প্রধান মেনু খুলুন

স্যামসাং গ্যালাক্সি এম ৩০ এস

স্যামসাংয়ের অ্যানড্রয়েড ভিত্তিক ফ্যাবলেট

স্যামসাং গ্যালাক্সি এম ৩০ এস হলো একটি অ্যান্ড্রয়েড ফ্যাবলেট যা স্যামসাং প্রথম প্রজন্মের গ্যালাক্সি এম সিরিজ লাইনআপের অংশ হিসেবে এবং স্যামসাং গ্যালাক্সি এম ৩০ এস এর পূর্বসূরি হিসেবে স্যামসাং ইলেক্ট্রনিক্স দ্বারা তৈরি হয়েছে। ফোনটি অ্যান্ড্রয়েড ৯ (পাই) দ্বারা চালিত, এছাড়াও এতে রয়েছে স্যামসাং এর মালিকানাধীন ওয়ান ইউআই পর্দা, ৬৪ বা ১২৮ গিগাবাইট এর অভ্যন্তরীণ সংগ্রহস্থল এবং ৬০০০ এমএএইচ সক্ষমতার লিথিয়াম-পলিমার ব্যাটারি। এম ৩০ এস ফোনটি ১৮ সেপ্টেম্বর ২০১৯ এ ছাড়া হয়।[৫][৬] এটিতে ৪৮ এমপি ওয়াইড এঙ্গেল ক্যামেরা, ৮ এমপি আল্ট্রা ওয়াইড এঙ্গেল ক্যামেরা এবং ৫ এমপি গভীরতার সেন্সর বিশিষ্ট একটি প্রধান ক্যামেরাত্রয়ের সংযোজন সমন্বিত হয়েছে।[৭][৮]

স্যামসাং গ্যালাক্সি এম ৩০ এস
ব্র্যান্ডস্যামসাং গ্যালাক্সি
প্রস্তুতকারকস্যামসাং ইলেক্ট্রনিক্স
স্লোগানগো মনস্টার
সিরিজস্যামসাং গ্যালাক্সি এম
সামঞ্জস্যপূর্ণ নেটওয়ার্ক
  • ওয়াই-ফাই
  • ২জি
  • ৩জি
  • এলটিই
সর্বপ্রথম মুক্তি১৮ সেপ্টেম্বর ২০১৯; ভারতে
দেশভিত্তিক প্রাপ্যতা
  • যুক্তরাষ্ট্র, যুক্তরাজ্য, ভারত: ২৯ সেপ্টেম্বর ২০১৯; ৫২ দিন আগে (2019-09-29)
পূর্বসূরীস্যামসাং গ্যালাক্সি এম ৩০
সম্পর্কিতস্যামসাং গ্যালাক্সি এম ৩০
ধরনফ্যাবলেট
মাত্রা
  • ১৫৯ মিমি (৬.৩ ইঞ্চি) দৈর্ঘ্য
  • ৭৫.১ মিমি (২.৯৬ ইঞ্চি) প্রস্থ
  • ৮.৯ মিমি (০.৩৫ ইঞ্চি) পুরুত্ব
ওজন১৮৮ গ্রাম (৬.৬ আউন্স)
অপারেটিং সিস্টেমওয়ান ইউআই সহ অ্যান্ড্রয়েড ৯.০ (পাই)
চিপে সিস্টেমস্যামসাং এক্সিনস ৯৬১১ অক্টা
সিপিইউঅক্টা-কোর ৪ × ২.৩ গিগাহার্টজ এবং ৪ × ১.৭ গিগাহার্টজ কর্টেক্স-এ৭৩ এবং কর্টেক্স-এ৫৩
জিপিইউমেইল-জি৭২ এমপি৩
মেমোরি৪/৬ গিগাবাইট র‌্যাম
সংরক্ষণাগার৬৪/১২৮ গিগাবাইট রম, ইউএফএস২.১
অপসারণযোগ্য সংগ্রহস্থলমাইক্রোএসডি, ১ টেরাবাইট পর্যন্ত বৃদ্ধিযোগ্য (নিবেদিত স্লট)
ব্যাটারি৬০০০ এমএএইচ লিথিয়াম-পলিমার (অপসারণযোগ্য নয়)
তথ্য ইনপুট
  • অডিও জ্যাক: ৩.৫ মিমি
  • মাইক্রোফোন: নিবেদিত মাইকের সাহায্যে সক্রিয় বিশৃঙ্খলতা বাতিলকরণ
প্রদর্শন৬.৪ ইঞ্চি (১৬০ মিমি), (১০৮০×২৩৪০) ১০৮০ পিক্সেল সুপার অ্যামোলেড সুবিশাল স্পর্শপর্দা, ১৯.৫:৯ অনুপাত, ১০০.৫ সেমি² (পর্দার সাথে বডির অনুপাত ~৮৪.২%), ১৬ মিলিয়ন রং, ~৪০৩ পিপিআই (পিক্সেল পার ইঞ্চি)
পিছন ক্যামেরা
  • ৪৮ এমপি, এফ/২.০ উন্মেষ, ০.৮ মাইক্রোমিটার পিক্সেল আকার, পিডিএএফ (অটোফোকাস ফেইজ ডিটেকশন), ৪কে অথবা ১০৮০ পিক্সেল ৩০ এফপিএস (ফ্রেম পার সেকেন্ড) -এ, জিরো-ইআইএস
  • ৮ এমপি, এফ/২.২ উন্মেষ ১২ মিমি অধিশ্রয়নিক দূরত্ব, আল্ট্রা ওয়াইড সেন্সর
  • ৫ এমপি, এফ/২.২ উন্মেষ, গভীরতার সেন্সর
সম্মুখ ক্যামেরা১৬ এমপি, এফ/২.০ উন্মেষ, ১০৮০ পিক্সেল ৩০ এফপিএস (ফ্রেম পার সেকেন্ড) -এ
শব্দ
  • লাউডস্পিকার
  • ডলবি এটমস
সংযোগ
  • ডব্লিউল্যান: ওয়াই-ফাই ৮০২.১১ এ/বি/জি/এন/এসি, দ্বৈত-ব্যান্ড, সরাসরি ওয়াই-ফাই, হটস্পট
  • ব্লুটুথ: ৫.০, এ২ডিপি, এলই (লেট'স এনক্রিপ্ট)
  • জিপিএস: এ-জিপিএস, গ্লোন্যাস, বিডিএস (ব্রডকাস্টিং ডাটা সার্ভিস)
  • ইউএসবি: ২.০, ইউএসবি টাইপ-সি ১.০ উল্টানো সম্ভব সংযোগকারী
অন্যান্য
  • সম্মুখ কাচ
  • প্লাস্টিক বডি
  • এফএম রেডিও
  • আরডিএস (রেডিও ডাটা সিস্টেম)
  • রেকর্ডিং
  • ভাইব্রেশন
  • জিরোস্কোপ
  • ফিঙ্গারপ্রিন্ট
  • অ্যাক্সিলারোমিটার
  • প্রক্সিমিটি
  • কম্পাস
শ্রবণ যন্ত্রের উপযুক্ততাডলবি এটমস সাউন্ড
ওয়েবসাইটস্যামসাং ভারত (এম ৩০ এস)
সূত্র[১][২][৩][৪]

