মার্স পাথফাইন্ডার

মার্স পাথফাইন্ডার (ইংরেজি: Mars Pathfinder) একটি আমেরিকান রোবোটিক স্পেসক্র্যাফট যা ১৯৯৭ সালে মঙ্গল গ্রহের প্রষ্ঠে রোভিং তদন্ত করার জন্য একটি বেস স্টেশনে অবতরণ করে। এটি একটি ল্যান্ডারের সমন্বয়ে "কার্ল সাগান মেমোরিয়াল স্টেশন" নামকরন গ্রহণ করে এবং এর সঙ্গে ছিল হালকা ওজন (১০.৬ কেজি / ২৩ পাউন্ড) চাকাযুক্ত রোবোটিক মঙ্গল রোভার "সজরনার", যা পৃথিবীর উপগ্রহ চাঁদের বাইরে পরিচালিত প্রথম রোভার হয়ে ওঠে।

মার্স পাথফাইন্ডার
Mars Pathfinder Lander preparations.jpg
অভিযানের ধরনল্যান্ডার · রোভার (মঙ্গল)
পরিচালকনাসা
অভিযানের সময়কালপাথফাইন্ডার: ৮৫ দিন
সজরনার': ৭ দিন
শুরু থেকে শেষ যোগাযোগ': ৯ মাস, ২৩ দিন
মহাকাশযানের বৈশিষ্ট্য
উৎক্ষেপণ ভর৮৯০ কিলোগ্রাম
ক্ষমতা"পাথফাইন্ডার": ৩৫ ওয়াট
"সজরনার': ১৩ ওয়াট
অভিযানের শুরু
উৎক্ষেপণ তারিখ৪ ডিসেম্বর ১৯৯৬ (1996-12-04) ০৬:৫৮:০৭ UTC
(২৪ বছর, ৭ মাস ও ২১ দিন আগে)
উৎক্ষেপণ রকেটডেল্টা দুই ৭৯২৫
অভিযানের সমাপ্তি
সর্বশেষ যোগাযোগ২৭ সেপ্টেম্বর ১৯৯৭ (1997-09-27) ১০:২৩ UTC
(২৩ বছর, ৯ মাস ও ২৮ দিন আগে)

১৯৯৬ সালের ৪ ডিসেম্বর নাসার একটি ডেল্টা টু রকেটের বুস্টারের মাধ্যমে পাথফাইন্ডার যাত্রা শুরু করে, এটি জুলাই ৪, ১৯৯৭ এ অক্সিয়া প্যালাস চতুর্ভুজায় "ক্রাইস প্লানিটিয়া" নামে একটি অঞ্চলে মঙ্গল গ্রহের "আরেস ভ্যালিসে" অবতরণ করে। ল্যান্ডারটি তারপরে রোভারটি উন্মোচন করে মঙ্গল পৃষ্ঠের উপরে অনেক পরীক্ষা চালিয়েছিল। এই মিশনটি মঙ্গলীয় বায়ুমণ্ডল, জলবায়ু, ভূতত্ত্ব এবং এর শিলা ও মাটির গঠন বিশ্লেষণ করার জন্য একাধিক বৈজ্ঞানিক যন্ত্রপাতি বহন করেছিল।

মিশনের লক্ষ্য ও উদ্দেশ্যসম্পাদনা

  • "দ্রুত, আরও উন্নত এবং সস্তা" মহাকাশযানের বিকাশ সম্ভব হয়েছিল তা প্রমাণ করার জন্য‍।
  • ভাইকিং মিশনের এক-পনেরোংশ খরচে মঙ্গলে প্রচুর বৈজ্ঞানিক উপকরণ পাঠানো ও তার মাধ্যমে পরীক্ষা করা সম্ভব ছিল তা দেখাতে।
  • লঞ্চ যান এবং মিশন কার্যক্রম সহ সর্বমোট ২৮০ মিলিয়ন ডলার ব্যয় করে কম খরচে মিশনটি সম্পন্ন করে নাসার প্রতিশ্রুতি প্রদর্শন করা।

