লেবিয়া মেজরা (ইংরেজি: Labia majora) যা বহিস্থ যোনিওষ্ঠ, ও বৃহদোষ্ঠ[১] নামে পরিচিত। ইংরেজি লেবিয়া মেজরা শব্দটি মূলত বহুবচন, এটি এক বচনে লেবিয়াম মেজাস (Labium majus)। লেবিয়া মেজরা হচ্ছে ক্লেফট অফ ভেনাসের পার্শ্বীয় সীমা সংলগ্ন, উপরে মন্স পিউবিস থেকে নিচে পেরিনিয়াম পর্যন্ত বিস্তৃত দুটি মাংশল অক্ষীয় কিউটেনিওয়াস ভাঁজ। সে সকল অঙ্গ-প্রত্যঙ্গ নিয়ে লেবিয়া মেজরা গঠিত তার মধ্যে আছে: লেবিয়া মাইনরা, ইন্টারলেবিয়াল সালসি, ক্লিটোরাল হুড, ক্লিটোরাল গ্ল্যান্স, ফ্রেনুলাম ক্লিটোরিডিস, হার্ট'স লাইন এবং ভালভাল ভেস্টিবিউল। আর এই অংশগুলো নিয়েই ইউরেথ্রাযোনির বহিঃস্থ অংশ (প্রবেশমুখ) গঠিত।

লেবিয়া মেজরা
Clitoris outer anatomy.png
ভগাঙ্কুরের বহিঃস্থ অঙ্গসংস্থান
Gray1229.png
স্ত্রীদেহের বর্হি যৌনাঙ্গ। লেবিয়া মাইনরা অঙ্কিত হয়েছে।
বিস্তারিত
পূর্বভ্রূণজননাঙ্গের স্ফীতি
ধমনীডিপ এক্সটার্নাল পিউডেন্ডাল ধমনী
স্নায়ুঊরূত্বকীয় স্নায়ুর যৌনাঙ্গ শাখা
শনাক্তকারী
লাতিনlabium majus pudendi
টিএ৯৮A09.2.01.003
টিএ২3549
এফএমএFMA:20367
শারীরস্থান পরিভাষা

প্রতিটি লেবিয়া মেজরার দুইটি অংশ রয়েছে। একটি হচ্ছে বহিঃস্থ অংশ, যা রঙিন, এবং চুল বিশিষ্ট; এবং অন্যটি ভেতরের অংশ, যা কোমল ও সেবাসিওয়াস ফলিকল সমৃদ্ধ।

এই দুটির মধ্যস্থিত অংশে যথেষ্ট পরিমাণ অ্যারিওলার কলা, মেদ, কলা বিন্যাসকারী স্ক্রোটামের ডার্টোস টিউনিক, অন্যান্য ভেসেল, স্নায়ু, এবং গ্রন্থি বিদ্যমান।

চিত্রশালাসম্পাদনা

তথ্যসূত্রসম্পাদনা

  1. নারী, হুমায়ুন আজাদ; অধ্যায়: নারী, তার লিঙ্গ ও শরীর; আগামী প্রকাশনী; বাংলাবাজার, ঢাকা। দ্বিতীয় সংস্করণ, চতুর্থ মুদ্রণ (এপ্রিল ১৯৯৪) পৃ. ১৬৭।

আরও দেখুনসম্পাদনা

বহিঃসংযোগসম্পাদনা