ইমামবাড়া
Muharram mourning, Hussainia TZ.jpg
তানজানিয়ার দারুস সালামে একটি ইমামবাড়া
Arabic حسينية (ḥusayniyya)
مأتم (ma'tam)
Hindi इमामबाड़ा (imāmbāṛā)

आशुरख़ाना (āshurkhānā)

Bengali ইমামবাড়া (imambaṛa)
Persian حسینیه (ḥoseyniye)
Urdu امام باڑہ (imāmbāṛā)
امام بارگاہ (imāmbārgāh)
عاشور خانہ (āshurxānā)
حسينيہ (huseyniya)

ইমামবাড়া (উর্দু: امام باڑہ‎‎), ইমামবারগাহ (ফার্সি: امام بارگاہ‎‎), আশুরখানা (উর্দু: عاشور خانہ‎‎) বা হোসেনিয়া (ফার্সি: حسینیه‎‎; আরবি: حسينية‎‎) হল আশুরার শোকপালনের উদ্দেশ্যে নির্মিত শিয়া মুসলিম সম্মেলন ভবন।[১]

অর্থসম্পাদনা

ইমামবাড়া শব্দটির আক্ষরিক অর্থ ইমামের বাড়ি। কিন্তু স্থাপত্য কলায় ইমামবাড়া হলো শিয়া মিলনায়তন।

ব্যবহারসম্পাদনা

এটি কোনো উপানসালয় (মসজিদ) নয়, তবে এখানে নামাজ আদায়, মিলাদ মাহফিলের ব্যবস্থা করা হয়ে থাকে থাকে।

সাজ-সজ্জাসম্পাদনা

ইমামবাড়ার প্রধান কক্ষে তাজিয়া স্থাপন করা হয়। এতে সাধারণতঃ দু'টি তাজিয়া থাকে, যার একটি ইমাম হাসান (রা.)-এর এবং অপরটি ইমাম হোসেন (রা.)-এর; ক্ষেত্রবিশেষে একাধিক তাজিয়াও রাখা হয়। এই তাজিয়াগুলোর ওপর শামিয়ানা টানিয়ে দামি গিলাফ দিয়ে ঢেকে রাখা হয়। নিয়মানুসারে, ইমাম হাসান (রা.)-এর তাজিয়া সবুজ ও ইমাম হোসেন (রা.)-এর তাজিয়ায় লাল গিলাফ ব্যবহার করা হয়। এ ছাড়া ইমামবাড়ার বিভিন্ন কক্ষের দেয়ালে কারবালা ময়দানের মানচিত্র, যুদ্ধক্ষেত্রের কাল্পনিক দৃশ্য, ঢাল-তলোয়ার, জিঞ্জির—এসব নানা সরঞ্জাম টানিয়ে রাখা হয়।[২]

হোসেনী দালান ইমামবাড়ার চিত্রসম্পাদনা

তথ্যসূত্রসম্পাদনা

  1. Juan Eduardo Campo (১ জানুয়ারি ২০০৯)। Encyclopedia of Islam। Infobase Publishing। পৃষ্ঠা 318–। আইএসবিএন 978-1-4381-2696-8 
  2. http://www.prothomalo.com/print/news/26919[স্থায়ীভাবে অকার্যকর সংযোগ]