিং দূরত্ব হল ৭১ কিমি বা ৪৪.১ মাইল অথবা ৩৮.৩ নটিক্যাল মাইল।  জিরাট চুচুড়া থেকে বাস-এ (বাস রুট ৮) এর মাধ্যমেও সংযুক্ত।

উল্লেখযোগ্য ব্যক্তিসম্পাদনা

  • চারুচন্দ্র ব্যানার্জি (কবি ও সাহিত্যিক)

মন্দিরসম্পাদনা

  • শ্রীশ্রী রাধাগোপীনাথ জিউ (স্মৃতিমন্দির)
  • শ্রীশ্রী মৃন্ময়ী কালীমাতা (স্মৃতিমন্দির)
  • শ্রীশ্রী পাষানময়ী কালীমাতা (স্মৃতিমন্দির)
  • জোড়াশিব মন্দির (তেঁতুলতলা)
  • বলয়োপ পীঠ,সিদ্ধেসরী কালীমাতা
  • বলয়োপ পীঠ, মহাকাল ভৈরব (কালিয়াগড়)
  • শ্রীশ্রী সর্বমঙ্গল্লা কালীমাতা মন্দির (আসানপুর)
  • ধর্মরাজ মন্দির (মুন্ডুখোলা)
  • পাটুলি মঠ বাড়ি, মঠের মা (পাটুলি)
  • বুড়ো শিবমন্দির (পাঁচপাড়া)

হল এখানকার প্রাচীনতম মন্দির।

স্বাস্থ্যসম্পাদনা

জিরাট গ্রামীন হাসপাতাল, আহম্মদপুর/জিরাট সাব-হেল্থ কেয়ার সেন্টার জিরাটে অবস্থিত রয়েছে। এছাড়া লায়ন্স ক্লাব চক্ষু হাসপাতাল, আস্থা নার্সিং হোম,পাঁচপাড়া সাব-হেল্থ সেন্টার, এনভিশন আই ফাউন্ডেশন নামে একটি বেসরকারী চক্ষু হাসপাতাল জিরাটে অবস্থিত।

শিক্ষাসম্পাদনা

• বলাগড় বিজয়কৃষ্ণ মহাবিদ্যালয় (কলেজ)

• জিরাট কলোনী উচ্চ বিদ্যালয় (সরকারি উচ্চ মাধ্যমিক স্কুল)

• হলি চাইল্ড একাডেমি(বেসরকারী ইংলিশ মিডিয়াম স্কুল)

• শিশুশিক্ষা নিকেতন (প্রাইভেট স্কুল)

পাটুলি অবৈতনিক প্রাথমিক বিদ্যালয় (সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়)

• কবুড়া পাঁচপাড়া উচ্চ বিদ্যালয় (সরকারি উচ্চ মাধ্যমিক বিদ্যালয়)

• লিটল্ এঞ্জেলেস্ একাডেমী (বেসরকারী ইংরেজি মাধ্যম নার্সারি স্কুল)

• আশুতোষ স্মৃতিমন্দির বালিকা উচ্চ বিদ্যালয় (সরকারি উচ্চ মাধ্যমিক বিদ্যালয়)

সংগঠনসম্পাদনা

লায়ন্স ক্লাব অব বলাগড়, জিরাট বাস স্ট্যান্ড এলাকায় অবস্থথিত

তথ্যসূত্রসম্পাদনা

  1. "C.D. Block Wise Primary Census Abstract Data(PCA)"2011 census: West Bengal – District-wise CD Blocks। Registrar General and Census Commissioner, India। সংগ্রহের তারিখ ১০ জুন ২০১৬