মেইল ট্রেন[১][২] বা মেল ট্রেন হচ্ছে রেল পরিবহনের একটি যাত্রীবাহী পরিষেবা। মেইল ট্রেনের উদ্ভব হয়েছিলো ডাক বিভাগের সাথে সমন্বয় করে। ১৯শতকে মেইল ও এক্সপ্রেস ট্রেনের মধ্যে পার্থক্য থাকলেও ২১শতকে তা আর নেই। ২১শতকে মেইল ও এক্সপ্রেস ট্রেনগুলো একই ধরনের যাত্রীসেবা দিয়ে থাকে।

এক্সপ্রেস ও মেইল ট্রেনের পার্থক্যসম্পাদনা

এক্সপ্রেস ও মেইল ট্রেনে বর্তমানে আর পার্থক্য না থাকলেও এক সময়ে ছিল। তখন মেল গাড়ির বাকি কামরার সঙ্গে ডাক বাক্সের রঙের মতো একটি লাল রঙের কামরা যুক্ত থাকত। কামরার বাইরে লেখা থাকত আর এম এস বা রেলওয়ে মেল সার্ভিস। ভারতীয় ডাক বিভাগের সঙ্গে ভারতীয় রেলওয়ের যৌথ সহযোগিতায় চিঠিপত্রের আদান-প্রদান চলত এই কামরার মাধ্যমে। তখন যে ট্রেনের সঙ্গে এই কামরা যুক্ত থাকত তারা একটু কুলিন পর্যায়ের ছিল। তবে সেই কৌলিন্যের দিন এখন আর নেই। এখন এক্সপ্রেস ও মেইল ট্রেনে কোনও তফাৎ নেই। আবার এখন এমনও এক্সপ্রেস ট্রেন আছে যাতে আর এম এস কামরা আছে। মোটামুটি ভাবে গত শতকের ৭০ দশকের পর থেকে মেল ট্রেনের সঙ্গে বিশেষ ভাবে আর এম এস কামরা যুক্ত হওয়ার বিষয়টি উঠে যেতে শুরু করে এবং প্রয়োজনের নিরিখে এক্সপ্রেস ট্রেনের সঙ্গেও আর এম এস যুক্ত হতে থাকে। তাই আজকের দিনে এই দুই ট্রেনে কোনও তফাৎই নেই।

উল্লেখযোগ্য কিছু মেল ট্রেনসম্পাদনা

তথ্যসুত্রসম্পাদনা

  1. "মেইল ট্রেনের নিরাপত্তায় পুলিশই থাকে না"Bangla Tribune। সংগ্রহের তারিখ ২০২২-০১-২৮ 
  2. "চালকের দক্ষতায় অল্পের জন্য বেঁচে গেল রকেট মেইল ট্রেন | কালের কণ্ঠ"Kalerkantho। ২০২১-০৮-১৫। সংগ্রহের তারিখ ২০২২-০১-২৮