ভ্যানেসা লরেন্স

ভ্যানেসা ভিভিয়েন লরেন্স (জন্ম: ১৪ জুলাই ১৯৬২) একজন ব্রিটিশ ব্যবসায়ী, ভূগোলবিদ এবং বক্তা যিনি আন্তর্জাতিক পরিমণ্ডলে কাজ করছেন।

ভ্যানেসা লরেন্স

জিবিআর, সিবি, এফআরজিএস, এফআরআইসিএস, এফআরএসজিএস
Vanessa Lawrence 2012-11-23 TobiasK-crop.jpg
ডিরেক্টর-জেনারেল ও প্রধান নির্বাহী, অর্ডান্যান্স সার্ভে
কাজের মেয়াদ
২০০০ – এপ্রিল, ২০১৪
পূর্বসূরীডেভিড উইলি
উত্তরসূরীনীল অ্যাক্রোয়িড
ব্যক্তিগত বিবরণ
জন্ম (1962-07-14) ১৪ জুলাই ১৯৬২ (বয়স ৬০)
অ্যামেরশাম, বাকিংহ্যামশায়ার[১]

২০০০ সাল থেকে ২০১৪ সালের এপ্রিল পর্যন্ত দীর্ঘ ১৪ বছর যাবত তিনি গ্রেট ব্রিটেনের জাতীয় মানচিত্র তৈরিকারক সংস্থা অর্ডানেন্স সার্ভের ডিরেক্টর-জেনারেল এবং প্রধান নির্বাহী হিসেবে দায়িত্বরত ছিলেন। [২] তিনি ছিলেন এই পদে অধিষ্ঠিত প্রথম মহিলা এবং তার বিদায়ের মুহূর্তে বিগত এক-শতাব্দীর মধ্যে সকল পূর্বসূরীদের চেয়ে দীর্ঘ সময় ব্যাপী প্রধানের দায়িত্ব পালনকারী ব্যক্তি। [৩][৪][৫]

২০০৮ সালের জানুয়ারিতে লরেন্সকে নববর্ষ সম্মাননার (নিউ ইয়ার্স অনার্স) তালিকায় সর্বাধিক সম্মানজনক বাথ অর্ডারের সহচর বা কম্প্যানিয়ন অব মোস্ট অনারেবল অর্ডার অব দ্য বাথ (সিবি) হিসেবে ভূষিত করা হয়েছিল। [৬] তিনি পুর প্রকৌশল জরিপ ইনস্টিটিউশন (ইনস্টিটিউশন অব সিভিল ইঞ্জিনিয়ারিং সার্ভেয়ার্স) এবং রয়েল প্রকৌশল একাডেমির সম্মানসূচক সভ্য অর্থাৎ ফেলো নির্বাচিত হয়েছিলেন। [৭] তিনি রয়েল চার্টার্ড সার্ভেয়ার্স ইনস্টিটিউশনের ফেলো, চার্টার্ড ম্যানেজমেন্ট ইনস্টিটিউটের সহযোগী,[৮] রয়েল ভূগোল সমিতির ফেলো, রয়েল-স্কটিশ ভূগোল সমিতির সম্মানসূচক ফেলো[৯] এবং চার্টার্ড ভূগোলবিদ হিসেবেও নিযুক্ত রয়েছেন। [১০]

তার সরকারী কর্মজীবনে তিনি এসিইর সহ-প্রতিষ্ঠাতা ও উদ্বোধনী সভাপতির দায়িত্ব পালন করেন যা বিভিন্ন সরকারি সংস্থা, বাণিজ্য তহবিল এবং অ-বিভাগীয় প্রতিষ্ঠানসমূহের প্রধান নির্বাহীদের প্রতিনিধিত্ব করে।[১১] এর পাশাপাশি তিনি ভৌগোলিক তথ্য প্যানেলেরও সভাপতি ছিলেন।[১২][১৩][১৪] এছাড়াও তিনি উপ-প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয় [১৫] এবং উন্মুক্ত ভূস্থানিক কনসোর্টিয়ামের অ-নির্বাহী পরিচালক হিসেবে দায়িত্ব পালন করেছিলেন।[১৬]

