ভারতমালা পরিযোজনা হল ভারতের সরকারের একটি কেন্দ্রীয়-পৃষ্ঠপোষকতা ও অর্থায়নকৃত সড়ক ও মহাসড়ক প্রকল্প।[১] প্রতিশ্রুতিবদ্ধ ৮৩,৬৭৭ কিলোমিটার (৫১,৯৯৪ মাইল) নতুন মহাসড়কসমূহে বিনিয়োগের পরিমাণ প্রায় ৫.৩৫ লাখ কোটি টাকা (৭১ বিলিয়ন মার্কিন ডলারের)[২], এটি একটি সরকারি সড়ক নির্মাণের প্রকল্পের (ডিসেম্বর, ২০১৭) জন্য একক বৃহত্তম ব্যয়ের ইতিহাস তৈরি করে। মহাসড়ক প্রকল্পটি গুজরাত, রাজস্থান, পাঞ্জাব, হরিয়ানা থেকে মহাসড়ক নির্মাণ করবে এবং তারপর হিমালয়ের অঞ্চল - জম্মু ও কাশ্মীর, হিমাচল প্রদেশ, উত্তরাখণ্ড - জুড়ে বিস্তৃত হবে এবং তারপর তরাইয়ের পাশাপাশি উত্তরপ্রদেশবিহারের সীমান্তের সীমানা ও পশ্চিমবঙ্গ, সিক্কিম, আসাম, অরুণাচল প্রদেশ এবং মণিপুর ও মিজোরামের ইন্দো-মিয়ানমারের সীমান্ত পর্যন্ত অগ্রসর হয়।[১] উপজাতি ও পশ্চাদ্ধাবন এলাকা সহ দূরবর্তী সীমান্ত ও গ্রামীণ এলাকায় সংযোগ প্রদানের উপর বিশেষ গুরুত্ব দেওয়া হবে। ভারতমালা প্রকল্পটি সর্বনিম্ন ৪-লেনের মহাসড়কের দ্বারা ৫৫০ টি (বর্তমান ৩০০ টি) জেলা সদর দফতরের মধ্যে সংযোগ তৈরি করবে করিডোরের সংখ্যা ৫০ টি (বর্তমান ৬ টি) বৃদ্ধি করে এবং ২৪ টি লজিস্টিক পার্ক, মোট ৮,০০০ কিলোমিটারের (৫,০০০ মাইল) ৬৬ টি আন্তঃ-করিডোর (আইসি), মোট ৭,৫০০ কিলোমিটারের ৪,৭০০ মাইল) ১১৬ টি ফিডার রুট (এফআর) এবং উত্তর পূর্বের ৭ টি মাল্টি-মোডাল জলপথ বন্দরের সঙ্গে আন্তঃসংযোগ দ্বারা ৮০% মালবাহী যানবাহন (বর্তমানে ৪০%) জাতীয় সড়কে স্থানান্তর করা হবে।[৩]

ভারতমালা
দেশভারত
প্রধানমন্ত্রীনরেন্দ্র মোদি
মন্ত্রণালয়সড়ক পরিবহন ও মহাসড়ক মন্ত্রণালয়
প্রধান ব্যক্তিত্বনিতিন গাডকরি
প্রতিষ্ঠিত৩১ জুলাই ২০১৫; ৭ বছর আগে (2015-07-31)
অবস্থাসক্রিয়

উচ্চাকাঙ্ক্ষী ছাতা কর্মসূচিটি অটল বিহারী বাজপেয়ী সরকার কর্তৃক ১৯৯৮ সালে চালু হওয়া ফ্ল্যাগশিপ ন্যাশনাল হাইওয়ে ডেভেলপমেন্ট প্রজেক্টস (এনএইচডিপি) সহ সকল বিদ্যমান মহাসড়ক প্রকল্পকে উপস্থাপন করবে।

এটি সাগরমালা, ডেডিকেটেড ফ্রেইট করিডোর, শিল্প করিডোর, উড়ান-আরসিএস, ভারতনেট, ডিজিটাল ইন্ডিয়ামেক ইন ইন্ডিয়ার মত ভারত সরকারের অন্যান্য গুরুত্বপূর্ণ প্রকল্পের সুবিধাভোগী।

তথ্যসূত্রসম্পাদনা

  1. "[[কোটি]] ([[মার্কিন ডলার|US$]]", The Economic Times, নতুন দিল্লি, ২৯ এপ্রিল ২০১৫  ইউআরএল–উইকিসংযোগ দ্বন্দ্ব (সাহায্য)
  2. উদ্ধৃতি ত্রুটি: <ref> ট্যাগ বৈধ নয়; new1 নামের সূত্রটির জন্য কোন লেখা প্রদান করা হয়নি
  3. "Bharatmala presentation" (পিডিএফ)। সংগ্রহের তারিখ ৮ ডিসেম্বর ২০২১