প্রধান মেনু খুলুন

সুশীল সমাজ

ব্যক্তি বা গোষ্ঠীর সামাজিক কার্য যেখানে রাষ্ট্রের সংশ্লিষ্টতা থাকে না। সভ্য সমাজ হচ্ছে বেসরকারী সংস্থা ও সংগঠন সমূহের সমষ্টি যা নাগরিকদের ইচ্ছা ও

সুশীল সমাজকে (Civil society) সমাজের "তৃতীয় বিভাগ" হিসেবে বোঝা হয়, যা সরকার এবং বাণিজ্য থেকে আলাদা।[১] অন্যান্য লেখকদের মতে, "সুশীল সমাজ শব্দটিকে (১) বেসরকারী সংস্থা এবং প্রতিষ্ঠানের সমষ্টি হিসেবে বোঝানো হয় যা নাগরিকদের স্বার্থের ব্যাপারে আগ্রহী হয়, অথবা (২) সমাজের কোন ব্যক্তি বা সংগঠন যা সরকার-নিরপেক্ষ হয়ে থাকে।[২]

কখনও কখনও সুশীল সমাজ শব্দটি "বাকস্বাধীনতা, স্বাধীন বিচারবিভাগ ইত্যাদির মত উপাদান অর্থে ব্যবহৃত হয় যেগুলো একটি গণতান্ত্রিক সমাজ তৈরি করে (কলিন্স ইংলিশ ডিকশনারি )।[৩] বিশেষ করে প্রাচ্যের ও মধ্য ইউরোপের চিন্তাবিদদের আলোচনায় সুশীল সমাজকে নাগরিক মূল্যবোধের আদর্শ ধারণা হিসেবেও দেখা হয়।

পরিচ্ছেদসমূহ

শব্দের ব্যুৎপত্তিসম্পাদনা

সুশীল সমাজ শব্দটি ইংরেজি Civil Society শব্দের বাংলা পারিভাষিক শব্দ। Civil society শব্দটি প্রথম ব্যবহৃত হয় এরিস্টোটলেরপলিটিক্স গ্রন্থে koinōnía politikḗ (κοινωνία πολιτική) শব্দসমষ্টি হিসেবে। এক্ষেত্রে এই শব্দসমষ্টি "রাজনৈতিক সম্প্রদায়" অর্থে ব্যবহৃত হয়েছিল, যা গ্রীক সিটি-স্টেট (পলিস) এর সাথে তুল্য, এবং যার সদস্যদেরকে নির্দিষ্ট কিছু নিয়ম ও নীতি মেনে চলতে হত, এবং যেখানে স্বাধীন নাগরিকগণ আইনের শাসন মেনে চলতেন। সুশীল সমাজের পরিণতি হিসেবে ইউডেইমনিয়া-কে মানা হত (τὸ εὖ ζῆν tò eu zēn), যাকে অনুবাদ করলে দাঁড়ায় মানব উন্নয়ন বা সাধারণের মঙ্গল, যেহেতু মানুষকে একটি রাজনৈতিক (সামাজিক) জীব (ζῷον πολιτικόν zōon politikón) হিসেবে সংজ্ঞায়িত করা হয়।[৪][৫][৬][৭] এই ধারণাটিকে রোমান লেখকগণ যেমন সিসেরো ব্যবহার করেছিলেন, যেখানে এই শব্দটিকে একটি প্রজাতন্ত্র (republic) এর প্রাচীন ধারণা হিসেবে উল্লেখ করা হয়। এই শব্দটি পাশ্চাত্যের রাজনৈতিক আলোচনায় পুনরায় প্রবেশ করে মধ্যযুগের শেষের দিকে এরিস্টোটলেরপলিটিক্স গ্রন্থের একটি ল্যাতিন অনুবাদের মাধ্যমে, যেখানে অনুবাদক লিওনার্দো ব্রুনি koinōnía politikḗ শব্দটিকে societas civilis শব্দসমষ্টি হিসেবে অনুবাদ করেন। রাজতন্ত্রিক স্বৈরাচার এবং জনসাধারণের আইনের মধ্যে পৃথকীকরণের উত্থানের সাথে সাথে এই শব্দটি সামন্ত্য সমাজের অভিজাত জমিদারদের মিলিত সমাজকে (Ständestaat) বোঝাত যা রাজার দ্বারা চর্চিত ক্ষমতার বিরুদ্ধে ছিলেন।[৮] রাষ্ট্রতত্ত্বে এই শব্দটির একটি দীর্ঘ ইতিহাস আছে, এবং আধুনিক সময়ে একটি বিশেষ শক্তির সাথে এই শব্দটির পুনর্জাগরণ হয়। পূর্ব ইউরোপে, ১৯৯০ এর দশকের শেষের দিকে ভাক্লাভ হাভেল এর মত ভিন্নমতাবলম্বীগণ এই শব্দটিকে নাগরিক সমাজের বলয় অর্থে ব্যবহার করেছেন যা সমাজতান্ত্রিক পূর্ব ইউরোপের অনধিকারপ্রবেশমূলক সমগ্রবাদী রাষ্ট্রগুলোর কর্তৃত্ববাদী সরকারের হুমকিতে ছিল।[৯] Civil Society শব্দটির প্রথম উত্তরাধুনিক ব্যবহার হয় ১৯৭৮-৭৯ সালে আলেকজান্ডার স্মোলার এর লেখায় রাজনৈতিক বিরোধিতা অর্থে।[১০] যাইহোক, শব্দটি ১৯৮০-১৯৮১ সালে সলিডারিটি শ্রমিক সংঘের দ্বারা ব্যবহৃত হয় নি, এবং শব্দটি কেবল ১৯৮৯ সালের সমাজতান্ত্রিক উদ্দেশ্যমূলক প্রচারণায় নব্যউদারপন্থী রূপান্তরের বৈধতা হিসেবে আন্তর্জাতিক মাত্রায় জনপ্রিয় হয়।[১০]

