উইলফ ম্যাকগিনেস

উইলফ ম্যাকগিনেস (জন্ম অক্টোবর ২৫, ১৯৩৭, ম্যানচেস্টার, ইংল্যান্ড) ছিলেন একজন ইংরেজ ফুটবল খেলোয়াড় ও ম্যানেজার যিনি ইংল্যান্ডের পক্ষে দু'বার আন্তর্জাতিক খেলায় অংশ নিয়েছেন। স্যার ম্যাট বাজবির কাছ থেকে দায়িত্ব নিয়ে ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডের ম্যানেজার হবার কারণেই তিনি মূলত পরিচিত। তার ছেলে পল ম্যাকগিনেস বর্তমানে ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডের অণুর্ধ-১৮ দলের ম্যানেজার এবং ১৭-২১ বছর বয়সীদের জন্য পরিচালিত উয়ুথ অ্যাকাডেমীর সহকারী পরিচালক।

খেলোয়াড়ী জীবনসম্পাদনা

খেলোয়াড় হিসেবে তিনি ম্যানচেস্টার, ল্যাঙ্কাশায়ার ও ইংল্যান্ডকে বিদ্যালয় পর্যায়ে নেতৃত্ব দিয়েছেন এবং ১৯৫৩ সালের জানুয়ারিতে ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডের হয়ে চুক্তিবদ্ধ হয়েছেন। ১৯৫৩ সালের ৮ অক্টোবর উভসের বিপক্ষে ১৭ বছর বয়সে তার অভিষেক ঘটে। দলে তার অবস্থান নিয়ে প্রচন্ড প্রতিযোগিতা ছিল, তবে তিনি ১৯৫৬ সালের লীগ শিরোপার মেডেলের ভাগীদার হবার যোগ্য বিবেচিত হয়েছিলেন।

১৯৫৮ সালে মিউনিখ বিমান দুর্ঘটনার সময় তিনি ইউনাইটেডের খেলোয়াড় ছিলেন তবে দুর্ঘটনার আঘাতে তিনি পরে আর খেলতে পারেননি। ভাঙ্গা পায়ের জন্য মাত্র ২২ বছর বয়সেই তার ক্যারিয়ার শেষ হয়ে যায়।

ব্যবস্থাপনা ক্যারিয়ারসম্পাদনা

তিনি ইউনাইটেডের সাথে যুক্ত থাকেন এবং ১৯৬৯ সালে স্যর ম্যাট বাজবি অবসর নেয়ার পর রিজার্ভ দলের ম্যানেজার থেকে তাকে পদোন্নতি দিয়ে মূল একাদশের ম্যানেজার করা হয়। ৩১ বছর বয়সে ম্যানেজার হবার পর তার প্রথম মৌসুম ছিল ব্যর্থতায় ভরপুর। যদিও তিনি যথেষ্ট আত্মবিশ্বাসী এবং পরিনত ছিলেন, তবে কিংবদন্তিতুল্য বাজবির উত্তরসূরী হওয়া চাট্টিখানি ব্যপার ছিলনা। স্যার ম্যাট বাজবির ছায়াতলে ইউনাইটেড সম্ভাব্য সকল ট্রফিই জিতেছিল কিন্তু দুর্ভাগ্যজনকভাবে ম্যাকগিনেসের নেতৃত্বে দলের প্রধান খেলোয়াড়, , ক্রেরান্ড ও নবি স্টাইলেসের ফর্ম খারাপ হয়ে পড়ে এবং জর্জ বেস্টের সমস্যা দেখা দেয়।

বলা হত যে ম্যাকগিনেস খেলোয়াড়দের খুবই ঘনিষ্ঠ ছিলেন এবং প্রয়োজনের সময় কুড়াল চালাতেও তিনি অদ্ভুত রকমের নির্দয় ছিলেন। দলের অবস্থা নাজুক হয়ে পড়লে স্যার বাজবি ছয় মাস সাধারণ ম্যানেজার হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন এবং শেষমেশ ম্যাকগিনেসকে তার পুরানো কোচিং-এর দায়িত্ব দেয়া হয়। কৌতুক করে বলা হত যে ম্যাকগিনেস চার মৌসুম ম্যানেজার ছিলেন - শরৎ, শীত, বসন্ত ও গ্রীষ্ম মৌসুমের!

অতিরিক্ত চাপের কারণে তার মাথায় টাক পড়ে এবং তিনি এরিস ফুটবল ক্লাবইয়র্ক সিটি ফুটবল ক্লাব এর ম্যানেজার হন। ইয়র্কে তার মৌসুম ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডে কাটানো মৌসুম থেকেও খারাপ ছিল। তিনি এমন একটি দলের ম্যানেজার হয়েছিলেন যেটি সদ্য সর্বোচ্চ লীগ বিজয়ের রেকর্ড করেছে এবং এই দলকেই তিনি রেলিগেশনে ফেলে দিয়েছেন। এ দলে তিনি দু মৌসুম দায়িত্ব পালন করে পরের মৌসুমের মাঝামাঝি হাল সিটি এর সহকারী ম্যানেজার হন এবং পরে বারি ফুটবল ক্লাবের কোচিং কর্মকর্তা হিসেবে কাজ করেন।

জীবনীসম্পাদনা

ব্যাবস্থাপনার পরিসংখ্যানসম্পাদনা

দল জাতি থেকে পর্যন্ত রেকর্ড
খেলা জয় পরাজয় ড্র জয়ের হার %
ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড[১]   আগস্ট ১০ ১৯৭০ ডিসেম্বর ২৮ ১৯৭০ ২৩ ২১.৭৩
ইয়র্ক সিটি   ফেব্রুয়ারি ১৩ ১৯৭৫ অক্টোবর ২০ ১৯৭৭ ১২০ ২৭ ৬৩ ৩০ ২২.৫০

বহিঃসংযোগসম্পাদনা

ক্রীড়া অবস্থান
পূর্বসূরী
স্যার ম্যাট বাজবি
ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড ম্যানেজার
১৯৬৯-১৯৭০
উত্তরসূরী
স্যার ম্যাট বাজবি

তথ্যসূত্রসম্পাদনা

  1. "Manchester United Managers: Wilf McGuinness"। StretfordEnd.co.uk। সংগ্রহের তারিখ ২১ ডিসেম্বর ২০১১