প্রধান মেনু খুলুন

কেট ব্লানচেট

অস্ট্রেলীয় অভিনেত্রী

ক্যাথরিন এলিস "কেট" ব্লানচেট (ইংরেজি: Catherine Élise "Cate" Blanchett) (জন্ম: ১৪ মে, ১৯৬৯) একজন অস্ট্রেলীয় অভিনেত্রীনাট্য নির্দেশক। তিনি তার অভিনয় প্রতিভার জন্য বেশ কয়েক রকমের পুরস্কার পেয়েছেন। তার মধ্যে আছে দুইবার করে স্ক্রিন অ্যাক্টরস গিল্ড, গোল্ডেন গ্লোব, বাফটা পুরস্কার, এবং দুইবার একাডেমি পুরস্কার। সেই সাথে তিনি ৬৪তম ভেনিস আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উৎসবে ভলপি কাপ খেতাবে ভূষিত হয়েছিলেন।

কেট ব্লানচেট
জন্ম
ক্যাথরিন এলিস ব্লানচেট

(1969-05-14) ১৪ মে ১৯৬৯ (বয়স ৫০)
পেশাঅভিনেত্রী, মঞ্চ নির্দেশক
কার্যকাল১৯৯৩-বর্তমান
দাম্পত্য সঙ্গীঅ্যান্ড্রু আপটন (১৯৯৭-বর্তমান)

শেখর কাপুর পরিচালিত, ১৯৯৮ সালে মুক্তিপ্রাপ্ত চলচ্চিত্র এলিজাবেথ-এ অভিনয় করে কেট ব্লানচেট আন্তর্জাতিক অঙ্গনে আলোচনায় আসেন। সেখানে তিনি ইংল্যান্ডের রাণী প্রথম এলিজাবেথের চরিত্রে অভিনয় করেছিলেন। সেই সাথে পিটার জ্যাকসন পরিচালিত দ্য লর্ড অব দ্য রিংস চলচ্চিত্র ত্রয়ীতে এলফের রাণী গ্যালাড্রিয়েল, ইন্ডিয়ানা জোন্স এন্ড দ্য কিংডম অফ ক্রিস্টাল স্কাল চলচ্চিত্রে কর্নেল-ডাক্তার ইরিনা স্পালকো, এবং মার্টিন স্কোরসেজির পরিচালিত দি অ্যাভিয়েটর-এর ক্যাথরিন হেপবার্ন-এর ভূমিকায় অভিনয় করার জন্যও বিশেষভাবে পরিচিত। দি অ্যাভিয়েটর-এ তার অনবদ্য অভিনয়ের জন্য তিনি সেরা অভিনেত্রী বিভাগে একাডেমি পুরস্কার লাভ করেন।[১][২][৩] বর্তমানে তিনি ও তার স্বামী অ্যান্ড্রু আপটন সিডনি থিয়েটার কোম্পানিতে শৈল্পিক পরিচালক হিসেবে কর্মরত।

প্রাথমিক জীবন ও শিক্ষাসম্পাদনা

অস্ট্রেলিয়ার, ভিক্টোরিয়া প্রদেশের মেলবোর্ন শহরে একটি উপশহর ইভানহোতে ব্লানচেটের জন্ম। তার মা জুন ছিলেন একজন অস্ট্রেলীয় প্রপার্টি ডেভলপার ও শিক্ষক, এবং বাবা রবার্ট “বব” ব্লানচেটের জন্ম হয়েছিলে যুক্তরাষ্ট্রের টেক্সাসে ও তিনি ছিলেন যুক্তরাষ্ট্র নেভির একজন পেটি অফিসার, এবং পরবর্তীতে তিনি প্রচার নির্বাহী হিসেবে কাজ করতেন।[৪][৫] ব্লানচেটের বাবার কর্মক্ষেত্র, রণতরী ইউএসএস আর্নেব যখন মেলবোর্নে অবস্থান করছিলো, সে সময় তার মা-বাবার প্রথম সাক্ষাৎ ঘটে। ব্লানচেটের বয়স যখন দশ, তখন তার বাবা হার্ট অ্যাটাক-এ আক্রান্ত হয়ে মারা যান। কেটের ২ জন ভাই-বোন আছেন।

কেট ব্লানচেট ইউনিভার্সিটি অফ মেলবোর্ন-এ অর্থনীতি ও চারুকলা নিয়ে পড়াশোনা করেন।

পুরস্কার ও মনোনয়নসম্পাদনা

তথ্যসূত্রসম্পাদনা

  1. "Audrey Hepburn 'most beautiful woman of all time' – Entertainment – www.smh.com.au"। Smh.com.au। সংগ্রহের তারিখ ২১ অক্টোবর ২০০৮ 
  2. "Cate Blanchett : People.com"। People.com। সংগ্রহের তারিখ ২১ অক্টোবর ২০০৮ 
  3. "The most beautiful women? – Times Online"। Timesonline.co.uk। সংগ্রহের তারিখ ২১ অক্টোবর ২০০৮ 
  4. "Cate Blanchett's biography_ Elle December 2003"Elle। ২০০৭-১০-২৮ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১৭ অক্টোবর ২০০৭ 
  5. "Cate Blanchett's biography"filmreference.com। সংগ্রহের তারিখ ১৭ অক্টোবর ২০০৭ 

বহিঃসংযোগসম্পাদনা