উদ্ভিদবিদ্যায় চিরহরিৎ হল একটি উদ্ভিদ যার পাতা প্রত্যেক ঋতুতেই সবুজ থাকে। এর বিপরীত হচ্ছে পর্ণমোচী, যার পাতা শীতকালে অথবা শুষ্ক ঋতুতে ঝরে যায়। গুল্মবৃক্ষ, উভয় ধরনের উদ্ভিদই চিরহরিতে বিদ্যমান। চিরহরিৎ উদ্ভিদের মধ্যে রয়েছেঃ

সিলভার ফার বৃক্ষের ডালে পরপর তিন বছরের ধরে রাখা পাতার প্রদর্শন

চিরহরিৎ উদ্ভিদের পাতার অস্তিত্ব কয়েক মাস থেকে শুরু করে (পুরোনো পাতা ঝরার সাথে সাথে অবিরত নতুন পাতা গজাতে থাকে) কয়েক দশক পর্যন্ত বিদ্যমান থাকতে পারে।[১]

চিরহরিৎ অথবা পর্ণমোচী হবার কারণসম্পাদনা

 
শীতকালে একটি দক্ষিণা জীবন্ত ওক

পর্ণমোচী বৃক্ষ সাধারণত শীত বা শুষ্ক ঋতুর অভিযোজন হিসেবে পাতা ঝরিয়ে থাকে। চিরহরিৎ বৃক্ষ পাতা ঝরালেও পর্ণমোচীর মতোন একসাথে সব ঝরিয়ে ফেলে না। বিভিন্ন বৃক্ষ বিভিন্ন সময়ে তাদের পাতা ঝরায় যার ফলে বনকে মোটামুটি সবুজই দেখায়। অধিকাংশ ক্রান্তীয় বৃষ্টিবনের বৃক্ষরা চিরহরিৎ বলে পরিচিত যারা পাতার বয়স বাড়া এবং ঝরার সাথে সাথে সারা বছর ধরে নতুন পাতা প্রতিস্থাপন করে। অন্যদিকে ঋতুগতভাবে শুষ্ক জলবায়ুর প্রজাতিগুলো হয় চিরহরিৎ অথবা পর্ণমোচী। উষ্ণ শীতপ্রধান জলবায়ুর অধিকাংশ উদ্ভিদ প্রজাতিও চিরহরিৎ বৈশিষ্ট্য ধারণ করে। যেহেতু, অল্প সংখ্যক চিরহরিৎ ব্রডলিফ উদ্ভিদ ৩০° সেন্টিগ্রেডের নিচের তীব্র ঠান্ডা সহ্য করতে পারে, সেহেতু ঠান্ডা শীতপ্রধান জলবায়ুতে মোচাকৃতির উদ্ভিদের আধিক্যসহ কিছুসংখ্যক উদ্ভিদ চিরহরিৎ।

যেসব অঞ্চলে পর্ণমোচী জন্মানোর কারণ থাকে (যেমন, ঠান্ডা বা শুষ্ক ঋতু), চিরহরিৎ হওয়াটা সেখানে মূলত অল্প পুষ্টি স্তরের প্রতি একটি অভিযোজন। পর্ণমোচী বৃক্ষ পাতা ঝরানোর সাথে সাথে পুষ্টি হারাতে থাকে। উষ্ণ অঞ্চলে, পাইন এবং সাইপ্রেসের কিছু প্রজাতি অনুর্বর মাটি ও উপদ্রুত স্থলে জন্ম নেয়। রডোডেনড্রন গণের অনেক চিরহরিৎ প্রজাতির কয়েকটি পরিপক্ক বনে জন্ম নেয়, কিন্তু এদেরকে মূলত কম পুষ্টিসমৃদ্ধ উচ্চমাত্রার আম্লিক মাটিতে দেখতে পাওয়া যায়। তাইগা এবং বরিয়াল বা উত্তরের বনগুলোতে তীব্র ঠান্ডার কারণে মাটির জৈবপদার্থ খুব সহজে পঁচে না, ফলাফলস্বরূপ, মাটির পুষ্টি পেতে বৃক্ষরাজিকে বেগ পেতে হয়। এই ঘটনাই শেষে এসব এলাকায় চিরহরিৎ বৃক্ষকে আনুকূল্য দেয়।

শীতপ্রধান জলবায়ুতে চিরহরিৎ বৃক্ষ নিজেদের বেঁচে থাকাকে অনুকূল করে তুলতে পারে। চিরহরিৎ বৃক্ষের পাতা ও নিডলের জঞ্জালের মধ্যে পর্ণমোচী বৃক্ষের পাতার জঞ্জালের চাইতে উচ্চ কার্বন-নাইট্রোজেন অনুপাত রয়েছে যা উচ্চ মাত্রার আম্লিক মাটি ও নিম্নমাত্রার নাইট্রোজেন উপাদানের সৃষ্টি করে। এই পরিস্থিতি চিরহরিতের বৃদ্ধি পরিবেশ অনুকূল করে অন্যদিকে পর্ণমোচীর বেঁচে থাকা কঠিন করে তুলে। এছাড়াও, বিদ্যমান চিরহরিৎ বৃক্ষের সহায়তায় ছোট চিরহরিৎ গাছগুলো অতি সহজে ঠান্ডা আর খরার সমস্যা কাটিয়ে উঠে বেঁচেবর্তে থাকতে পারে।[২][৩][৪]

চিরহরিৎ ও পর্ণমোচী, উভয় ধরনের বৃক্ষের জন্য একই ধরনের রোগবালাই বিদ্যমান, কিন্তু দীর্ঘমেয়াদি বায়ুদূষণ, বাতাসের ছাই ও বিষাক্ত উপাদান, পর্ণমোচীর চাইতে চিরহরিতের জন্য বেশি ক্ষতিকর।

রূপকার্থে ব্যবহারসম্পাদনা

উদ্ভিদসংক্রান্ত অর্থের কারণে, “চিরহরিৎ” শব্দটি রূপক অর্থে এমন কিছুকে নির্দেশ করা হয় যা ক্রমাগতভাবে নবায়ন হয় বা নিজে থেকে পুনর্নবায়নকারি। এর একটি উদাহরণ হল “চিরহরিৎ বিষয়বস্তু” শব্দগুচ্ছে প্রকাশিত অভিব্যক্তি যা ঘনঘন পরিবর্তনশীল বিষয়ে লিখিত বহুবর্ষীয় নিবন্ধ অথবা তথ্যপঞ্জিকে বর্ণনা করতে ব্যবহৃত হয়।[৫]

তথ্যসূত্রসম্পাদনা

  1. Ewers, F. W. & Schmid, R. (১৯৮১). "Longevity of needle fascicles of Pinus longaeva (Bristlecone Pine) and other North American pines". Oecologia ৫১ঃ১০৭-১১৫।
  2. Aerts, R. (১৯৯৫). "The advantages of being evergreen". Trends in Ecology & Evolution ১০(১০)ঃ ৪০২-৪০৭।
  3. Matyssek, R. (১৯৮৬) "Carbon, water and nitrogen relations in evergreen and deciduous conifers". Tree Physiology ২ঃ ১৭৭-১৮৭।
  4. Sobrado, M. A. (১৯৯১) "Cost-Benefit Relationships in Deciduous and Evergreen Leaves of Tropical Dry Forest Species". Functional Ecology ৫ (৫)ঃ ৬০৮-৬১৬।
  5. Gomes, Diego. (২০১১)। [১][স্থায়ীভাবে অকার্যকর সংযোগ] What is evergreen content