জলপাইগুড়ি

পশ্চিমবঙ্গের শহর

জলপাইগুড়ি ভারতের পশ্চিমবঙ্গ রাজ্যের জলপাইগুড়ি জেলার একটি শহর ও পৌরসভা এলাকা। এটি জলপাইগুড়ি জেলার সদর শহর। শহরটি তিস্তাকরলা নদীর তীরে অবস্থিত৷

জলপাইগুড়ি
শহর
জলপাইগুড়ি পশ্চিমবঙ্গ-এ অবস্থিত
জলপাইগুড়ি
জলপাইগুড়ি
পশ্চিমবঙ্গ, ভারতে অবস্থান
স্থানাঙ্ক: ২৬°৩১′ উত্তর ৮৮°৪৪′ পূর্ব / ২৬.৫২° উত্তর ৮৮.৭৩° পূর্ব / 26.52; 88.73স্থানাঙ্ক: ২৬°৩১′ উত্তর ৮৮°৪৪′ পূর্ব / ২৬.৫২° উত্তর ৮৮.৭৩° পূর্ব / 26.52; 88.73
দেশ ভারত
রাজ্যপশ্চিমবঙ্গ
জেলাজলপাইগুড়ি
প্রতিষ্ঠা করেনব্রিটিশ ভারত
সরকার
 • ধরনপৌরসভা
 • শাসকজলপাইগুড়ি পৌরসভা
উচ্চতা৮৯ মিটার (২৯২ ফুট)
জনসংখ্যা (২০১১)
 • মোট১,৬৯,০০২
 • ক্রম১৯তম পশ্চিমবঙ্গে
ভাষা
 • অফিসিয়ালবাংলা, ইংরেজি
সময় অঞ্চলআইএসটি (ইউটিসি+৫:৩০)
পিন৭৩৫ ১০১ - ১১০ (শহর) , ৭৩৫ ১২০ - ১৩৫ (শহরতলি)

ভৌগোলিক উপাত্তসম্পাদনা

শহরটির অবস্থানের অক্ষাংশ ও দ্রাঘিমাংশ হল ২৬°৩১′ উত্তর ৮৮°৪৪′ পূর্ব / ২৬.৫২° উত্তর ৮৮.৭৩° পূর্ব / 26.52; 88.73[১] সমূদ্র সমতল হতে এর গড় উচ্চতা হল ৮৯ মিটার (২৯২ ফুট)। শহরটি তিস্তা নদীর ধারে অবস্থিত। এছাড়া শহরের মধ্যে দিয়ে করলা নদী প্রবাহিত হয়েছে যাকে "জলপাইগুড়ির টেমস" নামেও অভিহিত করা হয়।

জনসংখ্যার উপাত্তসম্পাদনা

ভারতের ২০১১ সালের আদমশুমারি অনুসারে জলপাইগুড়ি শহরের জনসংখ্যা হল ১,০৭,৩৪১ জন।[২] এর মধ্যে পুরুষ ৫৩,৭০৮ (৫০%) এবং নারী ৫৩,৬৩৩ (৫০%)।

  • এখানে সাক্ষরতার হার ৮৬.৪৩%। সারা ভারতের সাক্ষরতার হার ৭৪.০৪%, তার চাইতে জলপাইগুড়ি এর সাক্ষরতার হার বেশি।

এই শহরের জনসংখ্যার ১৪.৫২২% হল ৬ বছর বা তার কম বয়সী।

শিক্ষাসম্পাদনা

বিদ্যালয়সম্পাদনা

  • অরবিন্দ মাধ্যমিক উচ্চতর বিদ্যালয়
  • জলপাইগুড়ি জিলা স্কুল
  • জলপাইগুড়ি রাষ্ট্রীয় বালিকা বিদ্যালয়
  • ফণীন্দ্রদেব বিদ্যালয়
  • সুনীতিবালা সদর বালিকা বিদ্যালয়
  • জলপাইগুড়ি উচ্চতর মাধ্যমিক বিদ্যালয়
  • সোনাউল্লাহ উচ্চতর মাধ্যমিক বিদ্যালয়
  • সেন্ট্রাল বালিকা বিদ্যালয়
  • দেবনগর সতীশ লাহিড়ী উচ্চমাধ্যমিক বিদ্যালয়
  • মোহিতনগর কলোনী তারাপ্রসাদ উচ্চমাধ্যমিক বিদ্যালয়
  • রাণীনগর রবীন্দ্রনাথ উচ্চ বিদ্যালয়  
  • বাহাদুর মুন্নাজ হ্যাপী হোম হাই স্কুল

মহাবিদ্যালয়সম্পাদনা

  • আনন্দ চন্দ্র কলেজ
  • প্রসন্নদেব মহিলা মহাবিদ্যালয়
  • আনন্দ চন্দ্র কলেজ অফ্ কমার্স
  • জলপাইগুড়ি গভর্নমেন্ট ইঞ্জিনিয়ারিং কলেজ
  • গভর্নমেন্ট পলিটেকনিক ইনস্টিটিউট
  • আনন্দ চন্দ্র শিক্ষক শিক্ষণ মহাবিদ্যালয়

বিশ্ববিদ্যালয়সম্পাদনা

২০১৩- ২০১৪ শিক্ষাবর্ষ থেকে জলপাইগুড়িতে উত্তরবঙ্গ বিশ্ববিদ্যালয়ের দ্বিতীয় ক্যাম্পাসে পঠনপাঠন আরম্ভ হয়েছে।

দর্শনীয় স্থানসম্পাদনা

  • গয়েরকাটা মধুবনী পার্ক
  • বৈকুন্ঠপুর রাজবাড়ি
  • বৈকুন্ঠপুর রাজবাড়ির সিংহদুয়ার
  • বৈকুন্ঠপুর রাজবাড়ির দিঘি ও সংলগ্ন মন্দিরদ্বয়
  • যোগমায়া কালীবাড়ি
  • দেবী চৌধুরাণীর কালীবাড়ি
  • তিস্তা নদীর পাড়বাঁধ
  • জল্পেশ মন্দির
  • গোসাইহাট পার্ক
  • মা ভ্রামরী দেবী মন্দির

তথ্যসূত্রসম্পাদনা

  1. "Jalpaiguri"Falling Rain Genomics, Inc (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ অক্টোবর ৭, ২০০৬ 
  2. "ভারতের ২০১১ সালের আদমশুমারি" (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ জুন ১৪, ২০২০