"বিকাশ" পাতাটির দুইটি সংশোধিত সংস্করণের মধ্যে পার্থক্য

* '''অর্থ বিতরণ সলুশন:''' সরকারী / এনজিওর বেতন বিতরণ এবং গ্রাহকদের জন্য অর্থ প্রদান সুবিধা।
* '''অর্থ সংগ্রহ সলুশন:''' কর্পোরেট ক্লায়েন্টদের পক্ষ থেকে মোবাইলে টাকা পেমেন্টের অর্থ সংগ্রহ করা।
 
==গ্রাহক সেবা চ্যানেল==
===বিকাশ অ্যাপ===
আর্থিক লেনদেনের জন্য একটি যুগোপযোগী সমাধান। বিকাশ অ্যাপটি স্মার্টফোন ব্যবহারকারীদের জন্য কাটিং-এজ-এর সর্বশেষ পরিশীলিত ইন্টারফেস দিচ্ছে। বিকাশ অ্যাপের মাধ্যমে যে কোনও লেনদেন সহজ, দ্রুত এবং আরও সুরক্ষিতভাবে করা যায়। অ্যাপ্লিকেশনটি গ্রাহকদের তাদের লেনদেনের উপর সম্পূর্ণ নিয়ন্ত্রণ প্রদান করে। অ্যাপটি ব্যবহার করতে, গ্রাহকের একটি সক্রিয় বিকাশ অ্যাকাউন্ট এবং ইন্টারনেট সংযোগ থাকতে হয়। অ্যাপ্লিকেশনটি ভয়েস সহকারীর সেবা সহায়তায় ইংরেজি এবং বাংলা উভয় ভাষাতেই ব্যবহার করা যেতে পারে। স্মার্টফোন ব্যবহারকারীরা এখন কিউআর কোড স্ক্যান করে দোকানে দাম চুকাতে পারবেন এবং অংশীদার ব্যাংকগুলি থেকে ওয়ালেটে অর্থ যোগ করতে পারবেন। অ্যাপটিতে বাংলা পাঠ্য এবং ভয়েস প্রম্পটের মতো ফিচারও রয়েছে, যা শারীরিক চ্যালেঞ্জ এবং অল্প শিক্ষিত ব্যবহারকারীদের পক্ষে সহায়ক হিসাবে কার্যকর হয়েছে। ২০১৯ সালে বিকাশ অ্যাপটি একটি নতুন দৃষ্টিভঙ্গি এবং নতুন ফিচার নিয়ে পুনরায় চালু করা হয়েছে। বিকাশের সমস্ত সেবার জন্য এটি একটি একক সমাধান।
 
===অ্যাপের ফিচার===
* '''স্ব-নিবন্ধন:''' বিকাশ গ্রাহকরা বিকাশ অ্যাপে একাউন্ট নিবন্ধন করতে পারেন। এ জন্য দরকার শুধু একটি বৈধ পরিচয়পত্র এবং সেলফি।
* '''এলাকা ভিত্তিক অফার:''' এই ফিচারে গ্রাহকরা বিকাশ অ্যাপে অফারে দেখতে পান বিশেষ অফারগুলো। ভৌগিলিক অবস্থানের ভিত্তিতে কাছাকাছি অফারগুলো গ্রাহককে দেখান হয়।
* '''অনুসন্ধান:''' এই ফিচারের মাধ্যমে অনিবন্ধিত গ্রাহকরা বিকাশে কি আছে দেখতে পারে।
* '''আমার বিকাশ:''' এই বিভাগে সাম্প্রতিক লেনদেন জমা থাকে।
* '''পরামর্শ:''' অ্যাপের গ্রাহক সেবা সহায়তা। ব্যবহারকারীরা ই-মেল করতে পারেন বা এজেন্টের সাথে সরাসরি কথা বলা যায়।
* '''কুপন:''' ব্যবহারকারীর আচরণের ওপর ভিত্তি করে ডিসকাউন্ট কুপন।
* '''বিবরণ:''' গ্রাহক তার গত ৯০ দিনের লেনদেন দেখতে পারেন অ্যাপে, কত টাকা তিনি নগদ জমা করেছেন এবং নগদ তুলেছেন ঐ নির্দিষ্ট একাউন্টে।
* '''সীমা:''' গ্রাহকের দৈনিক বা মাসিক নগদ জমা, টাকা পাঠান, মোবাইল রিচার্জ, দাম পরিশোধ, নগদ তোলা, টাকা যোগ করা এবং রেমিট্যান্স সীমা মনে রাখার দরকার নেই। ‘সীমা’ এসবই বিস্তারিত জানায়।
* '''পিন বদল:''' গ্রাহকরা সহজেই পিন বদল করতে পারেন।
* '''নোটিফিকেশনস:''' গ্রাহক বাস্তব সময়ে সেবা পেতে এই বিকল্পটি চালু করতে পারেন।
* '''স্মার্ট কিউআর কোড স্ক্যানার:''' নতুন বিকাশ অ্যাপ্লিকেশনটিতে স্মার্ট কিউআর স্ক্যানার রয়েছে, যা স্বয়ংক্রিয়ভাবে কোন অনুরোধ নগদ অর্থ প্রদানের জন্য বা নগদ তোলা বা অন্য কোনও বিষয় কিনা তা সনাক্ত করতে পারে।
* '''যোগাযোগের তালিকা থেকে প্রাপক নির্বাচন করুন:''' গ্রাহক মোবাইল ফোনের যোগাযোগের তালিকা থেকে যোগাযোগ নির্বাচন করে অর্থ পাঠাতে পারা যায়। এতে ত্রুটির সম্ভাবনা শূন্য।
 
