খামাগ মঙ্গোল (মঙ্গোলীয়: Хамаг монгол; চীনা: 蒙兀國) দ্বাদশ শতাব্দীতে মঙ্গোলীয় মালভূমিতে অবস্থিত একটি প্রধান মঙ্গোলীয় উপজাতীয় মৈত্রী দল (খানলিগ) ছিল। এটাকে মাঝেমধ্যে মঙ্গোল সাম্রাজ্যের পূর্বসূরী রাজ্য বলা হয়ে থাকে।[১][২]

খামাগ মঙ্গোল

Хамаг Монголын ханлиг
১০ম শতাব্দী–১২০৬
মঙ্গোল সাম্রাজ্য আনু. ১২০৭
অবস্থাখানাত
রাজধানীখেরলেন নদীর নিকট কেন্দ্রীভূত শিবির
প্রচলিত ভাষামধ্য মঙ্গোল
ধর্ম
টেংরিবাদ
শামানবাদ
সরকারনির্বাচনী রাজতন্ত্র
খান 
• ১১৩০–১১৪৮
খাবুল খান (প্রথম লিপিবদ্ধ খান)
• ১১৪৮–১১৫৬
আমবাগাই খান (২য়)
• ১১৫৬–১১৬০
হোতুলা খান (৩য়)
• ১১৬০ - ১১৭১
ইয়েসুই (প্রকৃত)
• ১১৮৯–১২০৬
চেঙ্গিস খান (শেষ)
আইন-সভাকুরুলতাই
ঐতিহাসিক যুগউচ্চ মধ্যযুগ
• লিয়াও রাজবংশ দ্বারা খামাগ মঙ্গোলের অস্তিত্ব লিপিবদ্ধকরণ
১১তম শতাব্দী বা ১০ম শতাব্দী
• খাবুল খানের অভিষেক
১১৩০
• ইয়েসুইয়ের মৃত্যু
১১৭১
• তেমুজিন খামাগের খাগান হয় এবং তাকে চেঙ্গিস খান নামক সম্মানসূচক নামটি প্রদান করা হয়
১১৮৯
• জামুখা চেঙ্গিস খানের প্রতিদ্বন্দ্বী হিসেবে নির্বাচিত হয়
১২০১
• চেঙ্গিস খান জামুখাকে পরাজিত করে সমস্ত উপজাতিদের একত্র করে মঙ্গোল সাম্রাজ্য প্রতিষ্ঠা করে
১২০৬
পূর্বসূরী
উত্তরসূরী
লিয়াও রাজবংশ
প্রোটো-মঙ্গোল
প্রোটো-মঙ্গোল
বর্তমানে যার অংশ মঙ্গোলিয়া
 রাশিয়া
 চীন

মঙ্গোল ঐতিহ্যে এই রহস্যময় উপজাতীয় শক্তির নাম খামাগ মঙ্গোল উলস হিসেবে উত্তর চীন ও পূর্ব মঙ্গোলিয়ার খাইতান নেতৃত্বাধীন লিয়াও রাজবংশ (৯১৬–১১২৫) লিপিবদ্ধ করেছে।[৩] ১১২৫ সালে লিয়াও রাজবংশের পতনের পর খামাগ মঙ্গোলরা মঙ্গোলীয় মালভূমিতে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখতে শুরু করে।[৪] তারা দেশটির খেন্টি পর্বতমালায় অবস্থিত অনন, খেরলেনতুল নদীর অববাহিকা দখল করে নেয়। তাইচিউদ (সিরিলীয়: Тайчууд) ছিল দ্বাদশ শতাব্দীর মঙ্গোলিয়ার খামাগ মঙ্গোল খানাতের তিনটি প্রধান উপজাতির অন্যতম যারা সাইবেরিয়ার জাবাইকালস্কি ক্রাইয়ের দক্ষিণে বসবাস করত। জাবাইকালস্কি ক্রাই ও মঙ্গোলীয় খেন্টি প্রদেশ ছিল খামাগ মঙ্গোল খানাতের মূল অঞ্চল।[৫] খামাগটি তিনটি প্রধান গোষ্ঠী খিয়াদ, তাইচিউদ ও জালাইরস নিয়ে গঠিত ছিল।

