সোপা প্যারাগুয়া

সোপা প্যারাগুয়া, প্যারাগুয়ের স্যুপ হচ্ছে প্যারাগুয়ে এবং উত্তর-পূর্ব আর্জেন্টিনার এক ধরনের ঐতিহ্যবাহী খাবার। এর আক্ষরিক অর্থ "প্যারাগুয়ের স্যুপ"।[১]  এটি কর্নব্রেড, কর্নফ্লাওয়ারের মতো অনেকটা। সোপা প্যারাগুয়ে বানাতে পনির এবং দুধ উপাদান হিসেবে ব্যবহৃত হয়। এটি স্পঞ্জি ধরনের এবং উচ্চ ক্যালরি ও প্রোটিন সমৃদ্ধ। 

সোপা প্যারাগুয়ে

 "সোপা প্যারাগুয়া"র সাথে দেশটির আরেক ধরনের খাবারের সাথে অনেকটাই মিল পাওয়া যায়। চিপাহুয়াজু নামের খাবারটিতে অবশ্য তাজা ভুট্টা ব্যবহার করা হয় এবং সাধারণত তা প্যারাগুয়ের গরুর মাংসের স্যপের সাথে পরিবেশোন করা হয়।

ইতিহাস ও নামকরণসম্পাদনা

বলা হয়, এই খাবারের প্রচলন ঘটে প্যারাগুয়ের প্রথম সাংবিধানিক প্রেসিডেন্ট কারলোস এন্টনিও লোপেজের আমলে, ১৮৪১ থেকে ১৮৬২ সালের মধ্যবর্তী সময়ে। তার পাচকদের মাঝে একজন (মাচু নামে পরিচিত) এই খাবারের উদ্ভব ঘটান। বলা হয়ে থাকে, তৎকালীন গভর্নর দুধ, পনির, কর্নফ্লাওয়ার ও ডিমের তৈর সাদা স্যুপ অত্যন্ত পছন্দ করতেন যা তার স্থূলতা থেকেই প্রমাণিত হয়।একদিন  বাবুর্চি মাচু স্যুপ বানাতে গিয়ে ভুলে তাতে কর্নফ্লাওয়ার বেশি দিয়ে ফেলেন। দুপুরে যখন তিনি তার ভুল বুঝতে পারেন, তখন নতুন করে স্যুপ বানানোর প্রস্তুতি নেয়ার সময় ছিল না। তখন তিনি মিশ্রণটি একটা লোহার পাত্রে নিয়ে ''টাটাকুয়া" নামের বিশেষ মাটির চুলায় রান্না করেন। ফলস্বরূপ, তরল স্যুপের বদলে এক ধরনের কঠিন স্যুপ পান। বাবুর্চি মাচু তার নতুন উদ্ভাবিত কঠিন স্যুপের স্বাদ অত্যন্ত পছন্দ করেন এবং এর নামকরণ করেন "সোপা প্যারাগুয়া" বা "প্যারাগুয়ের স্যুপ" ।

উপাদানসম্পাদনা

সোপা প্যারাগুয়ে বানাতে প্রয়োজন-পিঁয়াজ, পানি, ভারী লবণ, শূকরের চর্বি, ডিম, তাজা পনির, কর্নফ্লাওয়ার, দই অথবা খাঁটি দুধ এবং দুধের ক্রিম।.[২]

অন্য আরেকটি ধরনের "সোপা প্যারাগুয়ে দে এস্তেনিয়া" বানাতে প্রা একই ধরনের উপাদান লাগে। তবে উপাদানের পরিমানের উপর নির্ভর করে এর স্বাদ ও টেক্সটার ভিন্ন হয়। 

প্রস্তুতিসম্পাদনা

সোপা প্যারাগুয়ে প্রস্তুতিতে তিনটি ধাপ প্রচলিত। প্রথমে পিঁয়াজ পাতলা করে কেটে ১০ মিনিট পানিতে সেদ্ধ করে ঠান্ডা হতে দেয়া হয়।

 
সোপা প্যারাগুয়ের টুকরা

শুকরের চর্বি ফেটিয়ে তাতে ডিম দিয়ে পুনরায় ফেটিয়ে নেয়া হয়। এরপর এতে পনির যোগ করা হয়। 

উক্ত মিশ্রনে পিঁয়াজ যোগ করে তাতে একে একে কর্নফ্লাওয়ার, দুধ, ক্রিম মেশানো হয়। সম্পূর্ণ মিশ্রণ তৈরি হয়ে গেলে একটি পাত্রে ঘি অথবা তেল দিয়ে তৈলাক্ত করে মিশ্রণটি বেক করার জন্য ঢালা হয়। গরম ওভেনে প্রায় ২০০ ডিগ্রি তাপমাত্রায় এক ঘণ্টা ধরে বেক করে ''সোপা প্যারাগুয়া'' বানানো হয়।

তথ্যসূত্রসম্পাদনা

  1. "Ministry of Social Development (President of Argentina): "Sabores con sapucay", Rescatando lo autóctono desde la historia familiar." (PDF)। ৩ সেপ্টেম্বর ২০১১ তারিখে মূল (PDF) থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২২ জুন ২০১৭ 
  2. "Sopa Paraguaya Recipe"Food.com। সংগ্রহের তারিখ ৮ মার্চ ২০১৫