===*২৪৭#===
গ্রাহকরা তাদের মোবাইল ফোন থেকে *২৪৭# ডায়াল করে বিকাশ সেবা পেতে পারেন। অর্থ প্রেরণ, মোবাইল রিচার্জ, পেমেন্ট, ক্যাশ আউট, পে বিল, ব্যালেন্স চেকিং, বিবরণের অনুরোধ ইত্যাদি সেবাগুলো ইউএসএসডি-এর মাধ্যমে সীমিতভাবে পাওয়া যায়।
 
===পেমেন্ট গেটওয়ে===
অংশীদার মার্চেন্ট অ্যাকাউন্টগুলি থেকে গ্রাহকরা পেমেন্ট গেটওয়ের মাধ্যমে সরাসরি অর্থ প্রদান করতে পারেন। গ্রাহকরা সাথে সাথে অনলাইন ব্যবসায়ীদের এবং রাইড শেয়ারিং সেবার বিল দেবার সুবিধা পান। তারা তাদের সুবিধাজনক সময়ে কয়েকটি সাধারণ ধাপে তাদের ইউটিলিটি বিলও পরিশোধ করতে পারেন। পে বিলে নতুন সংযোজন হিসেবে আছে ভিসা ক্রেডিট কার্ড বিল পেমেন্ট।
 
==অংশীদার==
আর্থিক খাতে চ্যালেঞ্জ মোকাবেলায় মোবাইল প্রযুক্তির সুবিধাকে সত্যিকারের বিশ্ব সমাধানে পরিণত করার লক্ষ্যে, বিকাশ লিমিটেড (বিকাশ) ব্র্যাক ব্যাংক লিমিটেড, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র ভিত্তিক বিদেশী সেবা সংস্থার মানি ইন মোশন এলএলসি-এর সহযোগিতায় প্রতিষ্ঠিত হয়েছিল।<ref name=Bnkr/> ব্র্যাক ব্যাংক লিমিটেডের সহায়ক সংস্থা হিসাবে বিকাশ বাংলাদেশে মোবাইল আর্থিক সেবা দানের মাধ্যমে ২০১১ সালে যাত্রা শুরু করে। ২০১৩ সালে, বিশ্ব ব্যাংক গ্রুপের সদস্য, ইন্টারন্যাশনাল ফিনান্স কর্পোরেশন (আইএফসি) বিকাশের ইক্যুইটি পার্টনার হয়ে ওঠে, এরপরে আসে বিল অ্যান্ড মেলিন্ডা গেটস ফাউন্ডেশন।<ref name=WSJ1/> ২০১৮ সালে বিকাশ এবং অ্যান্ট ফিনান্সিয়াল সার্ভিসেস গ্রুপ (আলিপে সিঙ্গাপুর ই-কমার্স প্রাইভেট লিমিটেড), বাংলাদেশে নিরবচ্ছিন্ন ও পিছিয়ে থাকা সম্প্রদায়ের জন্য আর্থিক অন্তর্ভুক্তির প্রচারে কৌশলগত অংশীদারিত্বের ঘোষণা করেছে।<ref name=DStarA/>
 
