সমরেশ মজুমদার

ভারতীয় বাঙালি লেখক

সমরেশ মজুমদার (জন্ম: ১০ মার্চ ১৯৪২)[১] বিখ্যাত ভারতীয় বাঙালি ঔপন্যাসিক। তার অনেক রচনাতেই উত্তরবঙ্গের কথা ঘুরে ফিরে আসে। তিনি বেশ কিছু সফল টিভি সিরিয়ালের কাহিনিকার। তার কোন ছদ্মনাম নেই। তিনি নিজ নামেই গ্রন্থ রচনা করতেন।[তথ্যসূত্র প্রয়োজন]

সমরেশ মজুমদার

জন্ম, শিক্ষা ও প্রাথমিক জীবনসম্পাদনা

সমরেশ মজুমদার জন্মগ্রহণ করেন বাংলা ১৩৪৮ সনের ২৬শে ফাল্গুন, ১০ই মার্চ ১৯৪২ খ্রিষ্টাব্দ। তার শৈশব কেটেছে ডুয়ার্সের গয়েরকাটা চা বাগানে। তাঁর প্রাথমিক শিক্ষা শুরু হয় জলপাইগুড়ি জেলা স্কুল থেকে। তিনি কলকাতায় আসেন ১৯৬০ সালে। বাংলায় স্নাতক সম্পন্ন করেন কলকাতার স্কটিশ চার্চ কলেজ থেকে এবং মাস্টার্স সম্পন্ন করেন কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে। কর্মজীবনে তিনি আনন্দবাজার পাবলিশার্স প্রাইভেট লিমিটেডএর সাথে যুক্ত ছিলেন। গ্রুপ থিয়েটারএর প্রতি তার প্রচণ্ড আসক্তি ছিলো। তার প্রথম গল্প “অন্যমাত্রা” লেখাই হয়েছিলো মঞ্চনাটক হিসাবে, আর সেখান থেকেই তার লেখকজীবনের শুরু। তার লেখা অন্যমাত্রা ছাপা হয়েছিলো দেশ পত্রিকায় ১৯৬৭ সালে। সমরেশ মজুমদারের প্রথম উপন্যাস “দৌড়” ছাপা হয়েছিলো দেশেই ১৯৭৫ সালে। তিনি শুধু তাঁর লেখনী গল্প বা উপন্যাসের মধ্যে সীমাবদ্ধ রাখেননি; ছোটগল্প, ভ্রমণকাহিনি থেকে গোয়েন্দাকাহিনি, কিশোর উপন্যাস লেখনীতে তাঁর জুড়ি মেলা ভার। তাঁর প্রত্যেকটি উপন্যাসের বিষয় ভিন্ন, রচনার গতি এবং গল্প বলার ভঙ্গি পাঠকদের আন্দলিত করে। চা বাগানের মদেসিয়া সমাজ থেকে কলকাতার নিম্নবিত্ত মানুষেররা তাঁর কলমে উঠে আসেন রক্ত-মাংস নিয়ে। সমরেশ মজুমদারের উল্লেখযোগ্য উপন্যাসগুলির মধ্যে সাতকাহন, তেরো পার্বণ, স্বপ্নের বাজার, উজান, গঙ্গা, ভিক্টোরিয়ার বাগান, আট কুঠুরি নয় দরজা, অনুরাগ ইত্যাদি উল্লেখযোগ্য। তার ট্রিলজি 'উত্তরাধিকার, কালবেলা, কালপুরুষ' বাংলা সাহিত্য জগতে তাকে বিশেষ খ্যাতির অধিকারী করেছে।

