মোহাম্মেদ জিসান আইয়ুব

অভিনেতা

মোহাম্মেদ জিসান আইয়ুব খান (জন্ম: ১৯৮৪) একজন ভারতীয় অভিনেতা, যিনি বলিউডে অভিনয় করেন,[১] তিনি অধিক পরিচিত রানঝানা (২০১৩) চলচ্চিত্রের মূল অভিনেতা দানুশ এর প্রিয় বন্ধু মুরারি চরিত্রে অভিনয়ের জন্য।[২]

মোহাম্মেদ জিসান আইয়ুব
MohammedZeeshanAyyub.jpg
জন্ম১৯৮৪
পেশাঅভিনেতা
টেলিভিশন উপস্থাপক
কর্মজীবন২০১১–বর্তমান
উচ্চতা১.৭৮ মি.
দাম্পত্য সঙ্গীরাশিকা আগাশ্রী (m. ২০০৭)
সন্তানরাহি (কন্যা)

কর্মজীবনসম্পাদনা

তিনি দিল্লিতে জন্ম ও বেড়ে ওঠেছেন। তিনি কিরোরি মাল কলেজ থেকে গ্রাজুয়েট হন, তিনি ন্যাশনাল স্কুল অব ড্রামা (এনএসডি), দিল্লি থেকে প্রশিক্ষণ নেন।[৩]

তিনি মঞ্চ অভিনেতা হিসেবে কাজ করেন ২০১১-এ তার প্রথম চলচ্চিত্র নো ওয়ান কিলড জেসিকা এ অভিনয়ের পূর্বে, এই চলচ্চিত্রে তিনি প্রধান খলনায়ক হিসাবে অভিনয় করেন।[৪] পরে তিনি অভিনয় করেন ২০১১-এ মেরে ব্রাদার কি দুলহান চলচ্চিত্রে ইমরান খানের প্রিয় বন্ধুর ভূমিকায়।[৩]

২০১২-এ জান্নাত ২ চলচ্চিত্রে বালি চরিত্রে অভিনয় করেন। ২০১৩-এ, তাকে দেখা যায় রানঝানা চলচ্চিত্রে প্রধান চরিত্রের প্রিয় বন্ধুর ভূমিকায়, যার জন্য তিনি খুবই ভালোভাবে সাড়া পান। প্লানেট বলিউডের কৌশিক রমেশ তার অভিনয়কে উল্লেখ করেছেন উল্লেখযোগ্যভাবে প্রশংসনীয়[৫][৬] ২০১৫-এ, তিনি সমালোচকদের সুনাম কুড়াতে সমর্থ হন তনু ওয়েডস মনু ২ চলচ্চিত্রে এ্যাডভোকেট আরুন কুমার সিং (চিন্টু) চরিত্রে অভিনয়ের মাধ্যমে।[৭] তিনি আরো অভিনয় করেছেন ভারতীয় এ্যকশনধর্মী থ্রিলার চলচ্চিত্র ফ্যান্টম (২০১৫) এ একজন 'র' অফিসারের ভূমিকায় অভিনয় করেছেন। ২০১৭ সালের ভারতীয় অ্যাকশন ক্রাইম থ্রিলার চলচ্চিত্র রইস -এ সাদিক চরিত্রে অভিনয় করেন। 'রইস' চরিত্রে অভিনয় করেন ভারতের জনপ্রিয় অভিনেতা শাহরুখ খান। চলচ্চিত্রটিতে সাদিক, রইসের বিশ্বস্ত বন্ধু ও অপরাধের সহযোগী।[৮] তিনি টিউবলাইট (২০১৭) চলচ্চিত্রেও অভিনয় করেছেন, যেখানে মূল চরিত্রে অভিনয় করেছেন সালমান খান

চলচ্চিত্রের তালিকাসম্পাদনা

বছর চলচ্চিত্র ভূমিকা ব্যাখ্যা
২০১১ নো ওয়ান কিলড জেসিকা মনু
২০১১ মেরে ব্রাদার কি দুলহান শবহীত
২০১২ জান্নাত ২ বালি
২০১৩ রানঝানা মুরারি
২০১৩ শহীদ আরিফ
২০১৩ মাজি আশফাক
২০১৪ রাজা নাটওয়ালাল হিট ম্যান
২০১৫ ডোলি কি ডলি রাজু
২০১৫ তানু ওয়েডস মানু ২ আরুন "চিন্টু" কুমার সিং
২০১৫ অল ইজ ওয়েল চিমা
২০১৫ প্যানটম সামিত
২০১৭ রইস সাদিক
২০১৭ টিউবলাইট
২০১৮ আইয়ারে

তথ্যসূত্রসম্পাদনা

  1. "Never thought 'Raees' would become so big: Zeeshan Ayyub"। TOI। ১৫ জুলাই ২০১৩। 
  2. "Never thought 'Raanjhanna' would become so big: Zeeshan Ayyub"। The Times of India। ১৫ জুলাই ২০১৩। সংগ্রহের তারিখ ২০১৫-০৫-২৭ 
  3. "Zeeshan's Career"। India Today। সংগ্রহের তারিখ ১০ অক্টোবর ২০১৪ 
  4. "Struggle is a part of acting profession: Mohammed Zeeshan Ayyub"IBNLive। ২ আগস্ট ২০১৩। সংগ্রহের তারিখ ২০১৫-০৫-২৭ 
  5. Ramesh, Kaushik। "Review by Kaushik Ramesh"। ১৬ জুলাই ২০১৩ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ৩০ জুন ২০১৩ 
  6. "Zeeshan Ayub iin Ranjhana and Jannat 2"। TOI। সংগ্রহের তারিখ ১০ অক্টোবর ২০১৪ 
  7. Rohit Vats (২৭ মে ২০১৫)। "Tanu Weds Manu Returns: Praise Kangana, but don't ignore others"Hindustan Times, New Delhi। ২৭ মে ২০১৫ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২০১৫-০৫-২৭ 
  8. IANS (২৫ জানুয়ারি ২০১৭)। "Raees review: A typical Shah Rukh entertainer with over-the top drama" – Business Standard-এর মাধ্যমে। 

বহিঃসংযোগসম্পাদনা