প্রধান মেনু খুলুন

বিশ্বনাথ অসমের শোণিতপুর জেলায় অবস্থির একটি নগর। এটি তেজপুর থেকে ৭৫কি:মি ও অসমের রাজধানী গুয়াহাটি থেকে ২৫৫কি:মি: দূরত্বে অবস্থিত। এখানে অবস্থিত বিশ্বনাথ মন্দির বা গুপ্তকাশী বিশ্বনাথ ঘাট পর্য্টকের জন্য আকর্ষণীয় স্থান। বিশ্বনাথ অন্তর্গত মোনাবাড়ি চা-বাগান এশিয়ার সর্ববৃহৎ চা-বাগান।

বিশ্বনাথ
বিশ্বনাথ
নাম: বিশ্বনাথ
স্থানাঙ্ক: ২৬°৪৫′ উত্তর ৯৪°১৩′ পূর্ব / ২৬.৭৫° উত্তর ৯৪.২২° পূর্ব / 26.75; 94.22
জনসংখ্যা (২০০১)
 • মোট১৬,৮৩০

পরিচ্ছেদসমূহ

ভৌগোলিক অবস্থান ও জনসংখ্যাসম্পাদনা

বিশ্বনাথের স্থানাঙ্ক হচ্ছে ২৬°৪০′ উত্তর ৯৩°১০′ পূর্ব / ২৬.৬৭° উত্তর ৯৩.১৭° পূর্ব / 26.67; 93.17[১] । সাগরপৃষ্ঠ থেকে এর উচ্চতা ৭২মিটার (২৩৬ফুট)। বিশ্বনাথের পূর্বদিকে বরগাং নদী পশ্চিমে ঘিলাধারী নদী উত্তরে অরুণাচল প্রদেশ ও দক্ষিণে ব্রহ্মপুত্র নদী অবস্থিত। ২০০১ সনের জনগননা অনুযায়ী বিশ্বনাথের জনসংখ্যা হচ্ছে ১৬,৮২৫ জন। যার ৫৩% পুরুষ ও ৪৭% মহিলা[২]। এখানকার সাক্ষরতার হার ৮০% । পুরুষ ও মহিলার সাক্ষরতার হার ক্রমে ৮৫% ও ৭৫%। বিশ্বনাথে ৯% ছয় বৎসরের অনুর্ধর।

ইতিহাসসম্পাদনা

উত্তর-পূর্ব ভারতের প্রাচীন তীর্থক্ষেত্র বিখ্যাত শিবমন্দির বিশ্বনাথ থেকেই এই অঞ্চলের নাম বিশ্বনাথ হয়েছে[৩]। বিশ্বনাথের প্রাচীনতম নাম ছিল সলা। পরবর্তী সময়ে এই স্থান নদুয়ার নামে পরিচিত ছিল। পুরাণে উল্লেখিত বিশ্বনাথ নাম বিশ্বনাথ তীর্থক্ষেত্রকে বুঝানো অর্থে ব্যবহৃত হত। বিশ্বনাথ শব্দের অর্থ বিশ্বের মালিক।

সাহিত্য ও সংস্কৃতিসম্পাদনা

 
বীণাপাণি নাট্য মন্দির

বিশ্বনাথে অবস্থিত বীণাপাণি নাট্য মন্দির বহুকাল যাবৎ সাংস্কৃতিক ক্ষেত্রে যথেষ্ট অবদান রেখে আসছে। মুর্চ্ছনা বিশ্বনাথের উল্লেখযোগ্য সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান । ১৯৯৭ সনের ২০জুন তারিখে অনুষ্ঠানটির জন্ম হয়। এই অনুষ্ঠানটির মুখ্য উদ্দেশ্য হচ্ছে শিশুদের মানসিক বিকাশ ও যুবক যুবতীদের সাহিত্য ও সাংস্কৃতিক জ্ঞান প্রদান করে সার্বাঙ্গীণ উন্নতি সাধন করা। নগরটির কয়েকজন বিখ্যাত ব্যক্তিদের নাম- শশি ফুকন (অসমীয়া আলোচনা পত্রিকা বিস্ময়ের সম্পাদক), মাইনী মহন্ত( অসমীয়া আলোচনা পত্রিকা নন্দিনীর সম্পাদক), প্রমোদ বড়ুয়া, ব্রজেন কলিতা, রিমঝিম বরা, দ্বিজেন মহন্ত( চলচ্চিত্রের সহিত জড়িত), ক্ষীরধর বড়ুয়া, সুমন্ত বড়ুয়া।

তথ্যসূত্রসম্পাদনা

  1. [১] Biswanath, India page
  2. "Alphabetical list of towns and their population" (PDF)অসম। ভারত চরকার। সংগ্রহের তারিখ ২০১১-১১-২৮ 
  3. বিশ্বনাথর ইতিহাস,তরুণ দাস।