গির্জা

খ্রিষ্টানদের গণউপাসনালয়

গির্জা বা গীর্জ্জা খ্রিষ্টানদের গণউপাসনালয়, যেখানে খ্রিস্ট সম্প্রদায়ের সভ্যরা সমবেত হয়ে ঈশ্বরের আরাধনা করেন। ২য় খ্রিষ্টাব্দ পর্যন্ত খ্রিস্ট ধর্মালম্বদের কোন গণ উপাসনা মন্দির স্থাপিত হয়নি, উপাসনা ছিল একান্ত বিষয়। যীশু খ্রিস্টের তিরোধানের পর তার অনুসারীরা নিজ গৃহে, দূর প্রান্তরে, নির্জন সমাধি ক্ষেত্রে ইত্যাকার স্থানে, একান্তে, ঈশ্বরের উপাসনা করতেন।[১]

সিরিয়ার আলেপ্পোতে অবস্থিত এই গির্জাটি পৃথিবীর প্রাচীনতম গির্জাগুলির একটি
সেন্ট জন গির্জা, কলকাতা

গির্জা শব্দটির ইংরেজি প্রতিশব্দ Church, যার ব্যুৎপত্তি গ্রিক থেকে এবং অর্থ "ঈশ্বরের মন্দির"।, তবে পরবর্তীতে ইংরেজি চার্চ বলতে খ্রিস্টের অনুসারীদের ধমদর্শন বুঝানো হয়, যেমন অর্থোডক্স চার্চ, ক্যাথলিক চার্চ, প্রোটেস্টান্ট চার্চ ইত্যাদি। খ্রিস্টানদের বাইবেলে গির্জা শব্দটি নেই। Tertullian এর লেখায় সর্বপ্রথম এই শব্দটি ব্যবহৃত হয় যাতে বোঝা যায় খ্রিস্টপরবর্তী ৩য় দশকে প্রথম গণউপসনালয় হিসাবে গির্জা প্রতিষ্ঠিত হয়েছিল।

তথ্যসূত্রসম্পাদনা

  1. খ্রিস্ট্রিয় গির্জার ইতিহাস

আরো দেখুনসম্পাদনা

বহি:সংযোগসম্পাদনা