বৈজ্ঞানিক পরীক্ষা ও যন্ত্রসমূহসম্পাদনা

মার্স পাথফাইন্ডার তিনটি বৈজ্ঞানিক যন্ত্র ব্যবহার করে মঙ্গলীয় মাটিতে বিভিন্ন তদন্ত চালিয়েছিল। ল্যান্ডারটিতে ইমেজার ফর মার্স প্যাথফাইন্ডার (আইএমপি) এবং বায়ুমণ্ডলীয় কাঠামো সরঞ্জাম / আবহাওয়া বিজ্ঞান প্যাকেজ (এএসআই / এমইটি) নামে একটি যন্ত্র যা একট আবহাওয়া স্টেশন হিসেবে কাজ করে। মেরুতে স্থানিক ফিল্টার সহ স্টেরিওস্কোপিক ক্যামেরা ছিল যা চাপ, তাপমাত্রা, এবং তাপমাত্রা সম্পর্কে তথ্য সংগ্রহ করে। এছাড়া এমইটি কাঠামোর মধ্যে রয়েছে একটি মেরুতে তিনটি উচ্চতায় মাউন্ট করা তিনটি উইন্ডসক, প্রায় এক মিটার (ইয়ার্ড) শীর্ষে এবং সাধারণত পশ্চিম দিক থেকে বায়ু নিবন্ধন করত।[১]

সজরনার রোভারের যন্ত্র হিসেবে ছিল একটি আলফা প্রোটন এক্স-রে স্পেকট্রোমিটার (এপিএক্সএস) যা পাথর এবং মাটির উপাদান বিশ্লেষণ করতে ব্যবহৃত হয়েছিল। রোভারটিতে দুটি কালো-সাদা এবং একটি রঙিন ক্যামেরা ছিল। এই যন্ত্রগুলি মঙ্গলীয় পৃষ্ঠের ভূতত্ত্বকে কয়েক মিলিমিটার থেকে কয়েকশো মিটার অবধি, শিলা এবং ভূ-পৃষ্ঠের ভূ-রসায়ন এবং বিবর্তনীয় ইতিহাস, ভূমির চৌম্বকীয় এবং যান্ত্রিক বৈশিষ্ট্যগুলিসহ পাশাপাশি ধুলার চৌম্বকীয় বৈশিষ্ট্যগুলি, বায়ুমণ্ডল, গ্রহের ঘূর্ণমান এবং কক্ষপথের গতিশীলতাও অনুসন্ধান করতে পারে।

পাথফাইন্ডার ল্যান্ডারসম্পাদনা

  1. Imager for Mars Pathfinder (IMP), (চৌম্বকীয় এবং অ্যানিমোমিটার অন্তর্ভুক্ত)
  2. Atmospheric and meteorological sensors (ASI/MET)

সজরনার রোভারসম্পাদনা

  1. Imaging system (৩টি ক্যামেরা)
  2. Laser striper hazard detection system
  3. Alpha Proton X-ray Spectrometer (APXS)
  4. Wheel Abrasion Experiment
  5. Materials Adherence Experiment
  6. Accelerometers

অবতরণ স্থানসম্পাদনা

অবতরণ স্থানটি ছিল মঙ্গল গ্রহের উত্তর গোলার্ধের একটি প্রাচীন বন্যভূমি যা "আরেস ভ্যালিস" নামে পরিচিত ("আরিস উপত্যকা", প্রাচীন রোমান দেবতার নামের সমতুল্য) এবং এটি মঙ্গল গ্রহের সবচেয়ে পাথরীয় অংশগুলির মধ্যে একটি। বিজ্ঞানীরা এটিকে বেছে নিয়েছিলেন কারণ তারা দেখেছিলেন যে এটির স্থলভাগ তুলনামূলকভাবে নিরাপদ পৃষ্ঠ এবং মঙ্গলের প্রাচীনকালে একটি বিপর্যয় বন্যার সময় এই স্থানটি বিভিন্ন ধরনের পাথর জমা করেছিল।[২]