অনেক অসাধারণ লেখনীর শব্দের এই রূপকার জাতীয় এবং আন্তর্জাতিক অনেক পুরস্কার অর্জন করেছেন। ১৯৮২ সালে আনন্দ পুরস্কার, ১৯৮৪ সালে সাহিত্য আকাদেমী পুরস্কার, বঙ্কিম পুরস্কার এবং আইয়াইএমএস পুরস্কার জয় করেছেন। চিত্রনাট্য লেখক হিসাবে জয় করেছেন বিএফজেএ, দিশারী এবং চলচ্চিত্র প্রসার সমিতির এওয়ার্ড। সমরেশ কলকাতা ও বাংলাদেশএর সর্বকালের অন্যতম সেরা লেখক হিসাবে পাঠকমন জয় করেছেন।[তথ্যসূত্র প্রয়োজন]

গ্রন্থ তালিকাসম্পাদনা

  • সত্যমেব জয়তে
  • আকাশ না পাতাল
  • তেরো পার্বন
  • সওয়ার
  • টাকাপয়সা
  • তীর্থযাত্রী
  • ভালবাসা থেকে যায়
  • নিকট কথা
  • ডানায় রোদের গন্ধ
  • জলছবির সিংহ
  • মেয়েরা যেমন হয়
  • একশো পঞ্চাশ (গল্প সংকলন)
  • উত্তরাধিকার
  • কালবেলা
  • কালপুরুষ
  • গর্ভধারিনী
  • হৃদয় আছে যার
  • সর্বনাশের নেশায়
  • ছায়া পূর্বগামিনী
  • এখনও সময় আছে
  • স্বনামধন্য
  • কলিকাল
  • স্বপ্নের বাজার
  • কলকাতা
  • অনুরাগ
  • তিনসঙ্গী
  • ভিক্টোরিয়ার বাগান
  • সহজপুর কতদূর
  • অনি
  • সিনেমাওয়ালা
  • সূর্য ঢলে গেলে
  • আশ্চর্যকথা হয়ে গেছে
  • অগ্নিরথ
  • অনেকই একা
  • আট কুঠুরি নয় দরজা
  • আত্মীয়স্বজন
  • আবাস
  • আমাকে চাই
  • উজান গঙ্গা
  • কষ্ট কষ্ট সুখ
  • কুলকুন্ডলিনী
  • কেউ কেউ একা
  • জনযাজক
  • জলের নিচে প্রথম প্রেম
  • জ্যোৎস্নায় বর্ষার মেঘ
  • দায়বন্ধন
  • দিন যায় রাত যায়
  • দৌড়
  • বড় পাপ হে (গল্প)
  • বিনিসুতোয়
  • মনের মতো মন
  • মেঘ ছিল বৃষ্টিও
  • শরণাগত
  • শ্রদ্ধাঞ্জলি
  • সাতকাহন
  • সুধারানী ও নবীন সন্ন্যাসী
  • হরিনবাড়ি
  • কইতে কথা বাধে
  • মধ্যরাতের রাখাল
  • আকাশে হেলান দিয়ে
  • কালোচিতার ফটোগ্রাফ
  • আকাশকুসুম
  • স্বরভঙ্গ
  • ঐশ্বর্য
  • আকাশের আড়ালে আকাশ
  • কালাপাহাড়
  • অহংকার
  • শয়তানের চোখ
  • হৃদয়বতী
  • সন্ধেবেলার মানুষ
  • বুনোহাঁসের পালক
  • জালবন্দী
  • মোহিনী
  • সিংহবাহিনী
  • বন্দীনিবাস
  • শেষের খুব কাছে
  • জীবন যৌবন
  • আহরণ
  • বাসভূমি
  • এত রক্ত কেন
  • এই আমি রেণু
  • উনিশ বিশ
  • মৌষলকাল
  • মানুষের মা
  • গঙ্গা
  • বাসভূমি
  • লক্ষ্মীর পাঁচালি

পুরস্কার তালিকাসম্পাদনা

আরও দেখুনসম্পাদনা

তথ্যসূত্রসম্পাদনা

  1. "গুরুতর অসুস্থ হয়ে হাসপাতালে সমরেশ মজুমদার"Kalerkantho। ২০২১-০৬-১২। সংগ্রহের তারিখ ২০২১-০৬-১৮ 

বহিঃসংযোগসম্পাদনা