==কোম্পানির বিশেষ বৈশিষ্ট্যসমূহ==
===বিস্তৃত নেটওয়ার্ক===
বিকাশ বিস্তৃত এবং শক্তিশালী বিতরণ নেটওয়ার্ক স্থাপন করে জনগণের কাছে তার সেবাগুলোকে সক্রিয়ভাবে পৌঁছে দিতে অগ্রাধিকার দিয়েছে। সমস্ত গ্রাহক ৫টি বড় মোবাইল ফোন অপারেটরের যে কোনটিতে বিকাশ সেবা পেতে পারেন। এছাড়াও, ডিসেম্বর ২০১৮ পর্যন্ত, দেশের সমস্ত জেলা ও উপজেলা জুড়ে ২০০,০০০-এরও বেশি এজেন্ট রয়েছেন। এটি দেশের যে কোনও অঞ্চলে অর্থ ডিজিটাইজড করতে সহায়তা করেছে। এখন, এর অ্যাপ এবং কিউআর কোড ভিত্তিক পেমেন্ট পদ্ধতির সাহায্যে বিকাশ পেমেন্ট ইন্ডাস্ট্রিতে বিপ্লব ঘটাতে চায়, এটি সেই সাথে ব্যাংক, কার্ড, সরকারী এবং বেসরকারী সংস্থার সাথে অর্থপূর্ণ অংশীদারিত্বের চেষ্টা করছে।
 
===কমপ্লায়েন্স কনভেনিয়েন্স অ্যাওয়ারনেস===
বাংলাদেশ ব্যাংকের নির্দেশিকা অনুসারে বিকাশ একটি আর্থিক প্রতিষ্ঠান হিসাবে সমস্ত নীতিমালা মেনে চলে। যে কোনও অর্থ পাচার বা সন্ত্রাসবাদে অর্থায়ন রোধে সংস্থার ভেতরে এবং বাইরে সচেতনতা সৃষ্টি করা এবং সংস্থান নেটওয়ার্কের প্রশিক্ষণ প্রচারের জন্য বিকাশ বিভিন্ন উদ্যোগ নিয়েছে। কোনও প্রতারণামূলক এবং অনিয়মিত কার্যকলাপের সম্ভাবনা কমানোর জন্য নিয়মিত উদ্যোগ এবং প্রক্রিয়া রয়েছে।
 
===কর্পোরেট সামাজিক দায়িত্ব===
বিকাশ জনগণের ক্ষমতায়ন এবং মনের আলোকিতকরণের উপরে বিভিন্ন সিএসআর উদ্যোগে অবদান রাখতে প্রতিশ্রুতিবদ্ধ। বিকাশ গণশিক্ষা, সামাজিক সাংস্কৃতিক ইস্যু এবং অন্যান্য মানবিক বিষয়ে অর্থায়ন করে চলেছে। বিকাশ জ্ঞান ও পাঠের অভ্যাস অনুসরণে প্রচার করে এমন একটি প্রতিষ্ঠান বিশ্ব সাহিত্য কেন্দ্রের সাথে জাতীয় বই বিতরণ কর্মসূচীকে সহায়তা করে। এছাড়াও বিকাশ গ্রাম ও শহরতলিতে বিভিন্ন সাংস্কৃতিক ও ক্রীড়া অনুষ্ঠানের স্পনসর করে থাকে। বিজ্ঞান উৎসবে এই ব্র্যান্ডের অংশগ্রহণ (দেশব্যাপী বিজ্ঞান উৎসব - বিজ্ঞান চিন্তার একটি উদ্যোগ) এরকম আরও একটি উদাহরণ।
 