গণতন্ত্রসম্পাদনা

সুশীল সমাজ এবং গণতান্ত্রিক রাজনৈতিক সমাজের সম্পর্ক নিয়ে আলোচনাগুলোর ভিত্তি পাওয়া যায় জি.ডব্লিউ.এফ হেগেল এর ধ্রুপদী উদারপন্থা নিয়ে রচনাগুলোতে, পরবর্তীতে যেখান থেকে আলেক্সিস ডি টকভিল,[১১] কার্ল মার্ক্স এবং ফারদিনান্দ টনিস সুশীল সমাজের ধারণা নেন। এই ধারণাগুলোকে ২০ শতকের গবেষক গ্যাব্রিয়েল আলমন্ড এবং সিডনি ভারবা বিকশিত করেন, যারা গণতান্ত্রিক উপায়ে রাজনৈতিক সংস্কৃতির ভূমিকাকে অত্যাবশ্যক হিসেবে চিহ্নিত করেছিলেন।[১২]

তারা যুক্তি দিয়েছিলেন যে রাজনৈতিক সংগঠনের রাজনৈতিক উপাদানগুলো অধিকতর ভাল সচেতনতা এবং অধিকতর ওয়াকিবহাল নাগরিকবৃন্দ তৈরি করে, যারা অধিকতর ভাল নির্বাচনী সিদ্ধান্ত গ্রহণ করে, রাজনীতিতে অংশগ্রহণ করে, এবং পরিণতি হিসেবে সরকারকে অধিকতর দায়বদ্ধ করে।[১২] এই সংগঠনগুলোকে অণু-সংবিধানের মর্যাদা দেয়া হয় কারণ এগুলো অংশগ্রহণকারীদেরকে গণতান্ত্রিক সিদ্ধান্ত গ্রহণের আনুষ্ঠানিকতায় অভ্যস্ত করে তোলে।

