"দোহা" পাতাটির দুইটি সংশোধিত সংস্করণের মধ্যে পার্থক্য

বট নিবন্ধ পরিষ্কার করেছে। কোন সমস্যায় এর পরিচালককে জানান।
(বানান সংশোধন)
(বট নিবন্ধ পরিষ্কার করেছে। কোন সমস্যায় এর পরিচালককে জানান।)
দোহা শহরটির প্রতিষ্ঠা হয়েছিল ১৮২০ সালে কাতারের অন্য একটি শহর আলবিদ্দা এর উপশহর হিসেবে। ১৯৭১ সালে ব্রিটিশ শাসন থেকে স্বাধীনতা লাভের পর এটিকে কাতারের রাজধানী হিসেবে ঘোষণা করা হয়। এটি কাতারের বাণিজ্যিক অঞ্চল হওয়ার পাশাপাশি মধ্যপ্রাচ্যের অন্যতম উদীয়মান অর্থনৈতিক অঞ্চল। যার জন্য বিশ্বায়ন ও বিশ্বের শহর গবেষণা নেটওয়ার্ক এটিকে আন্তরজাতিক শহর হিসেবে স্বীকৃতি দিয়েছে। দোহা শহরটি শিক্ষাঞ্চল হিসেবেও সুপ্রতিষ্ঠিত। এটিকে ঘিরে অনেক গবেষণা প্রতিষ্ঠাণ গড়ে উঠেছে।
 
দোহা অনেক আন্তরজাতিক অনুষ্ঠানের সফল আয়োজক হিসেবে সুপ্রতিষ্ঠিত। এটি বিশ্ব লেনদেন সংস্থার অধিনে অনুষ্ঠিত দোহা উন্নয়ন কার্যক্রমের মন্ত্রীপরিষদমন্ত্রিপরিষদ সমন্নীত বৈঠকের প্রথম সফল আয়োজক। দোহা অনেক ক্রীড়া অনুষ্ঠানেরও সফল আয়োজক যার মধ্যে রয়েছে ২০০৬ সালের এসিয়ান গেমস্, ২০১১ সালের প্যান আরব গেমস্ এবং ২০১১ সালের ডিসেম্বর মাসে এ এফ ছি গেমস্ এর অনেক খেলা দোহাতে অনুষ্ঠিত হয়। বিশ্ব তেলজাত পরিষদের ২০ তম আন্তর্জাতিক সভাও দোহাতে অনুষ্ঠিত হয়। এরপর ২০১২ সালের ইউ এন এফ ছি ছি ছি এর জলবায়ু সম্মেলনের ও সফল আয়োজক দোহা। উল্লেখ্য কাতারে অনুষ্ঠিত ২০২২ সালের ফিফা ফুটবল বিশ্বকাপের অনেক খেলার ভেণ্যু হিসেবে দোহাকে তৈরী করা হচ্ছে। সর্বশেষ ২০১৯ সালের এপ্রিলে ১৪০ তম আন্ত-দেশীয় সংসদ সমিতির সমাবেশের সফল আয়োজক ছিল কাতারের দোহা।
 
২০১৫ সালের মে মাসে, প্রাতিষ্ঠানিক ভাবে দোহাকে নতুন সপ্তাশ্চর্যের শহর হিসেবে স্বীকৃতি দেয়া হয় যেখানে দোহার সাথে এই গৌরব এর সম্মান পেয়েছিল ভিগান, লা পায, ডারবান, হাভানা, বৈরুত, কুয়ালালামপুর।
১,৮৬,১২৭টি

সম্পাদনা