কলিন গেস্ট

অস্ট্রেলীয় ক্রিকেটার

কলিন আর্নেস্ট জন গেস্ট (ইংরেজি: Colin Guest; জন্ম: ৭ অক্টোবর, ১৯৩৭ - মৃত্যু: ৭ ডিসেম্বর, ২০১৮) ভিক্টোরিয়ার মেলবোর্নে জন্মগ্রহণকারী প্রথিতযশা অস্ট্রেলীয় আন্তর্জাতিক ক্রিকেটার ছিলেন। অস্ট্রেলিয়া ক্রিকেট দলের অন্যতম সদস্য ছিলেন। ১৯৬৩ সময়কালে সংক্ষিপ্ত সময়ের জন্যে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে অংশগ্রহণ করেছিলেন তিনি।

কলিন গেস্ট
কলিন গেস্ট.jpg
ব্যক্তিগত তথ্য
পূর্ণ নামকলিন আর্নেস্ট জন গেস্ট
জন্ম(১৯৩৭-১০-০৭)৭ অক্টোবর ১৯৩৭
মেলবোর্ন, ভিক্টোরিয়া, অস্ট্রেলিয়া
মৃত্যু৭ ডিসেম্বর ২০১৮(2018-12-07) (বয়স ৮১)
ভিক্টোরিয়া, অস্ট্রেলিয়া
ব্যাটিংয়ের ধরনডানহাতি
বোলিংয়ের ধরনডানহাতি ফাস্ট
আন্তর্জাতিক তথ্য
জাতীয় পার্শ্ব
একমাত্র টেস্ট১১ জানুয়ারি ১৯৬৩ বনাম ইংল্যান্ড
খেলোয়াড়ী জীবনের পরিসংখ্যান
প্রতিযোগিতা টেস্ট এফসি
ম্যাচ সংখ্যা ৩৬
রানের সংখ্যা ১১ ৯২২
ব্যাটিং গড় ১১.০০ ১৯.২০
১০০/৫০ ০/০ ০/৩
সর্বোচ্চ রান ১১ ৭৪
বল করেছে ১৪৪ ৬,৬৪৫
উইকেট ১১৫
বোলিং গড় ২৭.১৩
ইনিংসে ৫ উইকেট
ম্যাচে ১০ উইকেট
সেরা বোলিং ৭/৯৫
ক্যাচ/স্ট্যাম্পিং ০/– ১৩/–
উৎস: ইএসপিএনক্রিকইনফো.কম, ২৪ জানুয়ারি ২০১৯

ঘরোয়া প্রথম-শ্রেণীর অস্ট্রেলীয় ক্রিকেটে ভিক্টোরিয়া ও ওয়েস্টার্ন অস্ট্রেলিয়া দলের প্রতিনিধিত্ব করেছিলেন। দলে মূলতঃ ফাস্ট মিডিয়াম বোলার হিসেবে খেলতেন। এছাড়াও, বামহাতে নিচেরসারিতে কার্যকরী ব্যাটিং করতেন কলিন গেস্ট

ঘরোয়া ক্রিকেটসম্পাদনা

১৯৫৮-৫৯ মৌসুম থেকে ১৯৬৩-৬৪ মৌসুম পর্যন্ত ভিক্টোরিয়া ও ১৯৬৬-৬৭ মৌসুমে ওয়েস্টার্ন অস্ট্রেলিয়ার পক্ষে খেলেছিলেন। ১৯৬২-৬৩ মৌসুমে কলিন গেস্ট সেরা বোলিং পরিসংখ্যান দাঁড় করান। মেলবোর্নে ভিক্টোরিয়ার সদস্যরূপে ওয়েস্টার্ন অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে ইনিংসে ৭/৯৫ ও খেলায় ১০/১৩৪ পান।[১]