আরও সাম্প্রতিক সময়ে, রবার্ট ডি. পাটনাম বলেন, এমনকি সুশীল সমাজের অরাজনৈতিক সংগঠনগুলোও গণতন্ত্রের জন্য অত্যাবশ্যক। এর কারণ হচ্ছে তারা সামাজিক পুঁজি, বিশ্বাস এবং বণ্টিত মূল্যবোধ তৈরি করে, যেগুলো সমাজকে সাহায্য করা ও একত্রে ধরে রাখার জন্য রাজনৈতিক পরিমণ্ডলে প্রবাহিত হয় এবং সমাজের আন্তঃযোগাযোগ এবং এর স্বার্থ্য বুঝতে পারাকে সহজ করে দেয়।[১৩]

অন্যেরা আবার সুশীল সমাজ কতটা গণতান্ত্রিক হতে পারে তা নিয়ে প্রশ্ন করেছেন। কেউ কেউ উল্লেখ করেছেন যে সুশীল সমাজের ব্যক্তিদের এখন উল্লেখযোগ্য পরিমাণে রাজনৈতিক ক্ষমতা গ্রহণ করেছেন যেখানে তাদেরকে কেউই সরাসরি নির্বাচিত করেনি বা নিযুক্ত করেনি।[১৪][১৫] বলা হয় সুশীল সমাজ বৈশ্বিক উত্তরের পক্ষপাতী।[১৬] পার্থ চ্যাটার্জি বলেন, বিশ্বের বেশিরভাগ রাষ্ট্রেই "সুশীল সমাজ জনসংখ্যাগতভাবে সীমাবদ্ধ।"[১৭] জয় সেনের মতে, সুশীল সমাজ হচ্ছে বৈশ্বিক অভিজাতদের নিজেদের স্বার্থ্যরক্ষার জন্য তাদের দ্বারা তৈরি একটি নব্য-ঔপনিবেশিক কর্মসূচী।[১৮] পরিশেষে অন্যান্য পণ্ডিতদের মতে, যেহেতু সুশীল সমাজের ধারণাটি গণতন্ত্র এবং প্রতিনিধিত্বের সাথে সম্পর্কযুক্ত, এটির জাতীয়তা ও জাতীয়তাবাদের সাথে সম্পর্কিত হওয়া উচিৎ।[১৯] সর্বশেষ বিশ্লেষণ বলছে যে, সুশীল সমাজ একটি নব্য-উদারপন্থী মতবাদ যা বিকল্প হিসেবে একটি তৃতীয় বিভাগ তৈরি করার মাধ্যমে কল্যাণরাষ্ট্রের প্রতিষ্ঠানগুলোর উপর অর্থনৈতিক অভিজাতদের গণতন্ত্রবিরোধী আক্রমণের বৈধতা দান করে।[১০]

নিয়মতান্ত্রিক অর্থনীতিসম্পাদনা

নিয়মতান্ত্রিক অর্থনীতি হচ্ছে অর্থনীতি এবং নিয়মতন্ত্রবাদের একটি শাখা যা নিয়মতান্ত্রিক বিষয়াদি এবং বাজেট প্রক্রিয়া সহ অর্থনৈতিক ব্যবস্থাপনার কার্যক্রমের মধ্যকার নির্দিষ্ট আন্তসম্পর্কের বর্ণনা ও বিশ্লেষণ করে। "নিয়মতান্ত্রিক অর্থনীতি" শব্দটি যুক্তরাষ্ট্রের অর্থনীতিবিদ জেমস এম. বুকানন এর দ্বারা একটি নতুন বাজেট পরিকল্পনার সময় এবং পরবর্তিতে সুশীল সমাজের স্বচ্ছতার ক্ষেত্রে ব্যবহৃত হয়েছিল, যা আইনের শাসন প্রতিষ্ঠার ক্ষেত্রে প্রাথমিক গুরুত্বপূর্ণ নীতির অন্যতম ছিল। এছাড়াও, সরকারের অন্যায্য ব্যয় এবং কোন পূর্ববর্তী অনুমোদিত দখলের প্রশাসনিক অবরুদ্ধিকরণ এর মত পরিস্থিতির ক্ষেত্রে কার্যকরী বিচার ব্যবস্থার উপস্থিতির জন্য সুশীল সমাজ কাজ করে, এবং এই কার্যকরী বিচার ব্যবস্থা হচ্ছে যেকোন প্রভাবশালী সুশীল সমাজের সফলতার প্রধান উপাদান।[২০]