সরকারের সঙ্গে কাজ করার পূর্বে তিনি লঙম্যান গ্রুপের পিয়ার্সন পিএলসি এবং অটোডেস্কে কর্মরত ছিলেন।[১৭][১৮][১৯]

রয়েল স্কটিশ ভূগোল সমিতি থেকে তাকে অসামান্য প্রতিভা এবং বিশ্বব্যাপী খ্যাতির জন্য স্কটিশ ভূগোল পদক প্রদান করা হয়েছিলো।[২০] ২০০৮ সালে ইনস্টিটিউট অব ডিরেক্টরস থেকে তিনি বর্ষসেরা সাউথ-ইস্ট ডিরেক্টর (ডিরেক্টর অব দ্য ইয়ার) পুরস্কার অর্জন করেছেন[২১] এবং ২০০০-২০১০ সালের দশকসেরা ভূস্থানিক ব্যক্তিত্ব হিসেবেও স্বীকৃত হয়েছিলেন। [২২]

২০০৮ সালে, তিনি কেমব্রিজ বিশ্ববিদ্যালয়ের পরিষদে যোগ দেন[২৩] এবং ২০০১ সাল থেকে সাউদাম্পটন বিশ্ববিদ্যালয়ের পরিষদে দায়িত্ব পালন করেছেন।[২৪]

২০১১ সালে, জাতিসংঘ—বৈশ্বিক ভূস্থানিক তথ্য ব্যবস্থাপনা বা গ্লোবাল জিওস্প্যাটিয়াল ইনফরমেশন ম্যানেজমেন্ট (ইউএন-জিজিআইএম) সম্পর্কিত বিশেষজ্ঞ কমিটির প্রতিষ্ঠাকালীন সহ-সভাপতি হিসেবে দায়িত্ব পালন করার জন্য লরেন্সকে নির্বাচিত করেছিলো জাতিসংঘ। [২৫][২৬][২৭][২৮] ভৌগোলিক তথ্যে সরকারি এবং বেসরকারি খাতের জন্য শীর্ষস্থানীয় বিশ্ব কর্তৃপক্ষ হিসাবে "ইউএন-জিজিআইএম"কে প্রতিষ্ঠিত করার প্রয়াসে অন্যদের সাথে অব্যাহতভাবে চার বছর ধরে তিনি এই দায়িত্ব পালন করেছিলেন। চার বছর শেষে ইউএন-জিজিআইএম ত্যাগ করার পরে, তাকে আন্ডার–সেক্রেটারি-জেনারেল ড. উ হংবো একটি প্রশংসামূলক সনদপত্র (সার্টিফিকেট অব অ্যাপ্রিসিয়েশন) প্রদান করেন।[২৯][৩০]

২০১৫ সালে, লরেন্সকে স্যাটেলাইট অ্যাপ্লিকেশন ক্যাটাপল্ট লিমিটেডের অ-নির্বাহী পরিচালক,[৩১] বিশ্বব্যাংক গ্রুপের ভূ-স্থানিক সংক্রান্ত তথ্যের জন্য বৈশ্বিক উপদেষ্টা,[৩২][৩৩] লোকেশন ইন্টারন্যাশনাল লিমিটেডের পরিচালক[৩৪] এবং আরবান বিগ ডাটা সেন্টারের উপদেষ্টা গ্রুপের সদস্য হিসেবে নিযুক্ত করা হয়েছিল।

এছাড়াও তিনি ১৩৫ স্কোয়াড্রন রয়েল ইঞ্জিনিয়ার্সের সম্মানসূচক (অনারারি) কর্নেল,[৩৫][৩৬] সাউদাম্পটন বিশ্ববিদ্যালয়ের অতিরিক্ত (অ্যাডজাঙ্ক্ট) অধ্যাপক,[৩৭] কিংস্টন বিশ্ববিদ্যালয়ের পরিদর্শন অধ্যাপক,[৩৮] ভূগোল সঙ্ঘের (অ্যাসোসিয়েশন) সম্মানসূচক ভাইস-প্রেসিডেন্ট,[৩৯] রয়েল জিওগ্রাফিকাল সমিতি [৪০][৪১] ও উইনচেস্টার বিজ্ঞান কেন্দ্রের ট্রাস্টি[৪২] এবং কুরি পার্কিনসন ট্রাস্ট [৪১] ও ম্যাপঅ্যাকশনের একজন পৃষ্ঠপোষক ছিলেন।[৪৩]