অবতরণের পরে ল্যান্ডার একজন জ্যোতির্বিদের সম্মানে "কার্ল সাগান মেমোরিয়াল স্টেশন" নামটি পেয়েছিল।

পাথফাইন্ডার ও সজরনার থেকে প্রাপ্ত ফলাফলসম্পাদনা

ল্যান্ডার ১৬,৫০০ ছবি সহ ২.৩ বিলিয়ন বাইট (২৮7.৫ মেগাবাইট) এর বেশি তথ্য প্রেরণ করেছে এবং বায়ুমণ্ডলের চাপ, তাপমাত্রা এবং বাতাসের গতির ৮৫ লক্ষ বার পরিমাপ করেছে।

সূর্য থেকে বিভিন্ন দূরত্বে আকাশের একাধিক চিত্র নিয়ে বিজ্ঞানীরা নির্ধারণ করতে পেরেছিলেন যে গোলাপী কুঁচকে কণার আকার ব্যাসার্ধের প্রায় এক মাইক্রোমিটার ছিল যা কিছু মৃত্তিকার রঙের লোহার অক্সাইহাইড্রক্সাইড ধাপের অনুরূপ যা অতীতে উষ্ণ এবং জলের আবহাওয়ার তত্ত্বকে সমর্থন করে। ধুলার চৌম্বকীয় উপাদানটি পরীক্ষা করতে পাথফাইন্ডার একাধিক চৌম্বক বহন করে। চুম্বকগুলির একটি ছাড়া বাকি সবগুলো ধুলার আবরণ তৈরি করে।

সজরনার মোটামুটি প্রায় ১০০ মিটার ভ্রমণ করেছিল। অভিযানের সময়, এটি পৃথিবীতে ৫৫০ টি ছবি প্রেরণ করে এবং ল্যান্ডারের নিকটবর্তী ১৬ টি জায়গার রাসায়নিক বৈশিষ্ট্য বিশ্লেষণ ও পরীক্ষন করে।

মিশনের সমাপ্তিসম্পাদনা

যদিও মিশনটি এক সপ্তাহ থেকে এক মাস পর্যন্ত চলার পরিকল্পনা করা হয়েছিল, রোভারটি প্রায় তিন মাস ধরে সফলভাবে কাজ করেছিল। অক্টোবরের পরে যোগাযোগ ব্যর্থ হয়।

চূড়ান্ত ডেটা ট্রান্সমিশন ২৭ সেপ্টেম্বর, ১৯৯৭-এ ১০:২৩ ইউটিসি-তে পাঠফাইন্ডার থেকে প্রাপ্ত হয়েছিল। মিশন পরিচালকরা পরবর্তী পাঁচ মাসের মধ্যে সম্পূর্ণ যোগাযোগ পুনরুদ্ধার করার চেষ্টা করেছিলেন, তবে মিশনটি মার্চ ১০, ১৯৯৮ এ শেষ করা হয়েছিল। এক মাস ধরে চালনার জন্য ডিজাইন করা ব্যাটারি বারবার চার্জ এবং ডিসচার্জ হওয়ার পরে সম্ভবত অকার্যকর হয়েছিল।

গ্যালারীসম্পাদনা

তথ্যসূত্রসম্পাদনা

  1. Schofield, J. T.; Barnes, J. R.; Crisp, D.; Haberle, R. M.; Larsen, S.; Magalhães, J. A.; Murphy, J. R.; Seiff, A.; Wilson, G. (১৯৯৭-১২-০৫)। "The Mars Pathfinder Atmospheric Structure Investigation/Meteorology (ASI/MET) Experiment"Science (ইংরেজি ভাষায়)। 278 (5344): 1752–1758। আইএসএসএন 0036-8075ডিওআই:10.1126/science.278.5344.1752পিএমআইডি 9388169 
  2. "Mars Pathfinder - Science Results - Geology and Geomorphology"web.archive.org। ২০০৮-০৯-২০। সংগ্রহের তারিখ ২০২০-০৯-১৯