আনন্দচন্দ্র আগরওয়ালা

আনন্দ চন্দ্র আগরওয়ালা( ইংরেজি: Ananda Chandra Agarwala; অসমীয়া: আনন্দ চন্দ্র আগরৱালা) অসমের প্রসিদ্ধ কবি,অনুবাদক, প্রশাশক, ইতিহাসবিজ্ঞ ও লেখক ছিলেন। জোনাকি যুগের অসমীয়া লেখকের মধ্যে তিনি অন্যতম স্থানের অধিকারী ছিলেন। তিনি “ভাঙনি কোওর” ও “বিহগি কবি” নামেও পরিচিত ছিলেন। আনন্দ চন্দ্র আগরওয়ালা ১৯১৬ সনে রায় সাহাব ও ১৯২১ সনে রায় বাহাদুর উপাধি পেয়েছিলেন। তিনি তেজপুর পৌরসভার সভাপতি ছিলেন। ছাত্র জীবনে তিনি বন্ধুদের সহযোগিতায় “ ধর্ম সঙ্গিত” নামক গ্রন্থের রচনা করেছিলেন। ১৯০৬ সনে তিনি “পুলিশ মেনুয়্যাল” রচনা করেছিলেন।[২] অসমীয়া সাহিত্যে যথেষ্ট অবদান থাকার জন্য ১৯৩৪ সনে মঙ্গলদৈয়ে অনুষ্ঠিত অসম সাহিত্য সভার বার্ষিক অধিবেশনে তিনি সভাপতির পদে নির্বাচিত হয়েছিলেন। তিনি অসমীয়া ভাষা উন্নতি সাধনী সভার সক্রিয় সদস্য ও জোনাকি পত্রিকার নিয়মিত লেখক ছিলেন।[৩]

আনন্দ চন্দ্র আগরওয়ালা
Ananda Chandra Agarwala.jpg
জন্ম৫ সেপ্তেম্বর, ১৮৭৪
বরঙাবারী, তেজপুর, শোনিতপুর, অসম
মৃত্যু১৯৪০[১]

জন্ম ও শিক্ষাসম্পাদনা

১৮৭৪ সনে ভারতের অসম রাজ্যের শোনিতপুর জেলার অন্তর্গত তেজপুরের বরাঙাবারী অঞ্চলে আনন্দ চন্দ্র আগরওয়ালার জন্ম হয়েছিল।[৪] পিতার নাম কাশীরাম আগরওয়ালা। তিনি রাঙাবারী বিদ্যালয় ও তেজপুরের সরকারি উচ্চতর মাধ্যমিক বিদ্যালয় ও কলকাতার মেট্রপলিটান কলেজ থেকে শিক্ষা গ্রহণ করেছিলেন। কলকাতায় থাকাকালীন অবস্থায় তিনি অসমীয়া ভাষা উন্নতি সাধনী সভার সক্রিয় সদস্য ও জোনাকি পেপারের নিয়মিত লেখক ছিলেন। সাহিত্য চর্চায় ব্যাস্ত থাকার জন্য তিনি ডিগ্রী অসমাপ্ত করে অসমে চলে এসেছিলেন।

কর্মজীবনসম্পাদনা

শিবসাগর উচ্চতর মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে তিনি শিক্ষকের পদে নিযুক্তি ছিলেন। তারপর তিনি সাব-ইন্সপেক্টর, ইন্সপেক্টর ও শিলচর আরক্ষী প্রশিক্ষন কেন্দ্রের অধ্যক্ষ ছিলেন। গুয়াহাটি ও ডিব্রুগড়ের সহ আরক্ষা অধীক্ষকের পদেও তিনি নিযুক্তি ছিলেন। ১৯৩০ সনে তিনি আরক্ষী অধীক্ষকের পদ থেকে অবসর গ্রহণ করেন ও জোনাকি এবং বিজুলি পত্রিকার সঙ্গে জড়িত হয়ে অসমীয়া সাহিত্যেকে যথেষ্ট অবদান দেন। ১৯৪০ সালে তেজপুরে আনন্দ চন্দ্র আগরওয়ালার মৃত্যু হয়েছিল।

সাহিত্যকর্মসম্পাদনা

প্রবন্ধসম্পাদনা

  • An Account of Assam
  • Aspects of history and culture[৫]
  • "গোয়ালপাড়ার পুরণি বিবরণ"
  • কোমল পাঠ (১৯১০)
  • আদি পাঠ" (১৯২০)[২]

কবিতা সংকলনসম্পাদনা

  • জিলিঙনি [১],
  • পানেসৈ,
  • সুখর ঠাই
  • দেবকন্যা মানবী বেশেরে
  • তই
  • বলম
  • আদি মৌলিক কবিতা
  • জীবন সঙ্গীত
  • চহা আ্রু পণ্ডিত
  • যোগী

তথ্যসূত্রসম্পাদনা

  1. Sisir Kumar Das (১ জানুয়ারি ১৯৯৫)। A History of Indian Literature 1911-1956: Struggle for Freedom: Triumph and Tragedy। Sahitya Akademi। পৃষ্ঠা 549–। আইএসবিএন 978-81-7201-798-9। সংগ্রহের তারিখ ১৮ ফেব্রুয়ারি ২০১৩ 
  2. "Eminent Personalities of Assam"। creative.sulekha.com। সংগ্রহের তারিখ ফেব্রুয়ারি ১৮, ২০১৩ 
  3. ত্রিদিপ গোস্বামী। পদ্মনাথ গোহাঞি বরুৱার পরা রংবং তেরাঙলৈ। অনন্ত হাজরিকা, বনলতা প্রকাশণ। পৃষ্ঠা ৫৪, ৫৫। 
  4. Swati Mitra (২০১১)। Assam Travel Guide। Goodearth Publications। পৃষ্ঠা 75–। আইএসবিএন 978-93-80262-04-8। সংগ্রহের তারিখ ১৮ ফেব্রুয়ারি ২০১৩ 
  5. Ānandacandra Āgarawālā; Rabin Dev Choudhury (১৯৯১)। Aspects of history and culture: Ananda Chandra Agarwala commemoration volume। Ramanand Vidya Bhawan। সংগ্রহের তারিখ ১৮ ফেব্রুয়ারি ২০১৩