মাক্কী সূরা: সংশোধিত সংস্করণের মধ্যে পার্থক্য

সম্পাদনা সারাংশ নেই
ট্যাগ: দৃশ্যমান সম্পাদনা মোবাইল সম্পাদনা মোবাইল ওয়েব সম্পাদনা
ট্যাগ: মোবাইল সম্পাদনা মোবাইল ওয়েব সম্পাদনা
মাক্কী সূরার সংখ্যা মোট ৮৬ টি।
 
== বৈশিষ্ট্যসমূহ ==
== মাক্কী সূরার বৈশিষ্ট্য ==
:১।* মাক্কী সূরাসমূহে "آيات السجدة" (''আয়াত আল-সাজদাহ'') অর্থাৎ [[আল্লাহ|আল্লাহর]] প্রতি অবনত হওয়ার কথা বলা হয়েছে।
:২।* মাক্কী সূরাসমূহে "كلا" (''কালা''; كلا (অর্থ-কখনও না) শব্দটি আছে।
:৩।* ২২নং সূরা ব্যতীত মাক্কী সূরাসমূহে ياأيها الناس (''ইয়া আইয়ুহান নাস''; অর্থ- হে মানবজাতি) কথাটি উল্লেখ আছে, কিন্তু يأيها اللذين آمنوا (হে মুমিনগণ) বাক্যাংশটি নেই।আছে।
:৪।* মাক্কী সূরাসমূহে [[তাওহীদ|আল্লাহর একত্ববাদ]] এবং রিসালাতের[[রিসালাত|নবি মুহাম্মাদের প্রেরিত বাণীর]] প্রতি আহবান জানানো হয়েছে।
:৫।* [[ইসলামি পরকালবিদ্যা|মৃত্যুর পরবর্তী পুনরুত্থান]], পার্থিব জীবনের সকল কৃতকর্মের হিসাব-নিকাশ মাক্কী সূরাসমূহে বর্ণিত হয়েছে।
:৬।* মাক্কী সূরাসমূহে পূর্ববর্তী বাণীবাহক ([[নবী]]) ও তাঁদের অবাধ্য অনুসারীগণের (উম্মতের[[উম্মত]]) করুণ পরিণতির কাহিনী বর্ণনা করা হয়েছে।
:৭।* মক্কী সূরাগুলো আকারে ছোট, হলেওকিন্তু অতীব ভাবগাম্ভির্যপূর্ণ।
:৮।* মাক্কী সূরাসমূহে বিধর্মীদের[[শিরক|ঈশ্বরের অংশীদার]]-সাবস্তকারীদের (মুশরিকদেরমুশরিক) রক্তপাত ও হত্যাযজ্ঞের কাহিনী বর্ণনা করা হয়েছে।
:৯।* মাক্কী সূরাসমূহে অন্যায়ভাবে [[ইয়াতিম|ইয়াতিমদেরআইয়্যামে জাহিলিয়া]] তথা মূর্খতার যুগে অন্যায়ভাবে অনাথদের সম্পদ ভোগ, কন্যা-সন্তানদের জীবন্ত দাফন প্রভৃতি কুপ্রথা ও কু-আচরণ সম্পর্কিত বিষয় বর্ণিত হয়েছে।
:১০।* মাক্কী সূরাসমূহে প্রসিদ্ধ বস্তুসমূহের নামে শপথের মাধ্যমে উপস্থাপিত বিষয়ের প্রতি জোর দেয়া হয়েছে।
:১১।* মাক্কী সূরাসমূহে [[বহু-ঈশ্বরবাদ|বহু দেবতায় বিশ্বাসীদের]] দাবীকে মিথ্যা প্রতীয়মান করে আল্লাহ’রআল্লাহর সাথে কারোকারও শরীকঅংশীদার নেই- এ এবিষয়েবিষয়ে বর্ণনা উপস্থাপিত হয়েছে।
:১২।* মানুষের ঘুমন্ত বিবেক ও নৈতিকতাবোধ জাগ্রত করে চিন্তাশক্তিকে সত্য গ্রহণে উদ্বুদ্ধ করা হয়েছে।
:১৩।* মাক্কী সূরাসমূহে বিভীষিকাময় [[কিয়ামত]] (পৃথিবীর শেষ দিবস),জান্নাতের(বেহেশতের)[[জান্নাত]] এর অনুপম শান্তি এবং জাহান্নামের(দোজখের)[[জাহান্নাম]] কঠোর শাস্তির বর্ণনা প্রাধান্য পেয়েছে।
:#
:১৪।মাক্কী* মাক্কী সুরাসমূহের শব্দমালা শক্তিশালিশক্তিশালী, ভাবগম্ভীর ও অন্তরে প্রকম্পন সৃষ্টিকারী।
:১৩। মাক্কী সূরাসমূহে বিভীষিকাময় কিয়ামত (পৃথিবীর শেষ দিবস),জান্নাতের(বেহেশতের) অনুপম শান্তি এবং জাহান্নামের(দোজখের)কঠোর শাস্তির বর্ণনা প্রাধান্য পেয়েছে।
:১৪।মাক্কী সুরাসমূহের শব্দমালা শক্তিশালি,ভাবগম্ভীর ও অন্তরে প্রকম্পন সৃষ্টিকারী।
 
== তথ্যসূত্র ==
২,৪৮৪টি

সম্পাদনা