অ্যান্ড্রু জোন্স (ক্রিকেটার)

নিউজিল্যান্ডীয় ক্রিকেটার

অ্যান্ড্রু হাওয়ার্ড জোন্স (ইংরেজি: Andrew Jones; জন্ম: ৯ মে, ১৯৫৯) ওয়েলিংটনে জন্মগ্রহণকারী সাবেক নিউজিল্যান্ডীয় ক্রিকেটারনিউজিল্যান্ড ক্রিকেট দলের অন্যতম সদস্য হিসেবে ১৯৮৭ থেকে ১৯৯৫ সালের মধ্যে টেস্টএকদিনের আন্তর্জাতিকে অংশগ্রহণ করেছেন।

অ্যান্ড্রু জোন্স
ব্যক্তিগত তথ্য
জন্ম (1959-05-09) মে ৯, ১৯৫৯ (বয়স ৬১)
ওয়েলিংটন, নিউজিল্যান্ড
ব্যাটিংয়ের ধরনডানহাতি
বোলিংয়ের ধরনডানহাতি অফ-ব্রেক
আন্তর্জাতিক তথ্য
জাতীয় পার্শ্ব
খেলোয়াড়ী জীবনের পরিসংখ্যান
প্রতিযোগিতা টেস্ট ওডিআই
ম্যাচ সংখ্যা ৩৯ ৮৭
রানের সংখ্যা ২৯২২ ২৭৮৪
ব্যাটিং গড় ৪৪.২৭ ৩৫.৬৯
১০০/৫০ ৭/১১ -/২৫
সর্বোচ্চ রান ১৮৬ ৯৩
বল করেছে ৩২৮ ৩০৬
উইকেট
বোলিং গড় ১৯৪.০০ ৫৪.০০
ইনিংসে ৫ উইকেট
ম্যাচে ১০ উইকেট -
সেরা বোলিং ১/৪০ ২/৪২
ক্যাচ/স্ট্যাম্পিং ২৫/- ২৩/-
উৎস: ক্রিকইনফো, ৩ মার্চ ২০১৬

ঘরোয়া ক্রিকেটে সেন্ট্রাল ডিস্ট্রিক্টস স্ট্যাগস, ওতাগো ভোল্টস এবং ওয়েলিংটন ফায়ারবার্ডস - এ তিনটি রাজ্য দলে খেলেছেন।

প্রারম্ভিক জীবনসম্পাদনা

অ্যান্ড্রু জোন্স ১৯৭২ থেকে ১৯৭৬ সাল পর্যন্ত নেলসন কলেজে অধ্যয়ন করেন। কলেজে থাকাকালীন বিদ্যালয়ের প্রথম একাদশ ক্রিকেট দলে চার বছর খেলেছেন। ১৯৭৫ সালে সেরা অল-রাউন্ড ক্রীড়াবিদ হওয়ার প্রেক্ষিতে উড কাপ পুরস্কার লাভ করেন।[১]

খেলোয়াড়ী জীবনসম্পাদনা

১৬ এপ্রিল, ১৯৮৭ তারিখে সাতাশ বছর বয়সে নিউজিল্যান্ডের পক্ষে তার টেস্ট অভিষেক ঘটে। সচরাচর তিন নম্বর ব্যাটসম্যান হলেও মাঝে-মধ্যেই টেস্ট ইনিংসে চার নম্বরে মাঠে নামতেন। তার খেলা ৩৯ টেস্টের মধ্যে নিউজিল্যান্ড মাত্র ছয়টি টেস্টে জয়লাভে সক্ষম হয়। তার ব্যাটিংয়ের ধরন শর্ট ডেলিভারি বেশ কার্যকর ছিল।

ক্রিজে টিকে গেলে তাকে আউট করা বেশ দুঃসাধ্য ছিল। তার সাতটি সেঞ্চুরির মধ্যে পাঁচটিই ১৪০ বা ততোধিক রানের। উপমহাদেশের দল ভারতের বিপক্ষে ৫০.১৩ গড়ে ৪০১ ও শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে ৬২.৫০ গড়ে ৬২৫ রান করেছেন। ১৯৯১ সালে ওয়েলিংটনে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে নিজস্ব সর্বোচ্চ ১৮৬ রান করেন। তন্মধ্যে, মার্টিন ক্রোকে সাথে নিয়ে ৪৬৭ রানের জুটি গড়েন যা টেস্ট ক্রিকেটের ইতিহাসে যে-কোন দলের বিপক্ষে যে-কোন জুটিতে টেস্ট রেকর্ড হিসেবে স্বীকৃত ছিল ও ২০০৯ সাল পর্যন্ত তৃতীয় সর্বোচ্চ রানের জুটি।[২] এ ইনিংসের পর পরবর্তী দুই টেস্টেও ১২২ ও অপরাজিত ১০০* রান সংগ্রহ করেন। এরফলে একমাত্র নিউজিল্যান্ডীয় হিসেবে ধারাবাহিকভাবে তিনটি শতক হাঁকান।

৮৭টি একদিনের আন্তর্জাতিকে ৩৫.৬৯ গড় রানের অধিকারী জোন্স সেঞ্চুরি করতে সক্ষমতা দেখাননি। তার সর্বোচ্চ ৯৩ রান আসে শারজায়, বাংলাদেশের বিপক্ষে।

তথ্যসূত্রসম্পাদনা

  1. Nelson College Old Boys' Register, 1856–2006, 6th edition
  2. "Test matches – Highest partnerships for any wicket"CricInfo। সংগ্রহের তারিখ ৩০ মে ২০০৯ 

বহিঃসংযোগসম্পাদনা