সাদ জগলুল ফারুক

বাংলাদেশী রাজনীতিবিদ

সাদ জগলুল ফারুক (মৃত্যু: ২৭ ফেব্রুয়ারি ২০০৩) বাংলাদেশের ভোলা জেলার রাজনীতিবিদভোলা-৪ (মনপুরা-চরফ্যাশন) আসনের সাবেক সংসদ সদস্য[১][২]

অধ্যক্ষ

সাদ জগলুল ফারুক
ভোলা-৪ আসনের সাংসদ
কাজের মেয়াদ
৭ মে ১৯৮৬ – ৬ ডিসেম্বর ১৯৯০
পূর্বসূরীআসন শুরু
উত্তরসূরীএম. এম. নজরুল ইসলাম
ব্যক্তিগত বিবরণ
জন্মঅজানা
ভোলা জেলা
মৃত্যু২৭ ফেব্রুয়ারি ২০০৩
রাজনৈতিক দলজাতীয় পার্টি

জন্ম ও প্রাথমিক জীবনসম্পাদনা

সাদ জগলুল ফারুক ভোলা জেলার চরফ্যাশনে জন্মগ্রহণ করেছেন।[৩] ১৮ শতকে তার বাবা মরহুম মৌলানা নাসির আহমেদ খান, ভারতের আলীগড় মুসলিম বিশ্ববিদ্যালয় থেকে স্নাতকত্তর ডিগ্রি অর্জ্ন করেন, সেখানে অধ্য়ায়নরত অব্স্থায় দুবার স্বর্ন পদক পান। গান্ধীর সময়ে কলকাতায় কংগ্রেস সদস্য ছিলেন, ব্রিটিশ বিরোধী আন্দোলনে (১৯০৫) সক্রিয় অগ্রগামি ছিলেন।ব্রিটিশ বিরোধী আন্দোলনে সক্রিয় ভুমিকা পালন করেন,তত্কালীন সময়ে ব্রিটিশদের বিবাদে জড়িয়ে একটি পদক পানিতে ফেলে দেন, তিনি কলকাতার আলিয়া মাদ্রাসার সুপারিন্টেন্ডেন্ট ছিলেন। পরে ব্রিটিশদের সাথে বিরোধ দেখা দিলে মাদ্রাসার কিছু অংশ দেশভাগের (১৯৪৭) সময় ঢাকায় স্থানান্তরিত করা হয়।

তাঁর পুর্বপুরুষ ছিলেন পারস্য় (Persian) বনিক, ব্যাবসা বাণিজ্য় আর শিক্খা প্রসারের জন্য় বিভিন্ন প্রান্তে ছুটে বেড়াতেন। দাদা ছিলেন একজন স্কলার ও উলামা মরহুম ফাইজুল আহমেদ খান। ১৭ শতকে তিনি সুদুর পারস্য (Persian) থেকে এসেছিলেন খাইবার উপত্যকা হয়ে, তত্কালীন ভারত বর্ষে ব্যাবসা, বাণিজ্য আর শিক্ষার আলো পৌছিয়ে দিতে।

সাদ জগলুল ফারুক ছিলেন স্বনামধন্য় ব্যক্তিত্ব, সাভার বিশ্ববিদ্যালয় কলেজের প্রতিসঠাতা প্রিন্সিপ্যাল। ১৯৭৭ সালের আগস্টে, তৎকালীন নাইজেরিয়ার রাজধানী লাগোস-এ বিশ্ব শিক্ষক সম্মেলনে বাংলাদেশের প্রতিনিধিত্ব করেছিলেন।

রাজনৈতিক জীবনসম্পাদনা

সাদ জগলুল ফারুক ১৯৮৬ সালের তৃতীয়১৯৮৮ সালের চতুর্থ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে জাতীয় পার্টির মনোনয়নে ভোলা-৪ (মনপুরা-চরফ্যাশন) আসন থেকে সংসদ সদস্য নির্বাচিত হয়েছিলেন।[১][২]

মৃত্যুসম্পাদনা

সাদ জগলুল ফারুক ২৭ ফেব্রুয়ারি ২০০৩ মৃত্যুবরণ করেন।[৩]

তথ্যসূত্রসম্পাদনা

  1. "৩য় জাতীয় সংসদে নির্বাচিত মাননীয় সংসদ-সদস্যদের নামের তালিকা" (PDF)জাতীয় সংসদবাংলাদেশ সরকার। ১৮ সেপ্টেম্বর ২০১৮ তারিখে মূল (PDF) থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১২ এপ্রিল ২০২০ 
  2. "৪র্থ জাতীয় সংসদে নির্বাচিত মাননীয় সংসদ-সদস্যদের নামের তালিকা" (PDF)জাতীয় সংসদবাংলাদেশ সরকার। ৮ জুলাই ২০১৯ তারিখে মূল (PDF) থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১২ এপ্রিল ২০২০ 
  3. "মৃত্যুবার্ষিকী, ২৭ ফেব্রুয়ারি"দৈনিক কালের কণ্ঠ। ২৭ ফেব্রুয়ারি ২০১২। ২২ এপ্রিল ২০২০ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২২ এপ্রিল ২০২০