তথ্যসূত্রসম্পাদনা

  1. What is Civil Societycivilsoc.org ওয়েব্যাক মেশিনে আর্কাইভকৃত ২ মে ২০০৯ তারিখে
  2. "Civil society – Define Civil society at Dictionary.com"Dictionary.com 
  3. "Civil Society". Collins English Dictionary – Complete and Unabridged 11th Edition. Retrieved 2 August 2012 from CollinsDictionary.com website: http://www.collinsdictionary.com/dictionary/english/civil-society
  4. Aristotle, Politics, Bk. 1 passim, esp. 1252a1–6
  5. Jean L. Cohen,Civil Society and Political Theory, MIT Press, 1994 pp. 84–85.
  6. Bruno Blumenfeld The Political Paul: Democracy and Kingship in Paul's Thought, Sheffield Academic Press, 2001 pp. 45–83
  7. Michael Davis,The Politics of Philosophy: A Commentary on Aristotle's Politics, Rowman & Littlefield 1996 pp. 15–32
  8. Jean L. Cohen,Civil Society and Political Theory, MIT Press, 1994 p. 86.
  9. Frederick W. Powell,The Politics of Civil Society: Neoliberalism Or Social Left?, Policy Press, 2007. pp. 119–20, 148–49.
  10. Pawel Stefan Zaleski, Neoliberalizm i spoleczenstwo obywatelskie (Neoliberalism and Civil Society), Wydawnictwo UMK, Torun 2012
  11. Zaleski, Pawel Stefan (২০০৮)। "Tocqueville on Civilian Society. A Romantic Vision of the Dichotomic Structure of Social Reality" (PDF)Archiv für Begriffsgeschichte। Felix Meiner Verlag। 50 
  12. Almond, G., & Verba, S.; 'The Civic Culture: Political Attitudes And Democracy In Five Nations; 1989; Sage
  13. Robert D. Putnam, Robert Leonardi, Raffaella Y. Nanetti; Robert Leonardi; Raffaella Y. Nanetti (১৯৯৪)। Making Democracy Work: Civic Traditions in Modern Italy। Princeton University Press। আইএসবিএন 0-691-07889-0 
  14. Pawel Stefan Zaleski Global Non-governmental Administrative System: Geosociology of the Third Sector, [in:] Gawin, Dariusz & Glinski, Piotr [ed.]: "Civil Society in the Making," IFiS Publishers, Warszawa 2006 [১]
  15. Agnew, John; 2002; 'Democracy and Human Rights' in Johnston, R.J., Taylor, Peter J. and Watts, Michael J. (eds); 2002; Geographies of Global Change; Blackwell
  16. Pithouse, Richard (২০০৫)। "Report Back from the Third World Network Meeting Accra, 2005"ukzn.ac.za। Centre for Civil Society : 1–6। 
  17. The Politics of the Governed: Popular Politics in Most of the World, 2004
  18. "Engaging Critically with the Reality and Concept of Civil Society"p2pfoundation.net 
  19. Pollock, Graham.'Civil Society Theory and Euro-Nationalism' , Studies In Social & Political Thought, Issue 4, March 2001, pp. 31–56
  20. Peter Barenboim, Natalya Merkulova. "The 25th Anniversary of Constitutional Economics: The Russian Model and Legal Reform in Russia, in The World Rule of Law Movement and Russian Legal Reform", edited by Francis Neate and Holly Nielsen, Justitsinform, Moscow (2007).