তথ্যসূত্রসম্পাদনা

  1. England & Wales, Civil Registration Birth Index, 1916–2007
  2. 1 2008 New Year Honours: The London Gazette: (Supplement) no. 58557. pp. 1–26. 29 December 2007.
  3. "Lawrence to leave Ordnance Survey after 14 years - Civil Service World"www.civilserviceworld.com। সংগ্রহের তারিখ ৩০ নভেম্বর ২০১৮ 
  4. "Major chief executive to step down"Daily Echo। সংগ্রহের তারিখ ৩০ নভেম্বর ২০১৮ 
  5. Hipwell, Deirdre (২ এপ্রিল ২০১৪)। "Ordnance Survey chief plots surprise departure"। সংগ্রহের তারিখ ৩০ নভেম্বর ২০১৮ – www.thetimes.co.uk-এর মাধ্যমে। 
  6. 2008 New Year Honours: The London Gazette: (Supplement) no. 58557. pp. 1–26. 29 December 2007.
  7. http://www.raeng.org.uk/about-us/the-fellowship
  8. 6 http://www.managementtoday.co.uk/news/831161/Chartered-Management-Institute-Opinion/?DCMP=ILC-SEARCH
  9. "Honorary Fellowship (FRSGS) - RSGS"rsgs.org। ১৯ নভেম্বর ২০১৮ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ৩০ নভেম্বর ২০১৮ 
  10. 8 https://www.rgs.org/NR/rdonlyres/5F21828E-806B-4613-AFE8-6FE11CAA4985/0/RegisterofCharteredGeographers_June2014.pdf ওয়েব্যাক মেশিনে আর্কাইভকৃত ২৮ ডিসেম্বর ২০১৭ তারিখে
  11. 9 http://www.wired-gov.net/wg/wg-news-1.nsf/54e6de9e0c383719802572b9005141ed/5edca28099d46018802572ab004bd10f?OpenDocument
  12. "[geo-discuss] [Fwd: UK GI Strategy Workshop 23 June]"। Lists.okfn.org। ২০০৬-০৬-১২। সংগ্রহের তারিখ ২০১৮-১১-৩০ 
  13. "UK Location Strategy: Ordnance Survey: 9 Jan 2008: Hansard Written Answers - TheyWorkForYou"TheyWorkForYou। সংগ্রহের তারিখ ৩০ নভেম্বর ২০১৮ 
  14. "Place matters: the Location Strategy for the United Kingdom" (PDF)। সংগ্রহের তারিখ ২০১৮-১১-৩০ 
  15. http://webarchive.nationalarchives.gov.uk/20060502043818/odpm.gov.uk/pub/450/ODPMorganisationchart_id1165450.pdf
  16. "The OGC Elects Directors"। সংগ্রহের তারিখ ৩০ নভেম্বর ২০১৮ 
  17. "সংরক্ষণাগারভুক্ত অনুলিপি"। ১৭ আগস্ট ২০১৬ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ৪ সেপ্টেম্বর ২০২০ 
  18. 16 https://books.google.com/books?id=u0tb0W0-rK4C&pg=PA62&lpg=PA62&dq=Vanessa+Lawrence+Longman&source=bl&ots=QioLC7fgu9&sig=wPzey4RhsTLn8aOwpg-TX_CjKFQ&hl=en&sa=X&ved=0ahUKEwjwv4nuhcXNAhXHJsAKHTusBJMQ6AEIRjAK#v=onepage&q=Vanessa%20Lawrence%20Longman&f=false
  19. 17 https://books.google.com/books?id=SHp_BAAAQBAJ&pg=PT12&lpg=PT12&dq=Vanessa+Lawrence+Longman&source=bl&ots=JqHq8oMoAQ&sig=9MIB8U2Ncyiy2Q9a54OTo7c1LCI&hl=en&sa=X&ved=0ahUKEwjwv4nuhcXNAhXHJsAKHTusBJMQ6AEIUjAN#v=onepage&q=Vanessa%20Lawrence%20Longman&f=false
  20. "Scottish Geographical Medal - RSGS"rsgs.org। ১৭ অক্টোবর ২০১৫ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ৩০ নভেম্বর ২০১৮ 
  21. "Ordnance Survey Boss Director of the Year"www.hydro-international.com। সংগ্রহের তারিখ ৩০ নভেম্বর ২০১৮ 
  22. "Geospatial World forum 2011"geospatialworldforum.org। সংগ্রহের তারিখ ৩০ নভেম্বর ২০১৮ 
