প্রধান মেনু খুলুন

মার্লে ওবেরন

ব্রিটিশ অভিনেত্রী

মার্লে ওবেরন (ইংরেজি: Merle Oberon; জন্ম: এস্টেল মার্লে ওব্রায়েন টমসন, ১৯ ফেব্রুয়ারি ১৯১১ - ২৩ নভেম্বর ১৯৭৯) ছিলেন একজন ব্রিটিশ-মার্কিন অভিনেত্রী। তিনি ব্রিটিশ চলচ্চিত্র দ্য প্রাইভেট লাইফ অব এইটথ হেনরি (১৯৩৩)-এ অ্যান বলেইন চরিত্রে অভিনয়ের মধ্যে দিয়ে তার চলচ্চিত্র জীবন শুরু করেন। দ্য স্কারলেট পিম্পার্নেল (১৯৩৪) ছবিতে সফলতা অর্জনের পর তিনি স্যামুয়েল গোল্ডউইনের ছবিতে অভিনয়ের জন্য মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে যান। তিনি দ্য ডার্ক অ্যাঞ্জেল (১৯৩৫) ছবিতে অভিনয় করে শ্রেষ্ঠ অভিনেত্রীর জন্য একাডেমি পুরস্কারের মনোনয়ন লাভ করেন। ১৯৩৭ সালে এক গাড়ি দুর্ঘটনায় তিনি মুখে আঘাত পান।[১] তিনি আঘাত সারিয়ে ১৯৭৩ সাল পর্যন্ত চলচ্চিত্র ও টেলিভিশনে সক্রিয় ছিলেন। তিনি ত্রিশটির অধিক চলচ্চিত্রে অভিনয় করেছেন, তন্মধ্যে তার সবচেয়ে উল্লেখযোগ্য চলচ্চিত্র ছিল উদারিং হাইটস্‌ (১৯৩৯)।[২]

মার্লে ওবেরন
Merle Oberon-publicity.JPG
১৯৪৩ সালে প্রচারণামূলক ছবিতে ওবেরন
স্থানীয় নাম
Merle Oberon
জন্ম
এস্টেল মার্লে ওব্রায়েন টমসন

(১৯১১-০২-১৯)১৯ ফেব্রুয়ারি ১৯১১
মৃত্যু২৩ নভেম্বর ১৯৭৯(1979-11-23) (বয়স ৬৮)
পেশাঅভিনেত্রী
কার্যকাল১৯২৮-১৯৭৩
দাম্পত্য সঙ্গীআলেকজান্ডার কর্ডা
(বি. ১৯৩৯; বিচ্ছেদ. ১৯৪৫)

লুসিয়েন বালার্ড
(বি. ১৯৪৫; বিচ্ছেদ. ১৯৪৯)

ব্রুনো পাগলিয়াই
(বি. ১৯৫৭; বিচ্ছেদ. ১৯৭৩)

রবার্ট ওল্ডারস
(বি. ১৯৭৫; মৃ. ১৯৭৯)
সন্তান

প্রারম্ভিক জীবনসম্পাদনা

এস্টেল মার্লে ওব্রায়েন টমসন[৩][৪] ১৯১১ সালের ১৯শে ফেব্রুয়ারি ব্রিটিশ ভারতের বম্বে শহরে জন্মগ্রহণ করেন। ১৯১১ সালে রাজা পঞ্চম জর্জের সাথে রানী ম্যারির ভারতে আগমনের সম্মানার্থে মার্লের ডাকনাম প্রদান করা হয় "কুইনি"।[৫] মার্লের জন্মসনদে উল্লেখ রয়েছে তার পিতা আর্থার টেরেন্স ওব্রায়েন টমসন ছিলেন একজন ব্রিটিশ যন্ত্র প্রকৌশলী, যিনি ডার্লিংটনের নিবাসী ছিলেন এবং ভারতের রেলওয়েতে কর্মরত ছিলেন।[৬] তার জন্মসনদ অনুযায়ী তার মাতা শার্লট সেলবি ইউরেশীয়, যিনি সিলনের নিবাসী ছিলেন এবং তার পূর্বপূরুষগণ মাওরি ছিলেন।[৭] মার্লের প্রকৃত মাতা ছিলেন শার্লটের ১২ বছর বয়সী কন্যা কনস্ট্যান্স। চা বাগানের আইরিশ ফোরম্যান হেনরি আলফ্রেড সেলবির সাথে শার্লটের সম্পর্ক ছিল এবং শার্লট ১৪ বছর বয়সে কনস্ট্যান্সকে জন্ম দেন।[৭]

তথ্যসূত্রসম্পাদনা

  1. লিবম্যান, লিসা (২৮ জুলাই ২০১৭)। "The Fascinating Old Hollywood Story That Inspired The Last Tycoon's Best Plotline"ভ্যানিটি ফেয়ার (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ১৯ ফেব্রুয়ারি ২০১৯ 
  2. "Merle Oberon | British-American actress"এনসাইক্লোপিডিয়া ব্রিটানিকা (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ১৯ ফেব্রুয়ারি ২০১৯ 
  3. হাইয়াম ও মসলি ১৯৮৩, পৃ. ২৪।
  4. "£5,000 Damages for Merle Oberon"দ্য গ্লাসগো হেরাল্ড (ইংরেজি ভাষায়)। ৫ মে ১৯৩৮। সংগ্রহের তারিখ ১৯ ফেব্রুয়ারি ২০১৯ – গুগল নিউজ-এর মাধ্যমে। 
  5. হাইয়াম ও মসলি ১৯৮৩, পৃ. ২৫।
  6. হাইয়াম ও মসলি ১৯৮৩, পৃ. ২১।
  7. হাইয়াম ও মসলি ১৯৮৩, পৃ. ১৮।

বহিঃসংযোগসম্পাদনা