রোহুল্লা নিকপাই (জন্ম: ১৫ই জুন ১৯৮৭) একজন হাজারা তাইকুন্ডো অনুশীলনকারী।

রোহুল্লা নিকপাই
পদক রেকর্ড
 আফগানিস্তান -এর প্রতিনিধিত্বকারী
পুরুষদের তাইকুন্ডো
গ্রীষ্মকালীন অলিম্পিক
ব্রোঞ্জ পদক - তৃতীয় স্থান ২০০৮ বেইজিং ৫৮কেজি বিভাগে

ক্যারিয়ারসম্পাদনা

১০বছর বয়সে নিকপাই আফগানিস্তানের কাবুলেতাঁর অনুশীলন শুরু করেন।[১] রাজধানীতে রক্তক্ষয়ী সংগ্রামের সময় তার পরিবার ইরানের বহু আফগান উদ্বাস্তু শিবিরের একটিতে আশ্রয় নেয়। শীঘ্রই তিনি আফগান উদ্বাস্তু তাইকুন্ডো দলের সদস্য হন। ২০০৪ সালে কাবুলে ফেরত এসে, সরকারি অলিম্পিক অনুশীলন কেন্দ্রে তিনি অনুশীলন শুরু করেন। কাতারের দোহাতে অনুষ্ঠিত ২০০৬ এশিয়ান গেমসে নিকপাই ফ্লাইওয়েট বিভাগে প্রতিদ্বন্দিতা করেন। সেখানে রূপোজয়ী থাইল্যান্ডের প্রতিযোগী নাট্টাপং তেওয়াওয়েচাপং-এর কাছে ১৬জনের রাউন্ডে পরাস্ত হন।

২০০৮ গ্রীষ্মকালীন অলিম্পিকে ৫৮কেজি বিভাগে নিকপাই প্রতিদ্বন্দিতা করেন। সেখানে দুবারের বিশ্বসেরা স্পেনের হুয়ান আন্তোনিও রামোসকে হারিয়ে তিনি ব্রোঞ্জ পদক লাভ করেন। এই সাফল্য তাকে আফগানিস্তানের হয়ে অলিম্পিকের যে কোনো বিভাগে প্রথম পদকধারীর সম্মান এনে দেয়। আফগানিস্তানের রাষ্ট্রপতি হামিদ কারজাই তাকে অভিনন্দন দেওয়া ছাড়াও সরকারি খরচে একটি বাড়ি দান করেন।[২] নিকপাই বলেন, "আমি আশা করি, ৩০বছরের যুদ্ধের পর আমার দেশে এটি একটি শান্তির বার্তা পাঠাবে।"[৩][৪]

জীবনীসম্পাদনা

২০০৯সালের আগস্ট মাসে নিকপাই-এর বিয়ে ঠিক হয়।

আরও দেখুনসম্পাদনা

পাদটিকাসম্পাদনা

  1. Nikpai hopes his medal can serve as message of peace ESPN
  2. [১]
  3. Amir Shah (২০ আগস্ট ২০০৮)। "Afghanistan in awe after winning first Olympic medal."Associated PressUSA Today। সংগ্রহের তারিখ ২০০৮-০৮-২০  অজানা প্যারামিটার |coauthors= উপেক্ষা করা হয়েছে (|author= ব্যবহারের পরামর্শ দেয়া হচ্ছে) (সাহায্য)
  4. "Athlete Biography of Rohullah Nikpai"। ২৭ আগস্ট ২০০৮ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২৭ আগস্ট ২০০৮