  23. "Two new external members appointed to Council"। ৫ জানুয়ারি ২০০৯। সংগ্রহের তারিখ ৩০ নভেম্বর ২০১৮ 
  24. "Dr Vanessa Lawrence opens new university research hub"Ordnance Survey। ১৯ সেপ্টেম্বর ২০১৬ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ৮ জুলাই ২০১৬ 
  25. "Dr Vanessa Lawrence, Co-Chair UN-GGIM: Exclusive Interview"। ২৮ অক্টোবর ২০১৪। সংগ্রহের তারিখ ৩০ নভেম্বর ২০১৮ 
  26. Division, United Nations Statistics। "UNSD — UN-GGIM"ggim.un.org। সংগ্রহের তারিখ ৩০ নভেম্বর ২০১৮ 
  27. "YouTube"www.youtube.com। সংগ্রহের তারিখ ৩০ নভেম্বর ২০১৮ 
  28. "Talking GI at UN-GGIM - Ordnance Survey Blog"। ২৪ সেপ্টেম্বর ২০১৫। সংগ্রহের তারিখ ৩০ নভেম্বর ২০১৮ 
  29. "Award of Certificate of Appreciation: UN-GGIM Co-Chair Dr. Vanessa Lawrence"United Nations Committee of Experts on Global Geospatial Information Management। ২১ আগস্ট ২০১৬ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ৮ জুলাই ২০১৬ 
  30. "Vanessa Lawrence honoured for her contribution to UN-GGIM - UNGGIM: Europe"un-ggim-europe.org। ৩০ নভেম্বর ২০১৮ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ৩০ নভেম্বর ২০১৮ 
  31. "Dr Vanessa Lawrence CB - Non-Executive Director - Catapult"। ৩০ নভেম্বর ২০১৮ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ৩০ নভেম্বর ২০১৮ 
  32. "Geodesy on the World Bank's agenda"Kartverket। ৯ আগস্ট ২০১৬ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ৮ জুলাই ২০১৬ 
  33. "Session Overview"Conftool। ১৫ আগস্ট ২০১৬ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ৮ জুলাই ২০১৬ 
  34. "LOCATION INTERNATIONAL LTD - Officers (free information from Companies House)"beta.companieshouse.gov.uk। সংগ্রহের তারিখ ৩০ নভেম্বর ২০১৮ 
  35. "Colonel inspects her squadron"Surrey Comet। সংগ্রহের তারিখ ৩০ নভেম্বর ২০১৮ 
  36. "Colonel inspects her squadron"This Is Local London। সংগ্রহের তারিখ ৩০ নভেম্বর ২০১৮ 
  37. "Professor Vanessa Lawrence - Geography and Environmental Science - University of Southampton"www.southampton.ac.uk। সংগ্রহের তারিখ ৩০ নভেম্বর ২০১৮ 
  38. "Centre for Engineering, Environment and Society Research - Faculty of Science, Engineering and Computing - Kingston University"sec.kingston.ac.uk। সংগ্রহের তারিখ ৩০ নভেম্বর ২০১৮ 
  39. GA Introducing The Geographical Association.pdf
  40. http://charities.findthecompany.co.uk/l/203297/Royal-Geographical-Society-With-The-Institute-Of-British-Geographers-in-London-England[স্থায়ীভাবে অকার্যকর সংযোগ]
  41. "Patrons"। ৩০ নভেম্বর ২০১৮ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ৩০ নভেম্বর ২০১৮ 
  42. "About Us - Winchester Science Centre & Planetarium"www.winchestersciencecentre.org। ২৯ মার্চ ২০১৮ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ৩০ নভেম্বর ২০১৮ 
  43. "Our supporters – MapAction"www.mapaction.org। সংগ্রহের তারিখ ৩০ নভেম্বর ২০১৮ 

বহিঃসংযোগসম্পাদনা