কমরেড অমল সেন (জুলাই ১৯, ১৯১৩ - জানুয়ারি ১৭, ২০০৩) তেভাগা আন্দোলনের অন্যতম সক্রিয় নেতা, যিনি যশোর-নড়াইল এলাকার কৃষকদের সংগঠিত করেছিলেন। সাম্প্রদায়িকতা ও সাম্রাজ্যবাদের বিরুদ্ধে অমল সেনের দৃঢ় অবস্থান ছিল আজীবন। ১৯৭১ সালের মুক্তিযুদ্ধে তিনি সংগঠকের দায়িত্ব পালন করেন। পাকিস্তান আমলের ১৯ বছরই তাকে রাজবন্দি হিসেবে জেলে কাটাতে হয়। শারীরিক নিপীড়নও বন্দি অবস্থায় সহ্য করতে হয়।[১] ১৯৮০ সালে বাংলাদেশের ওয়ার্কার্স পার্টি গঠিত হলে তিনি দলের মহাসচিব নির্বাচিত হন।[২]

অমল সেন
জন্মজুলাই ১৯, ১৯১৩
মৃত্যুজানুয়ারি ১৭, ২০০৩
আন্দোলনতেভাগা আন্দোলন

অমল সেন ১৯১৩ সালের ১৯শে জুলাই নড়াইলের আফরা গ্রামে এক সম্ভ্রান্ত বৈদ্যব্রাহ্মণ জোতদার পরিবারে জন্মগ্রহণ করেন। ১৯৩৩ সালে খুলনার বিএল কলেজে অধ্যয়নরত অবস্থায় কমিউনিস্ট পার্টির সাথে যুক্ত হন। ১৯৩৪ সালে কমিউনিস্ট পার্টির সদস্যপদ লাভ করেন। সেই সময় তিনি উপলব্ধি করেন যে ব্রিটিশ সম্রাজ্যবাদবিরোধী জাতীয় মুক্তি সংগ্রামে বিজয়ী হতে হলে ব্যাপক কৃষক জনতাকে ঐক্যবদ্ধ করা ছাড়া সম্ভব নয়। ‘সমাজতান্ত্রিক আন্দোলন ও জনগণের বিকল্প শক্তি’ তার প্রকাশিত একটি গ্রন্থ।

তথ্যসূত্রসম্পাদনা

  1. অমল সেন, সমাজতান্ত্রিক আন্দোলন ও জনগণের বিকল্প শক্তি; ফ্ল্যাপের লেখা; কমরেড অমল সেন ট্রাস্ট, ঢাকা; জানুয়ারি, ২০০৪।
  2. "Death anniv of Amal Sen today"। Newagebd.com। ২০১৪-০১-১৭। ২০১৪-০২-০১ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২০১৪-০৬-২৪