"স্বাভাবিক ক্রিয়া বৃদ্ধি গবেষণা" পাতাটির দুইটি সংশোধিত সংস্করণের মধ্যে পার্থক্য

সংশোধন
(সংশোধন)
'''স্বাভাবিক ক্রিয়া বৃদ্ধি গবেষণা''' বলতে এক ধরনের চিকিৎসাবৈজ্ঞানিক গবেষণাকে বোঝায় যা কোনও জীব বা রোগকে এমনভাবে পরিবর্তিত করে যা সেটির রোগ-উৎপাদন[[রোগসৃষ্টিকারক ক্ষমতা]], পরিবহনীয়তা[[সংবহনযোগ্যতা]] বা [[পোষক পরিসীমা]] (কোনও অণুজীব কী কী ধরনের পোষককে সংক্রমিত করতে পারে) ইত্যাদি বৃদ্ধি করতে পারে। এই গবেষণার উদ্দেশ্য উদীয়মান সংক্রামক রোগগুলি সম্পর্কে উন্নততর পূর্বাভাস দেয়ার জন্য লক্ষ্য উন্মোচন করা এবং টিকা ও প্রতিষেধক ঔষধ সৃষ্টি করা। একে ইংরেজিতে "গেইন অভ ফাংশন রিসার্চ" (Gain of function research, সংক্ষেপে GoF research বা GoFR) নামে ডাকা হয়।
 
উদাহরণস্বরূপ, ইনফ্লুয়েঞ্জা বি ভাইরাসটি কেবলমাত্র মানুষ ও সাধারণ প্রজাতির সিলমাছে সংক্রমিত হতে পারে।<ref>{{cite journal |last1=Osterhaus |first1=A. D. |last2=Rimmelzwaan |first2=G. F. |last3=Martina |first3=B. E. |last4=Bestebroer |first4=T. M. |last5=Fouchier |first5=R. A. |title=Influenza B virus in seals |journal=Science |date=2000-05-12 |volume=288 |issue=5468 |pages=1051–1053 |doi=10.1126/science.288.5468.1051 |pmid=10807575 |bibcode=2000Sci...288.1051O |url=https://pubmed.ncbi.nlm.nih.gov/10807575/ |access-date=25 May 2021 |issn=0036-8075}}</ref> এমতাবস্থায় ইনফ্লুয়েঞ্জা বি ভাইরাসে যদি এমন কোনও পরিব্যক্তির সৃষ্টি করা হয় যাতে সেটি কোনও নিয়ন্ত্রিত গবেষণাগার পরিবেশে খরগোশেও সংক্রমিত হতে পারে, তাহলে সেই গবেষণাটিকে একটি "স্বাভাবিক ক্রিয়া বৃদ্ধি" গবেষণা হিসেবে গণ্য করা হবে, কেননা এর আগে খরগোশে সংক্রমিত হওয়া ভাইরাসটির স্বাভাবিক ক্রিয়া বা ধর্ম ছিল না। তবে এই ধরনের পরীক্ষাতে ভাইরাসটির কোন কোন অংশ পোষকের ধরন বৃদ্ধির সাথে সম্পর্কিত তা উন্মোচন করতে সাহায্য করে এবং এর ফলে এই স্বাভাবিক ক্রিয়াটিকে প্রতিরোধকারী ভাইরাস-নিরোধক ঔষধ সৃষ্টিতে সাহায্য করতে পারে।<ref>{{cite book|title=Gain-of-Function Research: Background and Alternatives |date=2015-04-13 |url=https://www.ncbi.nlm.nih.gov/books/NBK285579/ |access-date=25 May 2021 |publisher=National Academies Press (US) |language=en}}</ref>
৫১,৪৭০টি

সম্পাদনা