===আর্থিক সুবিধার সম্প্রসারণ===
বিকাশের লক্ষ্য ‘সুবিধাজনক, সাশ্রয়ী ও নির্ভরযোগ্য মোবাইল আর্থিক সেবা, যা বাংলাদেশে আর্থিক ইনক্লুশন প্রসারে উল্লেখযোগ্য ভূমিকা পালন করে আসছে। ২০১১ সালে এটির সূচনা হওয়ার পরে, বিকাশ একটি নিয়ন্ত্রিত, আনুষ্ঠানিক চ্যানেলের মাধ্যমে মানুষকে আর্থিক লেনদেন করার সুযোগ তৈরি করার লক্ষ্যে লক্ষ লক্ষ ব্যাংকের সাথে যুক্ত নয় এবং ব্যাংকের সাথে যুক্ত ব্যক্তিকে মোবাইল ওয়ালেট খুলতে সহায়তা করেছে। এটি একটি উন্নয়ন ফলাফল হিসাবে বিবেচিত। স্থানীয়ভাবে অর্থ স্থানান্তর, মোবাইল রিচার্জ, বেতন এবং সমাজকল্যাণের জন্য অর্থ বিতরণ, ব্যাংক থেকে বিকাশ ওয়ালেটে ট্রান্সফার, পুনরাবৃত্তি এবং ইউটিলিটি বিল পেমেন্টের মতো বিস্তৃত পরিসরের আর্থিক লেনদেনের জন্য এমএফএসের ব্যবহার দ্রুত বৃদ্ধি পেয়েছে। বাংলাদেশী গ্রাহকরা, বিশেষত জনসংখ্যায় ব্যাংকের সাথে সম্পর্কহীন অংশ মোবাইল - আর্থিক সেবার মাধ্যমে প্রতিদিনের আর্থিক লেনদেন সুবিধা পাচ্ছে। বিশেষ করে লেনদেন ব্যয় কম এবং সেটা থেকেও বেশি সুবিধা পেতে পারছে তারা। শহরে বসবাসকারী লোকেরা আর্থিক লেনদেন করার সময় সুবিধা এবং কম জটিলতার সন্ধান করে, কারণ সময় তাদের কাছে অত্যন্ত মূল্যবান। বিকাশের এমন অনেকগুলি সেক্টর চিহ্নিত করা যায় যেখানে আরও সুবিধা প্রদান করতে পারে। সময়ে সময়ে বিকাশ অ্যাপে আরও নতুন সেবা চালু করা হয়েছে, এই নির্দিষ্ট মানুষগুলো এখন বিকাশ ইকোসিস্টেমের সাথে যুক্ত হচ্ছে।
 
==পুরস্কার এবং স্বীকৃতি==
* মন্থন পুরস্কার (বিজয়ী, ২০১৪)
* কমঅ্যাওয়ার্ড ইন্টিগ্রেটেড ক্যাম্পেইন (সোনা, ২০১৬)
* সেরা এমএফএস ব্র্যান্ড পুরস্কার (ব্র্যান্ড ফোরাম, ২০১৭)
* এশিয়ার সেরা নিয়োগকারী ব্র্যান্ড পুরস্কার (এইচআর কংগ্রেস, ২০১৭)
* ২৩তম চেঞ্জ দ্যা ওয়ার্ল্ড পুরস্কার
* গ্লোবাল ব্র্যান্ড এক্সিলেন্স পুরস্কার
* নিলসন ক্যাম্পাস ট্র্যাক জরিপ (বি-স্কুল) ড্রিম এমপ্লয়ার পুরস্কার
* সেরা ইনোভেশন ফিনান্সিয়াল সেক্টর (বাংলাদেশ ইনোভেশন পুরস্কার, ২০১৮)
* ব্র্যান্ড অ্যাওয়ার্ড (সেরা এবং নম্বর ওয়ান ফিনান্সিয়াল অ্যাপ্লিকেশন, এমএফএসে সেরা ব্র্যান্ড, ২০১৮ সবচেয়ে প্রিয় ব্র্যান্ডগুলির মধ্যে ৫ম)
* ব্র্যান্ড অ্যাওয়ার্ড (এমএফএসে সেরা ব্র্যান্ড, ২০১৯, সবচেয়ে প্রিয় ব্র্যান্ডগুলির মধ্যে ১ম)
 
== নিরাপত্তা ও সুরক্ষা ==
১১,৪৫৯টি

সম্পাদনা