প্রধান মেনু খুলুন

ক্রিস জর্দান

ইংরেজ ক্রিকেটার

ক্রিস্টোফার জেমস জর্দান (জন্ম: ৪ অক্টোবর, ১৯৮৮) বার্বাডোসে জন্মগ্রহণকারী ইংরেজ ক্রিকেটার। ইংল্যান্ড ক্রিকেট দলের অন্যতম প্রতিশ্রুতিশীল অল-রাউন্ডার হিসেবে তাকে বিবেচনা করা হয়। জর্দান ডানহাতে ব্যাটিংয়ের পাশাপাশি ডানহাতে ফাস্ট-মিডিয়াম বোলিং করে থাকেন। গড়ে ঘন্টা প্রতি ৮০ মাইল বেগে নিয়মিতভাবে বোলিংয়ে পারদর্শী তিনি। ২০০৭ সালে সারে দলের সর্বাপেক্ষা উদীয়মান খেলোয়াড় হিসেবে এনবিসি ডেনিস কম্পটন পুরস্কার লাভ করেন।

ক্রিস জর্দান
ব্যক্তিগত তথ্য
পূর্ণ নামক্রিস্টোফার জেমস জর্দান
জন্ম (1988-10-04) ৪ অক্টোবর ১৯৮৮ (বয়স ৩০)
বার্বাডোস
উচ্চতা৬ ফুট ২ ইঞ্চি (১.৮৮ মিটার)
ব্যাটিংয়ের ধরনডানহাতি
বোলিংয়ের ধরনডানহাতি ফাস্ট-মিডিয়াম
আন্তর্জাতিক তথ্য
জাতীয় পার্শ্ব
ওডিআই অভিষেক
(ক্যাপ ২৩১)
১৬ সেপ্টেম্বর ২০১৩ বনাম অস্ট্রেলিয়া
শেষ ওডিআই২২ মে ২০১৪ বনাম শ্রীলঙ্কা
ওডিআই শার্ট নং৩৪
একমাত্র টি২০আই
(ক্যাপ ৬৫)
২ ফেব্রুয়ারি ২০১৪ বনাম অস্ট্রেলিয়া
টি২০আই শার্ট নং৩৪
ঘরোয়া দলের তথ্য
বছরদল
২০০৭-২০১২সারে (দল নং ২৭)
২০১২-২০১৩বার্বাডোস
২০১৩–সাসেক্স (দল নং ৮)
খেলোয়াড়ী জীবনের পরিসংখ্যান
প্রতিযোগিতা ওডিআই টি২০আই এফসি এলএ
ম্যাচ সংখ্যা ৫৯ ৩৮
রানের সংখ্যা ৭৪ ৩৭ ১,৪৭৩ ২৩৩
ব্যাটিং গড় ৩৭.০০ ২২.৩১ ১২.৯৪
১০০/৫০ ০/০ ০/০ ০/৬ ০/০
সর্বোচ্চ রান ৩৮* ২৭* ৯২ ৩৮
বল করেছে ৪৫৬ ৪৮ ৮,৭৫২ ১,৬৮৪
উইকেট ১৩ ১৬১ ৫৬
বোলিং গড় ৩২.৩১ ১৫.৫০ ৩২.২৬ ২৭.৬৯
ইনিংসে ৫ উইকেট
ম্যাচে ১০ উইকেট n/a n/a n/a
সেরা বোলিং ৩/২৫ ৩/৩৯ ৭/৪৩ ৪/৩৮
ক্যাচ/স্ট্যাম্পিং ২/– ২/– ৫৩/– ১৭/–
উৎস: CricketArchive, 19 March 2014

প্রারম্ভিক জীবনসম্পাদনা

নিজ দেশ বার্বাডোসের স্কুল কম্বারমের থেকে ক্রীড়া বৃত্তি নিয়ে ডালউইচ কলেজে অধ্যয়ন করেন। মাতৃসম্পর্কীয় দাদা ব্রিটিশ নাগরিক হওয়ায় তিনিও ব্রিটিশ নাগরিকত্ব লাভ করেন। সারে দলে তিনি ব্রিটিশ খেলোয়াড়রূপে অংশগ্রহণ করেন। এরফলে তিনি ইংল্যান্ড এবং ওয়েস্ট ইন্ডিজ - উভয় দলের পক্ষেই খেলার যোগ্যতা অর্জন করেন। কিন্তু তিনি ইংল্যান্ডের পক্ষেই খেলার সিদ্ধান্ত নেন। এছাড়াও তিনি বিলুপ্তপ্রায় বন্যপ্রাণী সংরক্ষণের উদ্দেশ্যে গঠিত দাতব্য তহবিলের সাথে জড়িত রয়েছেন।

খেলোয়াড়ী জীবনসম্পাদনা

আগস্ট, ২০০৭ সালে লর্ডসে অনুষ্ঠিত সারে দলের প্রথম একাদশে অন্তর্ভুক্ত হন ও মিডলসেক্সের বিপক্ষে অভিষেক ঘটে তার। প্রথম-শ্রেণীর ক্রিকেটের অভিষেক খেলায় তিনি ৪১ রানের বিনিময়ে ২ উইকেট এবং দ্বিতীয় খেলায় ডারহ্যামের বিপক্ষে ৪২ রানে ৩ উইকেট লাভে সক্ষমতা দেখান।

পিঠের হাড়ে ফাঁটল ধরায় ২০১০ সালে ইংরেজ ক্রিকেটে অংশ নিতে পারেননি। ঐ বছরেরই ডিসেম্বর মাসে তিনি পুণরায় প্রশিক্ষণে চলে যান।[১] সাম্প্রতিককালে তিনি ইংল্যান্ডের একদিনের দলে অন্তর্ভুক্ত হন। ২০১২ মৌসুমের শেষদিকে ছয় বছর সারে দলে খেলার পর ক্লাব দল ত্যাগ করেন।[২] বর্তমানে তিনি সাসেক্স ক্লাবে খেলছেন। ইয়র্কশায়ারের বিপক্ষে তিনি তার নিজস্ব সেরা ৬/৪৮ বোলিং পরিসংখ্যান গড়েন।

তথ্যসূত্রসম্পাদনা

  1. "Surrey all-rounder Chris Jordan back in training"। BBC Sport। ১৩ ডিসেম্বর ২০১০। সংগ্রহের তারিখ ২০১০-১২-১৩ 
  2. "County News:Surrey release Jordan"। Cricinfo। ১৪ সেপ্টেম্বর ২০১২। সংগ্রহের তারিখ ৫ নভেম্বর ২০১২ 

বহিঃসংযোগসম্পাদনা