প্রধান মেনু খুলুন

কানসাটের জমিদার বাড়ি

বাংলাদেশের চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলার শিবগঞ্জ উপজেলার একটি ঐতিহাসিক নিদর্শন

কানসাটের জমিদার বাড়ি বাংলাদেশের চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলার শিবগঞ্জ উপজেলার একটি ঐতিহাসিক নিদর্শন। এটি স্থানীয়ভাবে রাজবাড়ি নামে পরিচিত।[১] এটি বাংলাদেশ প্রত্নতত্ত্ব অধিদপ্তর এর তালিকাভুক্ত একটি প্রত্নতাত্ত্বিক স্থাপনা[২]

কানসাট জমিদার বাড়ি
MMS 3611 kansat rajbari.jpg
ধরনজমিদার বাড়ি
অবস্থানকানসাট, শিবগঞ্জ, চাঁপাইনবাবগঞ্জ, রাজশাহী, বাংলাদেশ
স্থানাঙ্ক২৪°৪৩′৫৪″ উত্তর ৮৮°১০′১১″ পূর্ব / ২৪.৭৩১৬৭° উত্তর ৮৮.১৬৯৬৯° পূর্ব / 24.73167; 88.16969স্থানাঙ্ক: ২৪°৪৩′৫৪″ উত্তর ৮৮°১০′১১″ পূর্ব / ২৪.৭৩১৬৭° উত্তর ৮৮.১৬৯৬৯° পূর্ব / 24.73167; 88.16969
নির্মিতঅজানা
মালিকবাংলাদেশ প্রত্নতত্ত্ব অধিদপ্তর
কানসাটের জমিদার বাড়ি বাংলাদেশ-এ অবস্থিত
কানসাটের জমিদার বাড়ি
বাংলাদেশে কানসাট জমিদার বাড়ির অবস্থান

অবস্থানসম্পাদনা

কানসাটের জমিদার বাড়ি রাজশাহী বিভাগের অন্তর্ভূক্ত চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলার শিবগঞ্জ উপজেলায় অবস্থিত।

ইতিহাসসম্পাদনা

কানসাটের জমিদার বাড়ির বংশের আদি পুরুষরা পূর্বে বগুড়া জেলার কড়ইঝাকইর গ্রামে বসবাস করতেন। তখন সেখানে তাদের উপর দস্যু সর্দার পন্ডিত অত্যাচার শুরু করে দেয়। তার কারণে তারা সেখান থেকে বাধ্য হয়ে ময়মনসিংহ জেলার মুক্তাগাছায় এসে বসতি স্থাপন করেন। পরে আবার চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলার কানসাট নামক গ্রামে এসে বসতি গড়ে তোলেন। তারপর এখানে তারা জমিদারি প্রথা চালু করেন। তবে কবে তারা জমিদারি চালু করেন তা জানা যায়নি। এই জমিদার বংশের মূল প্রতিষ্ঠাতা হলেন সূর্যকান্ত, শশীকান্ত ও শীতাংশুকান্ত। এই জমিদাররা ছিলেন মুসলিম বিদ্বেষী। জমিদারদের মধ্যে মুসলিম বিদ্বেষী হিসেবে তাদের পরিচিতিটা বেশি ছিল। তারা ১৯৪০ সালে মুসলিমদেরকে উচ্ছেদ করার কাজে লিপ্ত হয় পড়ে। যার পরীপেক্ষীতে পরবর্তীতে হিন্দু-মুসলিম দাঙ্গা শুরু হয়। পরে শ্যামপুর চৌধুরী বাড়ির নেতৃত্বে বাজিতপুর গ্রামের ১২টি ইউনিয়নের মুসলমানরা একসাথে হয়ে এর তীব্র আন্দোলন প্রতিবাদ জানায় এবং জমিদার বাড়ির বিরুদ্ধে একটি মামলা করে। তার ফল স্বরূপ কানসাটের জমিদার শিতাংশু বাবু মুসলিম সম্প্রদায়ের কাছে ক্ষমা চায়। এইভাবে এই জমিদারদের ইতিহাস মানুষের মনে গেঁথে আছে। পরবর্তীতে দেশ ভাগের পর জমিদার প্রথা বিলুপ্ত হলে এই জমিদার বাড়ির জমিদারিরও পতন হয়। [১][৩][৪]

বর্তমান অবস্থাসম্পাদনা

বর্তমান সময়ে জমিদার বাড়িটি অযত্ন ও অবহেলার কারণে ধ্বংসের মুখে রয়েছে। এবং জমিদার বাড়িটিতে গাছপালা ও লতাপাতায় জড়িয়ে রয়েছে।

চিত্রশালাসম্পাদনা

আরো দেখুনসম্পাদনা

তথ্যসূত্রসম্পাদনা

  1. "কানসাটের জমিদার বাড়ি - জেলা পরিষদ চাঁপাইনবাবগঞ্জ"। ৩১ অক্টোবর ২০১৭ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ৮ ডিসেম্বর ২০১৭ 
  2. "প্রত্নস্হলের তালিকা"বাংলাদেশ প্রত্নতত্ত্ব অধিদপ্তর। www.archaeology.gov.bd/। সংগ্রহের তারিখ ২৩ ফেব্রুয়ারি ২০১৬ 
  3. কানসাটের জমিদার বাড়ি - বাংলাদেশ প্রতিদিন
  4. "জৌলুস হারাচ্ছে চাঁপাইনবাবগঞ্জের কানসাটের কংসহাট্টা জমিদার বাড়ি - বাংলাদেশপ্রেস২৪"। ১০ এপ্রিল ২০১৭ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ৮ ডিসেম্বর ২০১৭