জাতীয় দল থেকে উপেক্ষিত হলেও আন্তঃরাজ্যীয় পর্যায়ের খেলায় চমৎকার ক্রীড়াশৈলী অব্যাহত রাখেন। ১৮.২৮ গড়ে ৩৯ উইকেট নিয়ে শেফিল্ড শিল্ডে শীর্ষস্থানে দখল করেন ও প্রতিযোগিতার শিরোপা বিজয়ে ভিক্টোরিয়াকে প্রভূতঃ সহায়তা করেন।[২]

টেস্ট ক্রিকেটসম্পাদনা

১৯৬২-৬৩ মৌসুমে ইংল্যান্ড দল অস্ট্রেলিয়া গমন করে। সিডনিতে অনুষ্ঠিত অ্যাশেজ সিরিজের তৃতীয় টেস্টে অংশগ্রহণ করেছিলেন তিনি।[৩] এটিই তার একমাত্র টেস্টে অংশগ্রহণ ছিল।

কেন ম্যাকে’র পরিবর্তে টেস্টে দলে আনীত হন তিনি। তবে, অ্যালান ডেভিডসনগার্থ ম্যাকেঞ্জিকে সহায়তাকল্পে তাকে ব্যবহার করা হয়েছিল। অস্ট্রেলিয়া ঐ টেস্টে জয় পেয়েছিল। দশম উইকেট জুটিতে ব্যারি শেফার্ডের সাথে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করেন। খেলায় কোন উইকেট লাভে করতে পারেননি তিনি ও কেন ম্যাকেকে দলে ফিরিয়ে আনার পরিপ্রেক্ষিতে দলের বাইরে অবস্থান করতে হয়।[৪]

অবসরসম্পাদনা

১৯৬৩-৬৪ মৌসুমে তার খেলার মান বেশ দূর্বল পর্যায়ে চলে যায়। ফলশ্রুতিতে ওয়েস্টার্ন অস্ট্রেলিয়ায় স্থানান্তরিত হন। ওয়েস্টার্ন অস্ট্রেলিয়ার পক্ষে প্রথম খেলাতেই অপরাজিত ২৬ ও ৭৪ রান তুলেন। ৭৪ রানের সংগ্রহটি প্রথম-শ্রেণীর ক্রিকেটে তার ব্যক্তিগত সর্বোচ্চ ছিল। এ পর্যায়ে ব্যাট হাতে আরও কিছু মূল্যবান অবদান রাখলেও বোলিংয়ে তেমন কিছুই করতে পারেননি।[৫] গার্থ ম্যাকেঞ্জি, স্যাম গ্যানন, লরি মেইন, ইয়ান ব্রেশজিম হাবলের ন্যায় প্রথিতযশা পেস বোলারদের কাছ থেকে শক্ত প্রতিদ্বন্দ্বিতার মুখোমুখি হন। ঐ মৌসুম শেষে আর কোন প্রথম-শ্রেণীর খেলায় অংশ নেননি কলিন গেস্ট।

৮ ডিসেম্বর, ২০১৮ তারিখে মেলবোর্ন হাসপাতালে ৮১ বছর বয়সে কলিন গেস্টের দেহাবসান ঘটে।[৬]

তথ্যসূত্রসম্পাদনা

  1. "Victoria v Western Australia 1962-63"Cricinfo। সংগ্রহের তারিখ ১০ ডিসেম্বর ২০১৮ 
  2. T. L. Goodman, "Australian inter-state matches", Wisden 1964, pp. 835–57.
  3. "Colin Guest, Australia pacer, passes away"International Cricket Council। সংগ্রহের তারিখ ৯ ডিসেম্বর ২০১৮ 
  4. Leslie Smith, "M.C.C. Team in Australia and New Zealand, 1962-63", Wisden 1964, pp. 798–834.
  5. The Oxford Companion to Australian Cricket, Oxford, Melbourne, 1996, p. 225.
  6. cricket.com.au (৯ ডিসেম্বর ২০১৮)। "Tweet"Twitter.com (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ৯ ডিসেম্বর ২০১৮ 

বহিঃসংযোগসম্পাদনা