"রেফ ফাইঞ্জ" পাতাটির দুইটি সংশোধিত সংস্করণের মধ্যে পার্থক্য

→‎কর্মজীবন: সম্প্রসারণ
(কর্মজীবন)
(→‎কর্মজীবন: সম্প্রসারণ)
 
১৯৯৩ ছিল তার সাফল্যের বছর। তিনি পিটার গ্রিনওয়ের ''দ্য বেবি অব ম্যাকন'' চলচ্চিত্রে জুলিয়া অরমন্ডের বিপরীতে কেন্দ্রীয় চরিত্রে অভিনয় করেন। চলচ্চিত্রটি বিতর্কিত হয় এবং নেতিবাচক পর্যালোচনা লাভ করে। একই বছর পরে তিনি [[স্টিভেন স্পিলবার্গ]]ের ''[[শিন্ডলার্স লিস্ট]]'' চলচ্চিত্রে নৈতিকতা বিবর্জিত নাৎসি নির্মূল ক্যাম্পের কমান্ড্যান্ট আমোর গ্যোট চরিত্রে অভিনয় করে আন্তর্জাতিক অঙ্গনে পরিচিতি লাভ করেন। এই কাজের জন্য তিনি [[শ্রেষ্ঠ পার্শ্ব অভিনেতা বিভাগে একাডেমি পুরস্কার]]ের মনোনয়ন লাভ করেন।<ref name="actors"/> অস্কার না জয় করতে পারলেও তিনি এই চরিত্রে অভিনয়ের জন্য [[শ্রেষ্ঠ পার্শ্বচরিত্রে অভিনেতা বিভাগে বাফটা পুরস্কার]] অর্জন করেন। গ্যোট চরিত্রে তার অভিনয় তাকে [[আমেরিকান ফিল্ম ইনস্টিটিউট]]ের শীর্ষ ৫০ চলচ্চিত্রের খল অভিনয়শিল্পী তালিকায় স্থান করে দেয়।<ref name="এউ-রেফ"/>
 
[[চিত্র:Hand prints in Leicester Square, London - Ralph Fiennes (4039281033).jpg|থাম্ব|ডান|লন্ডনের লিস্টার স্কয়ারে ফাইঞ্জের হাতের ছাপ, ১৯৯৬।]]
১৯৯৪ সালে তিনি ''কুইজ শো'' চলচ্চিত্রে মার্কিন শিক্ষায়তনিক ব্যক্তিত্ব চার্লস ভ্যান ডোরেন চরিত্রে অভিনয় করেন। ১৯৯৬ সালে তিনি [[ক্রিস্টিন স্কট-টমাস]]ের বিপরীতে মহাকাব্যিক দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধ]]ের প্রণয়ধর্মী চলচ্চিত্র ''[[দি ইংলিশ পেশন্ট (চলচ্চিত্র)|দি ইংলিশ পেশন্ট]]'' চলচ্চিত্রে অভিনয় করে [[শ্রেষ্ঠ অভিনেতা বিভাগে একাডেমি পুরস্কার]]ের মনোনয়ন লাভ করেন।<ref name="actors"/> এই দশকের শেষভাগে তিনি ক্যাম্প নস্টালজিয়া নির্ভর ''[[দি অ্যাভেঞ্জার্স (১৯৯৮-এর চলচ্চিত্র)|দি অ্যাভেঞ্জার্স]]'' (১৯৯৮), বাইবেলীয় মহাকাব্যিক ''[[দ্য প্রিন্স অব ইজিপ্ট]]'' (১৯৯৮) ও ঐতিহাসিক নাট্যধর্মী ''[[সানশাইন (১৯৯৯-এর চলচ্চিত্র)|সানশাইন]]'' (১৯৯৯) চলচ্চিত্রে অভিনয় করেন। ১৯৯৯ সালে তিনি ''ওয়ানজিন'' চলচ্চিত্রে নাম ভূমিকায় অভিনয় করেন এবং এর সহ-প্রযোজকও ছিলেন। তার বোন [[মার্থা ফাইঞ্জ]] চলচ্চিত্রটি পরিচালনা করেন এবং তার ভাই ম্যাগনাস এতে সুরারোপ করেন।
 
২০০০-এর দশকের শুরুতে তিনি থ্রিলারধর্মী ''[[স্পাইডার (২০০০-এর চলচ্চিত্র)|স্পাইডার]]'' (২০০২) এবং প্রণয়ধর্মী হাস্যরসাত্মক ''[[মেইড ইন ম্যানহাটন]]'' চলচ্চিত্রে অভিনয় করেন। একই বছর তিনি ''[[দ্য সাইলেন্স অব দ্য ল্যাম্বস (চলচ্চিত্র)|দ্য সাইলেন্স অব দ্য ল্যাম্বস]]'' ও ''[[হ্যানিবল (চলচ্চিত্র)|হ্যানিবল]]''-এর পূর্ববর্তী পর্ব ''[[রেড ড্রাগন (২০০২-এর চলচ্চিত্র)|রেড ড্রাগন]]''-এ ফ্রান্সিস ডলারহাইড চরিত্রে অভিনয় করেন। [[এমিলি ওয়াটসন]] অভিনীত অন্ধ তরুণীর সাথে প্রণয়ের সম্পর্কে লিপ্ত সহানুভূতিশীল ধারাবাহিক খুনী চরিত্রে ফাইঞ্জের অভিনয় প্রশংসিত হয়। চলচ্চিত্র সমালোচক ডেভিড স্টেরিট লিখেন, "রেফ ফাইঞ্জ সমসাময়িক পাগল হ্যানিবল লেক্টারের মত ভয়ানক রকমের ভালো।"<ref>{{cite web |url=http://www.csmonitor.com/2002/1004/p15s02-almo.html |author=Sterritt, David |title=The doctor is in: Hannibal returns in 'Lambs' prequel |work=ক্রিশ্চিয়ান সায়েন্স মনিটর |date=4 October 2002 |accessdate=২২ ডিসেম্বর ২০১৯ |lang=en}}</ref>
 
==তথ্যসূত্র==
{{সূত্র তালিকা|২}}