বৈশিষ্ট্যসম্পাদনা

হার্ডওয়্যারসম্পাদনা

স্যামসাং গ্যালাক্সি এম ৩০ এস ফোনটি ৬.৪” এফএইচডি+ (১০৮০×২৩৪০) সুপার অ্যামোলেড ইনফিনিটি-ইউ পর্দা এবং স্যামসাং গ্যালাক্সি এ ৭০ এর মতো সামনের ক্যামেরার জন্য একটি ইউ-আকৃতির খাঁজ নিয়ে এসেছে। এটির পর্দার সাথে বডির অনুপাত ~৮৪.২%। পর্দার প্রতিতুলনার অনুপাত ৭৮৯৬০:১ এবং সর্বোচ্চ ঔজ্জ্বল্য ৪২০ নিট। ফোনটির দুটি সংস্করণ যথাক্রমে ৪ জিবি বা ৬ জিবি র‌্যাম এবং ৬৪ জিবি বা ১২৮ জিবি-র অভ্যন্তরীণ সংগ্রহস্থল রয়েছে। উভয় সংস্করণের সংগ্রহস্থল মাইক্রোএসডি কার্ডের মাধ্যমে ১ টিবি অবধি প্রসারিত। ফোনটিতে ৬০০০ এমএএইচ লিথিয়াম-পলিমার ব্যাটারি রয়েছে যা তারযুক্ত ১৫ ওয়াট দ্রুত চার্জিং সমর্থন করে। এর ব্যাটারি স্যামসাং স্মার্টফোনের সর্বকালের সেরা ধারণক্ষমতাসম্পন্ন ব্যাটারি, এবং ভারতেও এ যাবৎকালে মুক্তি পাওয়া স্মার্টফোনগুলোর মধ্যে বৃহত্তম।[৯][১০][১১] ফোনটির পেছন অংশে একটি ফিঙ্গারপ্রিন্ট স্ক্যানার সংযোজন করা হয়েছে। ফোনটির চিপ হিসেবে সংযোজিত হয়েছে ১০ ন্যানোমিটারের অক্টা-কোর এক্সিনোস ৯৬১১ এবং এর কেন্দ্রীয় প্রক্রিয়াকরণ অংশে আছে ৪×২.৩ গিগাহার্টজ কর্টেক্স-এ৭৩ এবং ৪×১.৭ গিগাহার্টজ কর্টেক্স-এ৫৩। এটি মেইল-জি৭২ এমপি৩ -ও সমর্থন করে।[১২]

