সুরেন্দ্রনাথ ঘোষ

সুরেন্দ্রনাথ ঘোষ (১১ ডিসেম্বর, ১৮৬৮ —২৮ নভেম্বর, ১৯৩২) বাংলার নাট্যজগতে 'দানীবাবু' নামে সমধিক প্রসিদ্ধ অভিনেতা।[১]

সুরেন্দ্রনাথ ঘোষ
জন্ম(১৮৬৮-১২-১১)১১ ডিসেম্বর ১৮৬৮
মৃত্যু২৮ নভেম্বর ১৯৩২(1932-11-28) (বয়স ৬৩)
জাতীয়তাবৃটিশ ভারতীয়
পেশামঞ্চাভিনেতা
পিতা-মাতাগিরিশচন্দ্র ঘোষ (পিতা)
প্রমদাসুন্দরী দেবী

জন্ম ও প্রারম্ভিক জীবনসম্পাদনা

সুরেন্দ্রনাথের জন্ম বৃটিশ ভারতের কলকাতায় ১৯৬৮ খ্রিস্টাব্দের ১১ ই ডিসেম্বর। পিতা বাংলার নাট্যজগতের কিংবদন্তি নাট্যাচার্য গিরিশচন্দ্র ঘোষ এবং মাতা প্রমদাসুন্দরী দেবী।[২] ছোটবেলাতেই থিয়েটারের নেশায় বখাটে ছেলেদের সাথে মিশে থিয়েটারের দল খোলেন। দশ বৎসর বয়সেই থিয়েটারে ঢোলক বাজাতেন। তাই পড়াশোনা তেমন করেন নি। তবে ছবি আঁকায় তার আগ্রহ দেখে গিরিশচন্দ্র আর্ট স্কুলে ভরতি করান। কিন্তু সে-সব ছেড়ে ব্লাকউডের অফিসে শিক্ষানবিশিতে প্রবেশ করেন আর অপেশাদার নাট্যদলে অভিনয় করতে থাকেন এবং খ্যাতিও অর্জন করেন। হঠাৎ তিনি এক তরুণী বিধবাকে বিবাহ করেন। শেষে অর্থাভাবে উৎশৃঙ্খলতা শুরু করেন। শেষে তার পিসিমার অনুরোধে সে সময়ের বিখ্যাত অভিনেতা অমৃত মিত্র তাঁকে স্টার থিয়েটারে এবং পিতার অজ্ঞাতসারে অভিনয় শিক্ষা দিতে থাকেন। এই সময়ে গিরিশচন্দ্র 'চণ্ড' নাটকের মহলা দিচ্ছিলেন। ড্রেস রিহার্সালের সময় অমৃত মিত্র সুরেন্দ্রনাথকে রঘুনাথের ভূমিকায় গিরিশচন্দ্রের সামনে উপস্থিত করান। সেই থেকেই সুরেন্দ্রনাথের খ্যাতি শুরু।

অভিনয় জীবনসম্পাদনা

বিংশ শতকের প্রাক্কালে কলকাতার সব নাট্যমঞ্চেই সুরেন্দ্রনাথ অভিনয় করেছেন। বঙ্গভঙ্গ আন্দোলনের সময় সিরাজের ভূমিকায় তার প্রাণমাতানো অভিনয়ে দর্শকসমাজ মোহিত হয়। দেশবন্ধু চিত্তরঞ্জন দাশের ইচ্ছায় ১৯১৮ খ্রিস্টাব্দে বন্যার্তদের সাহায্যার্থে দুর্গেশনন্দিনী অভিনীত হয়। সেই নাটকের অভিনয়ে সুরেন্দ্রনাথ 'ওসমান' রূপে ও তারাসুন্দরী 'আয়েষা'র ভূমিকায় অভিনয় করেন ও বিশেষ খ্যাতি অর্জন করেন। বিভিন্ন রসের ভূমিকায় সমান দক্ষতা ছিল তার। মনোমোহন থিয়েটারে অংশীদার ও ম্যানেজার হয়ে লক্ষাধিক টাকা উপার্জন করেন। ১৯২৮ খ্রিস্টাব্দের ২রা অক্টোবর নাট্য মন্দিরে গিরিশ স্মৃতি সমিতির উদ্যোগে "প্রফুল্ল" নাটকে সুরেন্দ্রনাথ 'যোগেশ' ও শিশিরকুমার 'রমেশ' এর ভূমিকায় অভিনয় করে যথেষ্ট দক্ষতা দেখিয়েছিলেন। রঙ্গমঞ্চে এটি ছিল এক ঐতিহাসিক ঘটনা। তিনি আর্ট থিয়েটারে 'পোষ্যপুত্র' নাটকে 'শ্যামাকান্ত'-র ভূমিকায় শেষ অভিনয় করেন।[৩]

মৃত্যুসম্পাদনা

সুরেন্দ্রনাথ ওরফে দানীবাবু ১৯৩২ খ্রিস্টাব্দে ২৮ শে নভেম্বর কলকাতায় প্রয়াত হন।

তথ্যসূত্রসম্পাদনা

  1. সুবোধচন্দ্র সেনগুপ্ত ও অঞ্জলি বসু সম্পাদিত, সংসদ বাঙালি চরিতাভিধান, প্রথম খণ্ড, সাহিত্য সংসদ, কলকাতা, আগস্ট ২০১৬, পৃষ্ঠা ৮১০, আইএসবিএন ৯৭৮-৮১-৭৯৫৫-১৩৫-৬
  2. Various। SHARADIYA KISHORE BHARATI 1377। PATRA BHARATI। আইএসবিএন 978-81-8374-345-7 
  3. "পাতা:বঙ্গ গৌরভ - জলধর সেন.pdf/২৭৮ - উইকিসংকলন একটি মুক্ত পাঠাগার"bn.wikisource.org। সংগ্রহের তারিখ ২০২০-১২-০৬