খামাগ মঙ্গোলের প্রথম খানের নাম হিসেবে বোর্জিগিন গোষ্ঠির খাবুল খানের নাম লিপিবদ্ধ রয়েছে। খাবুল খান সফলতার সাথে জার্চেন নেতৃত্বাধীন জিন বাহিনীদের আক্রমণ প্রতিহত করেন। খাবুল খানের পর খামাগের উত্তরসূরী হোন তাইচিউদ গোষ্ঠীর আমবাগাই। নিজের মেয়েকে বিয়েতে তুলে দেওয়ার সময় তাতার উপজাতীয় সংঘ তাকে আটক করে। আমবাগাইকে জিনদের হাতে তুলে দেওয়া হয় যারা তাকে নিষ্ঠুরভাবে হত্যা করে। আমবাগাইয়ের স্থলাভিষিক্ত হোন খাবুল খানের পুত্র হোতুলা খান। আমবাগাই খানের মৃত্যুর প্রতিশোধ নিতে হোতুলা খান তাতারদের বিরুদ্ধে ১৩টি লড়াই করেন।

হোতুলার মৃত্যুর পর খামাগ মঙ্গোল নতুন নেতা নির্বাচন করতে অক্ষম ছিল। যাই হোক, খাবুলের নাতি খিয়াদ গোষ্ঠীর প্রধাব ইয়েসুই ছিলেন খামাগ মঙ্গোলের একজন কার্যকরী ও প্রসিদ্ধ নেতা। তেমুজিন তথা ভবিষ্যতে চেঙ্গিস খান এই ইয়েসুইয়ের পরিবারে ১১৬২ সালে অনয়ন নদীর উপরের দিকে দেলুউন বলদগের বড় পুত্র হিসেবে জন্মগ্রহণ করে।

দ্বাদশ শতাব্দীর প্রথমদিকে তরুন তুগরিল খান খামাগ মঙ্গোল শাসক ইয়েসুইয়ের[টীকা ১] নিকট তার ভাইকে কেরাইতীয়দের সিংহাসন থেকে ক্ষমতাচ্যুত করার জন্য সাহায্য প্রার্থনা করলে মঙ্গোলরা কেরাইতীয় নেতাদের হারাতে সাহায্য করে এবং তাকে ক্ষমতায় বসায়।

ইয়েসুইকে তাতারেরা ১১৭০ সালে বিষপ্রয়োগ করে এবং এরপর শীঘ্রই ইয়েসুই মৃত্যুবরণ করেন। ১১৭১ সালে ইয়েসুইয়ের মৃত্যুর পর খামাগ মঙ্গোল ভেঙ্গে যেতে শুরু করে। রাজনৈতিক নৈরাজ্য ও ক্ষমতার শূন্যস্থান ১১৮৯ সালে তেমুজিন খামাগ মঙ্গোলের খান হওয়ার আগ পর্যন্ত অব্যাহত ছিল। অন্যান্য মঙ্গোল গোষ্ঠীদের মাঝে দ্রুত যুদ্ধ শুরু হয়ে যায়। তেমুজিনের বন্ধু জামুখাকে ১২০১ সালে প্রতিদ্বন্দ্বী গোষ্ঠীগুলো গুর-খান (সর্বজনীন শাসক) হিসেবে স্বীকৃতি দিলেও সংযুক্ত খামাগ মঙ্গোল ও কেরাইতীয় মৈত্রী দলের নিকট সে হেরে যায়।

তুগরিল খান খামাগদের সাথে সম্পর্ক সুদৃঢ় করতে অস্বীকৃতি জানালে তেমুজিন তুগরিলের সাথে যুদ্ধে জড়ায় এবং তাকে প্রায় ধ্বংস করে দেয়। অবশেষে ১২০৬ সালে তেমুজিন মঙ্গোল মালভূমিতে সব গোষ্ঠীদের ঐক্যবদ্ধ করে এবং তাকে চেঙ্গিস খান উপাধি দেওয়া হয়।

আরো দেখুনসম্পাদনা

পাদটীকাসম্পাদনা

  1. He never assumed the title the Khan of the Khamag Mongol but baghatur (hero).

তথ্যসূত্রসম্পাদনা

উদ্ধৃতিসম্পাদনা

  1. Bat-Ocher Bold (২০০১), Mongolian nomadic society: a reconstruction of the "medieval" history of Mongolia, Richmond, Surrey: Curzon, পৃষ্ঠা 176, আইএসবিএন 0-7007-1158-9 
  2. History of the Mongolian People's Republic By Akademii︠a︡ nauk SSSR, p. 99.
  3. Khamag Mongol Uls
  4. Histoire de la Mongolie By László Lőrincz, p. 43.
  5. History of Mongolia, Volume II, 2003

উৎসসম্পাদনা