ক্যামেরাসম্পাদনা

পেছনের ক্যামেরাত্রয় একটি আয়তাকার বেষ্টনীতে সংযোজন করা হয়েছে। এতে একটি ০.৮ মিমি এবং পর্ব-সনাক্তকরণ অটোফোকাসসহ ৪৮ এমপি পিক্সেল আকার ও এফ/২.০ উন্মেষবিশিষ্ট প্রশস্ত কোণ ক্যামেরা রয়েছে। এছাড়াও আছে ৮ এমপি এফ/২.২ উন্মেষবিশিষ্ট অতি-প্রসারিত কৌণিক লেন্স যার অধিশ্রয়নিক দৈর্ঘ্য ১২ মিমি এবং ১২৩° পর্যন্ত দর্শনক্ষেত্র। তাছাড়া রয়েছে ৫ এমপি এফ/২.২ উন্মেষবিশিষ্ট গভীরতার সেন্সর। আয়তাকার বেষ্টনীটি শুধু ক্যামেরা ও ফ্ল্যাশ দ্বারাই পূর্ণ নয় বরঞ্চ এতে লেখা রয়েছে "48 mega pixels"। এতে আছে রাতের মোড যা কম আলোতে উজ্জ্বলতা বাড়ায়, ছবির বিশৃঙ্খলতা হ্রাস করে, এবং জীবন্ত অধিশ্রয়ণ মোড যা গভীরতা সেন্সরের মাধ্যমে বোকেহ্ আবহ তৈরি করে। ফোনটির ক্যামেরা ৩০ এফপিএস-এ ৪কে ভিডিও ধারণ, কাঁপুনিহীন ভিডিও, দ্রুতগতির ভিডিও এবং ধীর গতির ভিডিও সমর্থন করে। অতিরিক্ত হিসাবে এটিতে আছে স্যামসাং এর দৃশ্য অপ্টিমাইজার প্রযুক্তি যা এআই ব্যবহার করে ক্যামেরায় ২০ টি ভিন্ন ভিন্ন বিষয়কে সনাক্ত করতে পারে এবং সে অনুযায়ী ক্যামেরা সেটিংস স্বয়ংক্রিয়ভাবে সামঞ্জস্য করে।[৭][১২]

সফটওয়্যারসম্পাদনা

স্যামসাং গ্যালাক্সি এম ৩০ এস অ্যান্ড্রয়েড ৯.০ (পাই) অপারেটিং সিস্টেম দ্বারা চালিত। স্যামসাং এর ওয়ান ইউআই পর্দা স্যামসাং স্টক অ্যাপ্লিকেশনগুলোকে স্পর্শ অঞ্চলটির নিচের দিকে প্রতিস্থাপন করে, যা এমন বড় মাপের পর্দায় এক হাতে কাজ করার জন্য ইন্টারফেসকে আরও সহজ করে তোলে।[১৩] এম ৩০ এস এর অন্যান্য সুবিধাদির মধ্যে রয়েছে বিক্সবি (যদিও বিক্সবি বোতামটি উপস্থিত নেই), গুগল সহকারী, স্যামসাং স্বাস্থ্য এবং স্যামসাং পরিশোধ।[১২]

মূল্যায়নসম্পাদনা

সমালোচনামূলক গ্রহণযোগ্যতাসম্পাদনা

ফোনটি সমালোচকদের কাছ থেকে বেশিরভাগ ইতিবাচক পর্যালোচনা পেয়েছে, যারা ক্যামেরার সমালোচনা করার সময় ফোনের ব্যাটারি এবং সামগ্রিক কার্যসম্পাদনের প্রশংসা করেছে। ক্যামেরার সমালোচনা করার সময় ব্যাটারি, পর্দা এবং কার্যসম্পাদনের প্রশংসা করে এনডিটিভি ফোনটিকে ৮/১০ স্কোর দিয়েছে।[১৪] অ্যান্ড্রয়েড কর্তৃপক্ষ ফোনটিকে ৮.২/১০ স্কোর দিয়েছে, প্রদর্শন, অডিও গুণমান এবং কার্যসম্পাদনের প্রশংসা করেছে, পাশাপাশি বেশি ব্যবহারের সময় ক্যামেরা এবং ফোনটি উত্তপ্ত হওয়ায় সমালোচনাও করেছে।[১৫] মোবাইল ইন্ডিয়ান -ও ক্যামেরার স্বল্প আলোয় কার্যকারিতা এবং পেছনের প্লাস্টিকের নকশাকে নেতিবাচকভাবে বর্ণনা করেছে কিন্তু পর্দা, ব্যাটারি এবং কার্যসম্পাদনকে ইতিবাচকভাবে বর্ণনা করেছে।[১৬] সবশেষে, বিজনেস স্ট্যান্ডার্ড ইন্ডিয়া ক্যামেরার সমালোচনা করার সময় ব্যাটারি সহ ফোনের সাধারণ দিকগুলি ইতিবাচকভাবে পর্যালোচনা করেছে।[১৭]

