"বর্ণালীবীক্ষণ" পাতাটির দুইটি সংশোধিত সংস্করণের মধ্যে পার্থক্য

বট নিবন্ধ পরিষ্কার করেছে। কোন সমস্যায় এর পরিচালককে জানান।
(কলামের তালিকা ও/বা div col টেমপ্লেট সংশোধন)
(বট নিবন্ধ পরিষ্কার করেছে। কোন সমস্যায় এর পরিচালককে জানান।)
[[চিত্র:Light dispersion of a mercury-vapor lamp with a flint glass prism IPNr°0125.jpg|thumb|right|একটি প্রিজমের দিয়ে [[বিচ্ছুরণ (আলোকবিজ্ঞান)|বিচ্ছুরণের]] দ্বারা সাদা আলোর বিশ্লেষণ। এইটি হল বর্ণালিবীক্ষণ যন্ত্রের উদাহরণ।]]
'''বর্ণালীবীক্ষণ''' ({{lang-en|Spectroscopy}}) হচ্ছে পদার্থ এবং বিকিরণের মধ্যে মিথস্ক্রিয়া বিষয়ক গবেষণা। সূর্যের আলো [[প্রিজম (আলোকবিজ্ঞান)|প্রিজমের]] মধ্য দিয়ে অতিক্রম করলে [[তরঙ্গ দৈর্ঘ্য]] অনুযায়ী বিভক্ত হয়ে যায়, এই ঘটনা পর্যবেক্ষণের মাধ্যমেই বিজ্ঞানের এই শাখার জন্ম হয়েছিল। পরবর্তীতে অবশ্য তরঙ্গ দৈর্ঘ্য বা [[কম্পাঙ্ক|কম্পাঙ্কের]] অপেক্ষক হিসেবে বিকিরিত শক্তির যেকোন ধরণেরধরনের মিথস্ক্রিয়া বোঝাতে এই শব্দটি ব্যবহৃত হতে শুরু করে। বর্ণালীবীক্ষণ থেকে পাওয়া উপাত্ত অনেক সময় একটি [[বর্ণালী (পদার্থবিজ্ঞান)|বর্ণালীর]] মাধ্যমে তুলে ধরা হয়। বর্ণালী হচ্ছে তরঙ্গ দৈর্ঘ্য বা কম্পাঙ্কের বিপরীতে উক্ত তরঙ্গ দৈর্ঘ্য শক্তির পরিমাণের একটি লেখচিত্র।
 
[[বর্ণালীমিতি]] এবং স্পেকট্রোগ্রাফি শব্দ দুটি অনেক সময় তরঙ্গ দৈর্ঘ্যের সাপেক্ষে বিকিরণের তীব্রতার পরিমাপ বোঝাতে ব্যবহৃত হয়। অনেক বর্ণালীবীক্ষণিক পরীক্ষার পদ্ধতি বোঝাতেও বর্ণালীমিতি ব্যবহৃত হয়। বর্ণালীবীক্ষণের জন্য ব্যবহৃত যন্ত্রের নাম হচ্ছে [[স্পেকট্রোমিটার]], [[স্পেকট্রোফটোমিটার]], [[স্পেকট্রোগ্রাফ]] বা বর্ণালী বিশ্লেষক।
১,৭৬,৪২২টি

সম্পাদনা