মুর্শিদ

ইসলামী সুফিবাদে আধ্যাত্মিক পথপ্রদর্শক

মুর্শিদ (আরবি: مرشد‎‎) আরবি শব্দ যার অর্থ পথপ্রদর্শক" বা শিক্ষক, র-শ-দ মূলধাতু থেকে উদ্ভব[১] বিশেষত সুফিবাদে এটাকে আধ্যাত্মিক পথপ্রদর্শক হিসেবে বোঝানো হয়। শব্দটি প্রায়ই ব্যবহৃত হয় সুফি তরিকা যেমন কাদেরিয়া, নকশবন্দিয়া, চিশতিয়া, শাজলিয়া এবং সোহরাওয়ার্দীয়া

সুফিবাদের পথ শুরু হয় যখন একজন ছাত্র (মুরিদ) একজন আধ্যাত্মিক পথপ্রদর্শক (মুর্শিদ) থেকে আনুগত্যের শপথ নেয় বা বায়াহ (বায়াত) হয়। আনুগত্যের এই সূচনা চুক্তির কথা বলতে গিয়ে কুরআন বলেছে: ওইসব লোক, যারা আপনার নিকট বায়'আত গ্রহণ করছে, তারা তো আল্লাহরই নিকট বায়া'আত গ্রহণ করছে। তাদের হাতগুলোর উপর "আল্লাহর হাত' রয়েছে। সুতরাং যে কেউ অঙ্গীকার ভঙ্গ করেছে, সে নিজেরই অনিষ্টার্থে অঙ্গীকার ভঙ্গ করেছে৷ আর যে কেউ পূরণ করেছে ওই অঙ্গীকারকে, যা সে আল্লাহর সাথে করেছিলো, তবে অতিসত্বর আল্লাহ তাকে মহাপুরস্কার দেবেন। (৪৮:১০) [২]


মুর্শিদের ভূমিকা হল শিষ্যকে সুফি পথে আধ্যাত্মিক পথ প্রদর্শন এবং মৌখিকভাবে নির্দেশনা দেওয়া, কিন্তু কেবল সেই ব্যক্তি যিনি নিজেকে আধ্যাত্মিক পথের শেষ পর্যন্ত পৌঁছেছেন তিনিই হলেন আরবি শব্দে সম্পূর্ণ অর্থে মুর্শিদ'

সাধারণত একজন মুর্শিদকে একটি তরিকার (আধ্যাত্মিক পথ) শিক্ষক হওয়ার জন্য অনুমোদন দেওয়া হয়৷ যেকোনো তরিকা বা সিলসিলার একেবারে একজন মুর্শিদ থাকে যিনি ওই আধ্যাত্মিক তরিকার প্রধান৷ তিনি শায়খ নামে পরিচিত: যে প্রক্রিয়ায় শায়খ তাঁর শিষ্যদের একজনকে তাঁর উত্তরসূরী হিসেবে খলিফার জন্য নির্ধারণ করেন।

গুরুত্বসম্পাদনা

তথ্যসূত্রসম্পাদনা

  1. See Hans Wehr's Arabic Dictionary, 4th ed., s.v. rašada.
  2. Cf. Martin Lings, What is Sufism, Islamic Texts Society, Cambridge, p. 125.