আজিজুর রহমান (গীতিকার)

বাংলাদেশী কবি এবং গীতিকার

আজিজুর রহমান (১৮ জানুয়ারি ১৯১৭ - ১২ সেপ্টেম্বর ১৯৭৮) ছিলেন একজন বাংলাদেশী কবি এবং গীতিকার। তিনি ১৯৭৯ সালে একুশে পদক লাভ করেন।[১][২]

আজিজুর রহমান
আজিজুর রহমান (গীতিকার).jpg
জন্ম(১৯১৭-০১-১৮)১৮ জানুয়ারি ১৯১৭
হরিপুর, কুষ্টিয়া, বাংলাদেশ
মৃত্যু১২ সেপ্টেম্বর ১৯৭৮(1978-09-12) (বয়স ৬১)
সমাধিস্থলবাংলাদেশ
পেশালেখক, গীতিকার
ভাষাবাংলা
জাতীয়তাবাংলাদেশী
নাগরিকত্ব ব্রিটিশ ভারত (১৯৪৭ সাল পর্যন্ত)
 পাকিস্তান (১৯৭১ সালের পূর্বে)
 বাংলাদেশ
উল্লেখযোগ্য পুরস্কারএকুশে পদক (১৯৭৯)

প্রারম্ভিক জীবনসম্পাদনা

আজিজুর রহমান ১৯১৭ সালের ১৮ জানুয়ারি তৎকালীন পূর্ববঙ্গের (বর্তমান বাংলাদেশ) কুষ্টিয়া সদর উপজেলার হাটশ হরিপুর গ্রামে জমিদার পরিবারে জন্মগ্রহণ করেন।[৩] তার পিতার নাম বশির উদ্দিন প্রামানিক ও মাতার নাম সবুরুন নেছা। শিশুবয়সে তার পিতা মৃত্যুবরণ করার পর তার শিক্ষাজীবনের ইতি ঘটে। এ সময় তিনি স্থানীয় যাত্রা ও নাটকের দলে যোগদান করেন।

কর্মজীবনসম্পাদনা

১৯৩৮ সাল থেকে আজিজুর রহমান তৎকালীন বিভিন্ন পত্রিকাতে তার লেখা কবিতা ও গান পাঠানো শুরু করেন। এসময় সওগাত, মোহাম্মদী, আজাদ, নবশক্তি, আনন্দবাজার, ভারতবর্ষ, বুলবুল, শনিবারের চিঠি পত্রিকাসমূহে নিয়মিতভাবে তার সাহিত্য বিষয়ক লেখা প্রকাশিত হত। কুষ্টিয়াতে তিনি একটি নাট্যদল গঠন করেন এবং এতে অভিনয়ও করেন।[৪] দলটি শিলাইদহের ঠাকুর বাড়িতে নাটক মঞ্চস্থ করত।[৩]

১৯৫৪ সালে আজিজুর রহমান ঢাকা বেতারে (বর্তমান বাংলাদেশ বেতার) নিজস্ব শিল্পী হিসেবে যোগদান করেন। ১৯৬০ সালে আলাপনী শীর্ষক একটি কিশোর মাসিক পত্রিকার সম্পাদক হিসেবে কাজ করেন। ১৯৬৪ সাল থেকে ১৯৭০ সাল পর্যন্ত তিনি দৈনিক পয়গামের সাহিত্য বিভাগের সম্পাদক ছিলেন।[৩]

উল্লেখযোগ্য কর্মসম্পাদনা

গানসম্পাদনা

আজিজুর রহমান দুই হাজারের অধিক গান রচনা করেছেন।[৩] তার জনপ্রিয় গানগুলোর মধ্যে উল্লেখযোগ্য-

  • ভবের নাট্যশালায় মানুষ চেনা দায় রে,
  • কারো মনে তুমি দিও না আঘাত, সে আঘাত লাগে কাবার ঘরে ,
  • আকাশের ঐ মিটি মিটি তারার সাথে কইবো কথা, নাই বা তুমি এলে,
  • পৃথিবীর এই পান্থশালায়, হায় পথ ভোলা কবি,
  • আমি রূপনগরের রাজকন্যা রূপের জাদু এনেছি,
  • বুঝি না মন যে দোলে বাঁশিরও সুরে,
  • দেখ ভেবে তুই মন, আপন চেয়ে পর ভালো,
  • পলাশ ঢাকা কোকিল ডাকা আমারই দেশ ভাই রে প্রভৃতি।

গ্রন্থসম্পাদনা

  • ডাইনোসরের রাজ্যে (১৯৬২)
  • জীবজন্তুর কথা (১৯৬২)
  • ছুটির দিনে (১৯৬৩)
  • এই দেশ এই মাটি (১৯৭০)
  • উপলক্ষের গান (১৯৭০)

কবিতাসমুহসম্পাদনা

তিনি প্রায় ৩০০-এর উপরে কবিতা রচনা করেছেন। তার মধ্যে নৈশনগরী, মহানগরী, সান্ধ্যশহর, ফেরিওয়ালা, ফুটপাত, তেরশপঞ্চাশ, সোয়ারীঘাটের সন্ধ্যা, বুড়িগঙ্গার তীরে, পহেলা আষাঢ়, ঢাকাই রজনী, মোয়াজ্জিন, পরানপিয়া, উল্লেখযোগ্য।

ব্যক্তিগত জীবনসম্পাদনা

আজিজুর রহমান ১৯৩১ সালে ঝিনাইদহ জেলার শৈলকুপা উপজেলার ফুলহরি গ্রামের ফজিলাতুন নেছার সাথে বিবাহ বন্ধনে আবদ্ধ হন। এই দম্পতির ৩ ছেলে ৪ মেয়ে রয়েছে। ১৯৭৮ সালের ৯ সেপ্টেম্বর আজিজুর রহমান মৃত্যুবরণ করেন।

তথ্যসূত্রসম্পাদনা

  1. একুশে পদকপ্রাপ্ত সুধীবৃন্দ ও প্রতিষ্ঠান (PDF)সংস্কৃতি বিষয়ক মন্ত্রণালয়। পৃষ্ঠা ১৬। ১২ সেপ্টেম্বর ২০১৪ তারিখে মূল (PDF) থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২৯ জুন ২০১৪ 
  2. "স্ম র ণ : কবি আজিজুর রহমান"দৈনিক নয়াদিগন্ত। সংগ্রহের তারিখ ১৬ মার্চ ২০১৯ 
  3. "রহমান, আজিজুর"বাংলাপিডিয়া। সংগ্রহের তারিখ ১৬ মার্চ ২০১৯ 
  4. "কবি ও গীতিকার আজিজুর রহমানের জন্মদিন"বাংলানিউজ২৪.কম। সংগ্রহের তারিখ ১৬ মার্চ ২০১৯