ইউনাইটেড সুগার মিলস লিমিটেড

চিনি পরিশোধন কল

ইউনাইটেড সুগার মিলস লিমিটেড বাংলাদেশের নারায়ণগঞ্জ জেলায় অবস্থিত একটি ভারী শিল্প প্রতিষ্ঠান।[২] এটি বাংলাদেশের অন্যতম প্রধান একটি চিনি পরিশোধনকারী প্রতিষ্ঠান;[৩] স্থানীয় বাজারে এই কোম্পানির পণ্যটি ফ্রেশ সুগার (Fresh Sugar) নামে প্রচলিত।[৪]

ইউনাইটেড সুগার মিলস লিমিটেড
United Sugar Mills Ltd.
স্থানীয় নাম
ইউনাইটেড সুগার মিলস
ধরনবেসরকারি
শিল্পচিনি শিল্প
প্রতিষ্ঠাকাল২০০৫; ১৭ বছর আগে (2005)
সদরদপ্তর,
বাণিজ্য অঞ্চল
বিশ্বব্যাপী
প্রধান ব্যক্তি
মোস্তফা কামাল, ব্যবস্থাপনা পরিচালক[১]
পণ্যসমূহচিনি
ওয়েবসাইটwww.meghnagroup.biz/usml

অবস্থানসম্পাদনা

বাংলাদেশের মধ্যাঞ্চলের ঢাকা বিভাগের নারায়ণগঞ্জ জেলার সোনারগাঁওয়ের মেঘনা ঘাট এলাকায় এই শিল্প কমপ্লেক্সটি অবস্থিত।[৫]

ইতিহাসসম্পাদনা

২০০৫ সালে এই শিল্প প্রতিষ্ঠানটি স্থাপিত হয়।[৪]

অবকাঠামোসম্পাদনা

এই বৃহদায়তন শিল্প-কমপ্লেক্সটি চিনি পরিশোধন কারখানা, বর্জ্য পরিশোধনাগার, অফিস ও আবাসন ভাবনের সমন্বয়ে গঠিত।

উৎপাদন ক্ষমতাসম্পাদনা

এই মিলটি আমদানীকৃত র' সুগার থেকে দৈনিক ২,৫০০ মে. টন এবং বার্ষিক ৭,৫০,০০০ মেট্রিক টন পরিশোধিত চিনি উৎপাদনে সক্ষম।[১][৪][৬]

উৎপাদিত পণ্যসম্পাদনা

ইউনাইটেড সুগার মিলস বিদেশ থেকে অপরিশোধিত চিনি ('র সুগার) আমদানী করে তা পরিশোধন (রিফাইন্ড) করে প্যাকেটজাত করার মাধ্যমে বাজারজাত করে থাকে এবং স্থানীয় চাহিদার ২১ শতাংশ এককভাবে পূর্ণ করে।[৭]

আরও দেখুনসম্পাদনা

তথ্যসূত্রসম্পাদনা

  1. "Private sugar refiners irked by curbs on imports"ডেইলি স্টার, ২৬ মার্চ ২০১৫ (ইংরেজিতে)। সংগ্রহের তারিখ ২৬ জুলাই ২০১৫ 
  2. "রাষ্ট্রায়ত্ত ১৫ চিনিকলে লোকসান ৫২৮ কোটি ২৭ লাখ টাকা"দৈনিক নয়া দিগন্ত, ১৯ সেপ্টেম্বর ২০১৪। ৩০ জুন ২০১৬ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১৮ জুলাই ২০১৫ 
  3. "বাজারে অস্থিতিশীলতা রোধে চিনি আমদানিতে কোটা"দৈনিক বণিক বার্তা, ২৫ মার্চ ২০১৫। ২০১৫-০৭-০২ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১৭ জুলাই ২০১৫ 
  4. "কোম্পানি প্রোফাইল"মেঘনা গ্রুপ, ২০১৩। ৪ সেপ্টেম্বর ২০১৫ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২১ জুলাই ২০১৫ 
  5. "নারায়ণগঞ্জে মোনেম সুগার রিফাইনারিকে ২৩ লাখ টাকা জরিমানা"দৈনিক জনকন্ঠ, ১৪ আগস্ট ২০১২। ২০১৬-০৩-০৫ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১৮ জুলাই ২০১৫ 
  6. "চিনি রপ্তানির তোড়জোড়"দৈনিক যায় যায় দিন। সংগ্রহের তারিখ ২১ জুলাই ২০১৫ 
  7. "রমজানে চিনির দাম বাড়ানোর পাঁয়তারা"দৈনিক আলোকিত বাংলাদেশ, ০২ জুন ২০১৩। সংগ্রহের তারিখ ২১ জুলাই ২০১৫ [স্থায়ীভাবে অকার্যকর সংযোগ]

বহি:সংযোগসম্পাদনা