ভিন্দ জেলা

মধ্য প্রদেশের একটি জেলা

ভিন্দ জেলা হল ভারতের মধ্যপ্রদেশ রাজ্যের একটি জেলাভিন্দ শহরটির জেলা সদর। জেলাটি চম্বল বিভাগের অন্তর্গত। ২০১১ সালের ভারতীয় জনগণনা অনুসারে ভিন্দ জেলার মোট জনসংখ্যা ছিল ১,৭০৩,০০৫ জন এবং আয়তনে ৪৪৫৯ বর্গ কিলোমিটার।

ভিন্দ জেলা
মধ্যপ্রদেশের জেলা
মালহার রাও হল্কার
মালহার রাও হল্কার
মধ্যপ্রদেশে ভিন্দ জেলার অবস্থান
মধ্যপ্রদেশে ভিন্দ জেলার অবস্থান
দেশভারত
রাজ্যমধ্যপ্রদেশ
বিভাগমোরেনা
সদর দপ্তরভিন্দ
তহশিল
সরকার
আয়তন
 • মোট৪,৪৫৯ বর্গকিমি (১,৭২২ বর্গমাইল)
জনসংখ্যা (২০১১)
 • মোট১৭,০৩,০০৫
 • জনঘনত্ব৩৮০/বর্গকিমি (৯৯০/বর্গমাইল)
জনসংখ্যার উপাত্ত
 • সাক্ষরতা৭৫.৩%
 • লিঙ্গানুপাত৮৩৮
সময় অঞ্চলআইএসটি (ইউটিসি+০৫:৩০)
ওয়েবসাইটhttp://www.bhind.nic.in

জনসংখ্যাসম্পাদনা

২০১১ সালের ভারতীয় জনগণনা অনুসারে ভিন্দ জেলা মোট জনসংখ্যা ছিল ১,৭০৩,০০৫ জন।[১] যা গাম্বিয়া [২] অথবা মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের নেব্রাস্কার জনসংখ্যার সমান।[৩] জনসংখ্যার হিসাবে জেলাটি ভারতে ২৮৬তম স্থানে রয়েছে (মোট ৬৪০টি জেলার মধ্যে)।[১] জেলার জনসংখ্যার ঘনত্ব প্রতি বর্গকিলোমিটারে ৩৮২ জন লোক বসবাস করে (প্রতি বর্গমাইলে ৯৯০ জন)।[১] ২০০১-২০১১ এর দশকে ভিন্দ জেলার জনসংখ্যা বৃদ্ধির হার ছিল ১৯.২৫% শতাংশ।[১] লিঙ্গ অনুপাত প্রতি ১০০০ জন পুরুষের বিপরীতে ৮৩৭ জন নারী রয়েছে।[১] সাক্ষরতার হার ৬৪.২৯%।[১]

২০১১ সালের ভারতীয় জনগণনার সময় ভিন্দ জেলার ৯৯.৬৬% জনগণ হিন্দি তাদের প্রথম ভাষা হিসাবে ব্যবহার করে থাকে।[৪]

জেলার প্রভাবশালী জাতগুলি হল রাজপুত, ব্রাহ্মণ, কায়স্থ, জৈন এবং বানিয়া, যার মধ্যে লোধি এবং যাদবও রয়েছে।[৫]

প্রশাসনসম্পাদনা

২০১৯ ভারতীয় সাধারণ নির্বাচনে ভারতীয় জনতা পার্টির সদস্য হিসাবে সন্ধ্যা রায় ভিন্দ লোকসভা কেন্দ্রের সংসদ সদস্য নির্বাচিত হয়েছিলেন।[৬]

পর্যটন স্থানসম্পাদনা

মল্লার রাও হোলকরের ছত্রি, আলমপুরসম্পাদনা

১৭৬৬ খ্রি মহারাণী অহল্যাবাঈ হোলকার ভিন্দ জেলার আলমপুরে মল্লার রাও হোলকরের ছতরই নির্মাণ করেছিলেন। এটি ইন্দোরের হোলকরের শাসকদের ছত্রিদের আদলে নির্মিত।

শ্রী রাওয়াতপুরা ধামসম্পাদনা

হিন্দু দেবতা হনুমানের একটি মন্দিরটি ভিন্দ জেলার লহর তহশিলে অবস্থিত। এই স্থানটি রাওয়াতপুরা ধাম নামে পরিচিত এবং লহর তহশিলের অধীনে পরে।

আটারের দুর্গসম্পাদনা

১৬৬৪-১৬৬৮ খ্রি রাজা বদন সিং ভাদুরিয়া আটার দুর্গটি নির্মিত করেছিলেন। আটারের দুর্গটি আটার শহরের নিকটে, ভিন্দা থেকে ৩৫ কিলোমিটার এবং পোরসা মোরেনা থেকে ৪০ কিলোমিটার দূরে অবস্থিত।

জৈন মন্দিরসম্পাদনা

ভগবান মহাবীরের মন্দিরটি মেহগাঁও তহশিলের বারসনে অবস্থিত। জৈন ঐতিহ্যে, এটি অতিশয় ক্ষেত্রে হল যে স্থানগুলিতে ভগবান মহাবীর কৈবল্য (চূড়ান্ত উপলব্ধি) পেয়েছিলেন এবং অলৌকিক ঘটনা ঘটেছিল। এটি ভিন্দ শহর থেকে ১৪ কিলোমিটার দূরে অবস্থিত। অন্যান্য অতিশয় ক্ষেত্র হল - ভিন্দ শহরের নিকটে পাবাইতে ভগিনী নেমনাথের জৈন মন্দির এবং বরহি-তে ভগবান পার্শ্বনাথ, যা ভিন্দ থেকে চম্বল তীরে ভিন্দ-এতাওয়াহ জেলা সীমান্তের ২০ কিলোমিটার দূরে অবস্থিত। "দিগম্বর জৈন পরশনাথ জিনালয়" নামে একটি প্রাচীন পবিত্র স্থান ভিন্দ থেকে প্রায় ২০ কিলোমিটার দূরে এবং অতিশয় ক্ষেত্র বরাজন থেকে প্রায় ৬ কিমি দূরে সিমার বিরগমা গ্রামে অবস্থিত। শহরেই প্রায় ৬০টি জৈন মন্দির রয়েছে।

বহিঃসংযোগসম্পাদনা

তথ্যসূত্রসম্পাদনা

  1. "District Census 2011"। Census2011.co.in। ২০১১। সংগ্রহের তারিখ ২০১১-০৯-৩০ 
  2. US Directorate of Intelligence। "Country Comparison:Population"। ২০১১-০৯-২৭ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২০১১-১০-০১Gambia, The 1,797,860 July 2011 est. 
  3. "2010 Resident Population Data"। U. S. Census Bureau। ২০১১-০৮-২৩ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২০১১-০৯-৩০Nebraska 1,826,341 
  4. 2011 Census of India, Population By Mother Tongue
  5. "Study of Bundelkhand" (PDF)Planning Commission। ৪ মার্চ ২০১৬ তারিখে মূল (PDF) থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২৩ মার্চ ২০১৯ 
  6. "Bhind Election Results 2019 Live Updates: Sandhya Ray of BJP Wins"। News 18। ২৩ মে ২০১৯। সংগ্রহের তারিখ ২৪ মে ২০১৯