প্রধান মেনু খুলুন

রাসেল আইরা ক্রো (ইংরেজি: Russell Ira Crowe) (জন্ম: ৭ এপ্রিল, ১৯৬৪) একজন অস্ট্রেলীয় অভিনেতা, চলচ্চিত্র প্রযোজক ও গায়ক। নিউজিল্যান্ডীয় নাগরিক হওয়া স্বত্ত্বেও তিনি তার জীবনের বেশিরভাগ সময় অস্ট্রেলিয়াতে কাটিয়েছেন। ১৯৯০-এর শুরুতে পুলিশ রেসকিউ-এর মতো অস্ট্রেলীয় ধারাবাহিক এবং রম্পার স্টম্পার-এর মতো চলচ্চিত্রে অভিনয়ের মাধ্যমে তার অভিনয় জীবন শুরু হয়। ১৯৯০-এর শেষ দিকে এসে তিনি আমেরিকান চলচ্চিত্রে অভিনয় শুরু করেন; যেমন: ১৯৯৭-এর মুভি এল.এ. কনফিডেন্সিয়াল। তিনি তিনবার অস্কারের জন্য মনোনীত হয়েছেন, এবং ২০০১ সালে তিনি গ্ল্যাডিয়েটর চলচ্চিত্রে রোমান জেনারেল ম্যাক্সিমাস ডেসিমাস মেরিডিয়াস ভূমিকায় অনবদ্য অভিনয়ের জন্য সেরা অভিনেতা বিভাগে একাডেমি পুরস্কারসহ একাধিক পুরস্কার লাভ করেন।

রাসেল ক্রো
RussellCroweOct05.jpg
অক্টোবর ২০০৫-এ আ গুড ইয়ার চলচ্চিত্রের চিত্রধারণের সময় পিকাডেলি সার্কাসে ক্রো
স্থানীয় নাম
Russell Crowe
জন্ম
রাসেল আইরা ক্রো

(1964-04-07) ৭ এপ্রিল ১৯৬৪ (বয়স ৫৫)
পেশাঅভিনেতা, গায়ক, গীতিকার
কার্যকাল১৯৮৬–বর্তমান
দাম্পত্য সঙ্গীড্যানিয়েল স্পেন্সার (২০০৩–বর্তমান)
সন্তান

২০০১ সালে আ বিউটিফুল মাইন্ড চলচ্চিত্রে জন ফর্ব্‌স ন্যাশ চরিত্রে অভিনয় করে শ্রেষ্ঠ প্রধান চরিত্রে অভিনেতা বিভাগে বাফটা পুরস্কার, গোল্ডেন গ্লোব পুরস্কারস্ক্রিন অ্যাক্টরস গিল্ড পুরস্কার লাভ করেন। ক্রোর অন্যান্য উল্লেখযোগ্য চলচ্চিত্র হল মাস্টার অ্যান্ড কমান্ডার: দ্য ফার সাইড অব দ্য ওয়ার্ল্ড (২০০৩), সিনড্রেলা ম্যান (২০০৫), আমেরিকান গ্যাংস্টার (২০০৭), স্টেট অব প্লে (২০০৯), রবিনহুড (২০১০), লে মিজেরাবল (২০১২), ম্যান অব স্টিল (২০১৩) এবং নূহ (২০১৪)। ২০১৫ সালে দ্য ওয়াটার ডিভাইনার চলচ্চিত্র দিয়ে তার পরিচালনায় অভিষেক হয় এবং তিনি এতে অভিনয় করেন।

রাসেল ক্রো একই সাথে জাতীয় রাগবি লীগ-এর সাউথ সিডনি র‌্যাবিটহস-এর একজন সহ-স্বত্তাধিকারী। নিউজিল্যান্ড ক্রিকেট দলের সাবেক ব্যাটসম্যানদ্বয়অধিনায়কদ্বয় মার্টিন ক্রো এবং জেফ ক্রো তার কাকাতো ভাই।[১]

তথ্যসূত্রসম্পাদনা

  1. "Russell Crowe Russell Crowe Revealed... the Hollywood actor's family ties with Wrexham, BBC News, accessdate: 30 May 2009"। ২৩ মে ২০১০ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১৯ জুলাই ২০১৩ 

বহিঃসংযোগসম্পাদনা