খুনাইস ইবনে হুজাইফা

খুনাইস ইবনে হুজাইফা (خنيس بن حذيفة) (মৃত্যু ২ AH/৬২৪) ইসলামের নবী মুহাম্মদ স. এর একজন সাহাবা ছিলেন।

জীবনীসম্পাদনা

খুনাইস মক্কার বনু কুরাইশ বংশের বনু শাহম গোত্রের হুজাফা ইবনে কায়েসের পুত্র ছিলেন। তার মা দাইদা বিনতে হিজ্যামও ছিলেন শাহম গোত্রের মেয়ে।[১] তার দুই ভাই আব্দুল্লাহ ইবনে হুজাফা আস-সাহমি এবং কায়েস।[২]

আবু বকরের দ্বারা প্রভাবিত হয়ে খুনাইস ইসলাম গ্রহণ করেন[৩] "আল্লাহর নবী আল আকরামের গৃহে প্রবেশের" কিছুদিন আগে।[৪]

তিনি তার দুই ভাই, সাত চাচাতো ভাই এবং শাহম গোত্রের অন্য চারজন সদস্য নিয়ে ৬১৬ খ্রিস্টাব্দে আবিসিনিয়ায় গমণের অংশ নেন।[৫] খুনাইস ৬১৯ খ্রিস্টাব্দে মক্কায় ফিরে আসেন।[৬] এরপরে তিনি হাফসা বিনতে উমার কে বিয়ে করেন।[৭] হাফসার তখন ১৪ বছর বয়স।[৮]

৬২২ সালে যখন উমর মদিনায় হিজরত করেন তখন হাফসা এবং খুনাইস তার দলের সঙ্গে যোগ দেয়।[৭] প্রথম দিকে তারা রিফা ইবনে আবদালমুন্দির এর সঙ্গে থাকতেন।[৯] যখন মুহাম্মদ স. প্রতিজন মুসলমানকে একজন ভাই নির্বাচন করতে নির্দেশ দেন তখন তিনি আবু আবস ইবনে জাবিরের সঙ্গে ভাই পাতান[১০] যে মুহাম্মদ ইবনে মাসলামার শ্যালক ছিলেন।[১১]

খুনাইস শাহম গোত্রের একমাত্র ব্যক্তি যিনি ৬২৪ খ্রিস্টাব্দে সংঘটিত বদরের যুদ্ধে অংশগ্রহণ করেন।[১২]

তিনি মুহাম্মদ স. এর মদিনায় হিজরতের ২৫ তম মাসের শুরুর দিকে মৃত্যুবরণ করেন। তাকে আল-বাকী কবস্থানে দাফন করা হয়। মুহাম্মদ স. তার শেষকৃত্য পরিচালনা করেন।[৪] তার কোন উত্তরসূরী ছিলো না। [৪] বিধবা হাফসা পরবর্তীতে মুহাম্মদ স. কে বিবাহ করেন[১৩]

তথ্যসূত্রসম্পাদনা

  1. Muhammad ibn Saad, Tabaqat vol. 3. Translated by Bewley, A. (2013). The Companions of Badr, p. 307. London: Ta-Ha Publishers.
  2. Muhammad ibn Ishaq, Sirat Rasul Allah. Translated by Guillaume, A. (1955). The Life of Muhammad, pp. 147-148. Oxford: Oxford University Press.
  3. Ibn Ishaq/Guillaume p. 116.
  4. Ibn Saad/Bewley vol. 3 p. 307.
  5. Ibn Ishaq/Guillaume pp. 147-148.
  6. Ibn Ishaq/Guillaume p. 168.
  7. Ibn Ishaq/Guillaume p. 218.
  8. Muhammad ibn Saad, Tabaqat vol. 8. Translated by Bewley, A. (1995). The Women of Madina, p. 56. London: Ta-Ha Publishers.
  9. Ibn Ishaq/Guillaume p. 218. Ibn Saad/Bewley vol. 3 p. 307.
  10. Ibn Saad/Bewley vol. 3 pp. 307, 353.
  11. Ibn Saad/Bewley vol. 3 p. 352.
  12. Ibn Ishaq/Guillaume p. 329.
  13. Ibn Hisham note 918.

বহিঃসংযোগসম্পাদনা