বিচার্য বিষয়সম্পাদনা

কিছু ব্যবহারকারী মন্তব্য করেছেন যে ফোনটি এলটিই নেটওয়ার্কে সংযোগ স্থাপনের সময় সমস্যার সম্মুখীন হয়।[১৮] এছাড়া, কিছু ব্যবহারকারী বেশি ব্যবহারের সময় ফোনটি উত্তপ্ত হওয়ার কথাও জানিয়েছেন, যা কিছু পর্যালোচকদের দ্বারা সমালোচিত হয়েছে।[১৯]

তথ্যসূত্রসম্পাদনা

  1. "Samsung Galaxy M30s - Specs, Features and Price"Samsung India (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ২০১৯-১০-০৮ 
  2. "Samsung Galaxy M30s - Full phone specifications"www.gsmarena.com (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ২০১৯-১০-০৮ 
  3. "Samsung Galaxy M30s price in US, UK, India"www.gsmarena.com (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ২০১৯-১০-০৯ 
  4. "Samsung Galaxy M30s Price in India, Specifications, Comparison (9th October 2019)"NDTV Gadgets 360 (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ২০১৯-১০-০৮ 
  5. "Samsung Galaxy M30s Price in India, Specifications, Comparison (1st October 2019)"NDTV Gadgets 360 (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ২০১৯-০৯-৩০ 
  6. Massey, Erick (২০১৯-০৯-২৮)। "Samsung Galaxy M30s review: The phone's USP lies in its massive battery"Business Standard India (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ২০১৯-০৯-৩০ 
  7. "Samsung Galaxy M30s - Full phone specifications"www.gsmarena.com (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ২০১৯-০৯-৩০ 
  8. "Samsung introduces Galaxy M10s and M30s in India"GSMArena.com (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ২০১৯-০৯-৩০ 
  9. Friedman, Alan। "Samsung teaser reveals a new phone with the largest battery found on a Galaxy handset"Phone Arena (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ২০১৯-১০-১১ 
  10. "Samsung launches Galaxy M30s, biggest battery smartphone in India - Times of India"The Times of India (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ২০১৯-১০-১১ 
  11. "Galaxy M30s could sport gigantic 6,000 mAh battery"SlashGear (ইংরেজি ভাষায়)। ২০১৯-০৮-২৮। সংগ্রহের তারিখ ২০১৯-১০-১১ 
  12. "Samsung Galaxy M30s - Specs, Features and Price"Samsung India (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ২০১৯-১০-০৫ 
  13. Bohn, Dieter (২০১৯-০২-১৯)। "Samsung's One UI is the best software it's ever put on a smartphone"The Verge (ইংরেজি ভাষায়)। ২০১৯-০২-২০ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২০১৯-০২-২০ 
  14. "Samsung Galaxy M30s Review"NDTV Gadgets 360 (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ২০১৯-১০-১৫ 
  15. Bhutani, Dhruv (২০১৯-১০-০৯)। "Samsung Galaxy M30s review: Swing and miss"Android Authority (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ২০১৯-১০-১৫ 
  16. "Samsung Galaxy M30s Review"The Mobile Indian (ইংরেজি ভাষায়)। ২০১৯-০৯-২৮। সংগ্রহের তারিখ ২০১৯-১০-১৫ 
  17. Massey, Erick (২০১৯-০৯-২৮)। "Samsung Galaxy M30s review: The phone's USP lies in its massive battery"Business Standard India (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ২০১৯-১০-১৫ 
  18. "Poor network reception on Samsung Galaxy M30S"r2.community.samsung.com (ইংরেজি ভাষায়)। ২০১৯-১০-১৩। সংগ্রহের তারিখ ২০১৯-১০-১৫ 
  19. "Galaxy M30s heating issue"r2.community.samsung.com (ইংরেজি ভাষায়)। ২০১৯-১০-০৯। সংগ্রহের তারিখ ২০১৯-১০-১৫ 

বহিঃসংযোগসম্পাদনা